এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > শোভন-কাণ্ডে নতুন মোড়, সামনে এল এক নতুন ‘বিশেষ মহিলা বন্ধু’

শোভন-কাণ্ডে নতুন মোড়, সামনে এল এক নতুন ‘বিশেষ মহিলা বন্ধু’



রাজ্য রাজনীতিতে বর্তমানে সবথেকে ‘হট-টপিকের’ নাম শোভন চট্টোপাধ্যায়। নারদ কেলেঙ্কারি, ব্যক্তিগত ডিভোর্স পেরিয়ে বড় হয়ে উঠেছে মেয়রপদ ও মন্ত্রীত্ত্ব থেকে তাঁর অপসারণের জল্পনা। এরমাঝেই নতুন করে সামনে এল তাঁর এক ‘বিশেষ মহিলা বন্ধুর’ খবর। কিছুদিন আগেই রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের কলেজ শিক্ষক সংগঠন ওয়েবকুপার অ্যাডহক কমিটি ভেঙে দেওয়া হয়েছে। ছেঁটে ফেলা হয়েছে ওয়েবকুপার রাজ্য কমিটির ২১ সদস্যকে, যদিও প্রেসিডেন্টকে রেখে দেওয়া হয়েছে। আর ব্যাড পড়া এই ২১ সদস্যের অন্যতম মিল্লি আমিন কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়, ইনিই নাকি শোভনবাবুর সেই ‘বিশেষ বন্ধু’। আর কমিটি থেকে বাদ পরেই বিস্ফোরকভাবে মুখ খুলেছেন বৈশাখীদেবী।

বেশ কিছুদিন থেকেই রাজনৈতিকমহলে ফিসফাস শোভনবাবু ও বৈশাখীদেবীর ‘বন্ধুত্ত্ব’ নিয়ে। এমনকি সংবাদমাধ্যমে জল্পনা ছড়ায়, এই কারণেই নাকি শোভনবাবু তাঁর স্ত্রীর বিরুদ্ধে ‘গার্হস্থ্য হিংসার’ অভিযোগে বিবাহবিচ্ছেদের মামলা রুজু করেছেন। এমনকি কিছুদিন আগে যখন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়কে ডিলিট দিয়ে সম্মানিত করে আমেরিকার ডেলওয়ারের কেইআইএসআইই ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, সেই সময়েও তাঁর পাশে ছিলেন বৈশাখী দেবী। এমনকি রাজনৈতিক গুঞ্জন, শোভনবাবুর সঙ্গে ‘বন্ধুত্ত্বের’ জন্যই নাকি বৈশাখীদেবী ওয়েবকুপাতে ‘বিশেষ ক্ষমতার’ অধিকারী হয়েছিলেন। আর তাই শাসকদল হঠাৎ করে কোনো কারণ না দর্শিয়েই ওয়েবকুপার কমিটি ভাঙে দেওয়ায় তীব্র হয়েছে জল্পনা। যদিও বৈশাখীদেবী এই সব জল্পনা উড়িয়ে দিয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন, মেয়র পারিবারিক বন্ধু, তিনি খুব ভাল সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছেন না। উনি যাতে মানসিকভাবে ফিট থাকেন এবং শারীরিক অবস্থার অবনতি না হয়, বন্ধু হিসেবে তিনি তাঁর খেয়াল রাখব। এর জন্য পরবর্তী সময়ে যদি কোনও শাস্তি পেতে হয়, তাহলে তা মাথা পেতে নেব এমনকি মেয়র যদি কোনও পদে নাও থাকেন, তাহলেও তাঁর পাশে থাকব। শোভন চট্টোপাধ্যায়ের পারিবারিক অশান্তির পিছনে আমার কোনও ভূমিকা নেই, এমনকি রত্না চট্টোপাধ্যায় বিভিন্ন সময়ে আমার কাছে এসেছেন। আমি শুধু মুখ্যমন্ত্রী ও শিক্ষামন্ত্রীকে চিনি, আর চিনি নিজের প্রফেশনের সঙ্গে যুক্ত অধ্যাপক-অধ্যাপিকাদের। কিছু সম্পর্ক শাশ্বত হয় বন্ধুত্বে কখনও স্বার্থের জায়গা থাকে না। শোভনবাবুকে নিয়ে গুঞ্জনের জেরে আমি মানসিক ভাবে বিপর্যস্ত, লাঞ্ছিত, মর্মাহত।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!