এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > হয় রাজনৈতিক সন্ন্যাস নেবেন, নাহলে স্বমহিমায় ফিরবেন – স্পষ্ট জানালেন শোভন চ্যাটার্জি

হয় রাজনৈতিক সন্ন্যাস নেবেন, নাহলে স্বমহিমায় ফিরবেন – স্পষ্ট জানালেন শোভন চ্যাটার্জি



খবরের শিরোনামে এখন কলকাতার মেয়র তথা রাজ্যের গুরুত্ত্বপূর্ন মন্ত্রী তথা দক্ষিণ ২৪ পরগণার তৃণমূল জেলা সভাপতি শোভন চট্টোপাধ্যায়। একদিকে নারদ কাণ্ডে নাম জড়িয়ে সিবিআইয়ের জেরার মুখে, অন্যদিকে গার্হস্থ্য হিংসার কারণে স্ত্রীর বিরুদ্ধে বিবাহ বিচ্ছেদের মামলা, সর্বোপরি ‘বিশেষ বন্ধু’ বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে গুঞ্জন – যা মুখ পোড়াচ্ছে তাঁর ও তাঁর দলের। এরমাঝেই কলকাতার এক নামী ওয়েব পোর্টালে প্রকাশিত খবর থেকে জানা যাচ্ছে, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নাকি তাঁকে আপাতত তিন মাসের ছুটি নিয়ে বেড়াতে যেতে বলেছেন। আর তার বদলে মুখ্যমন্ত্রীর অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ এক নেতাকে তিনি ফোন করে জানিয়েছেন, এখন ছুটি নেওয়ার কোনো প্রশ্নই নেই। মুখ্যমন্ত্রীর মুখোমুখি বসে তিনি একটা হেস্তনেস্ত আগে করতে চান। ওই পোর্টালে প্রকাশিত খবর থেকে আরো জানা যাচ্ছে, তিনি ওই শীর্ষনেতাকে আরো জানিয়েছেন যে দলের গুরুত্বপূর্ণ পদে, মেয়রপদে ও মন্ত্রিসভায় রেখেও তাঁকে যেভাবে ‘অপমান’ ও ‘হেনস্থা’ করা হচ্ছে, তা তাঁর কাছে দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে।

ফলে তিনি এবার কান্তে মুখোমুখি বসে কথা বলতে চান তৃণমূলনেত্রীর সঙ্গে। তিনি নাকি চান, আগে সব কিছুর ফয়সালা হোক, না হলে তিনি রাজনীতি থেকেই স্বেচ্ছায় চিরকালের জন্য ছুটি নেবেন। দলের ওই শীর্ষনেতার সঙ্গে কথা হওয়ার ঘটনা তিনি ওই পোর্টালের কাছে স্বীকার করলেও, কি কথা হয়েছে তা নাকি তিনি জানাতে চান নি। তবে ওই পোর্টালে দাবি করা হয়েছে, শোভনবাবু নাকি দলের সেই শীর্ষনেতার কাছে অভিযোগ জানিয়েছেন যে তাঁর ব্যক্তিগত জীবনের টানাপড়েনের সুযোগ নিয়ে দলের দুই প্রথমসারির নেতা তাঁর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছেন। এমনকি তাঁর ও স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায়ের বিবাহ বিচ্ছেদ মামলা প্রসঙ্গে রত্নাদেবী জানিয়েছিলেন, দল তাঁর পাশে আছে, সে ব্যাপারেও দল কোনো পাল্টা বিবৃতি না দেওয়ায় তিনি ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন। তিনি স্পষ্ট জানিয়েছেন, বিভিন্ন পদে রেখে তাঁকে অপ্রাসঙ্গিক করে দেওয়ার চেষ্টা হচ্ছে, সেটা তিনি মেনে নেবেন না। বরং অন্য কোনও দলে যোগ দেবেন না এই মুচলেকা দিয়ে দল ও রাজনীতি থেকে ই সন্ন্যাস নিয়ে নেবেন। যদিও এই খবরের সত্যতা বা সূত্র সম্পর্কে ওই ওয়েব পোর্টালে কিছু লেখা নেই, প্রিয়বন্ধু বাংলার তরফেও এই খবরের সত্যতা যাচাই করে দেখা সম্ভব হয় নি। এই প্রবন্ধ সম্পূর্ণরূপে ওই পোর্টালে প্রকাশিত খবরের পরিপ্রেক্ষিতে করা, কোনোভাবেই রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত নয় বা কোনো ব্যক্তি বা দলের সম্মানহানির উদ্দেশ্যে রচিত নয়।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!