এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > বানভাসি শিলিগুড়ি নিয়ে তীব্র তরজা শাসক-বিরোধী দুই হেভিওয়েট শীর্ষনেতার

বানভাসি শিলিগুড়ি নিয়ে তীব্র তরজা শাসক-বিরোধী দুই হেভিওয়েট শীর্ষনেতার



কদিন আগেই শিলিগুড়ি পুরসভার উন্নয়ন নিয়ে একে অপরের বিরুদ্ধে চরম তরজায় জড়িয়ে পড়েন এসজেডিএর চেয়ারম্যান সৌরভ চক্রবর্তী ও পৌরসভার মেয়র অশোক ভট্টাচার্য। এবার সেই তরজা আরও বৃদ্ধি পেল সোমবার পানা বৃষ্টিতে শিলিগুড়ির হাসপাতাল মোড়, ক্ষুদিরামপল্লি, হায়দরপারা, চম্পাসারি, শক্তীগড়, অশোকনগর, শান্তিনগড়, ও প্রধাননগরের মত বেশ কাছু এলাকায় জল জমাকে কেন্দ্র করে। আর এই জমা জলের খবর পেয়েই শিলিগুড়ির এক প্রান্ত যখন পরিদর্শন করছেন বাম নেতা তথা পৌরসভার মেয়র অশোক ভট্টাচার্য, ঠিক তখনই আরেক প্রান্ত পরিদর্শনে রয়েছেন তৃনমূল নেতা তথা এসজেডিএর চেয়ারম্যান সৌরভ চক্রবর্তী। কিন্তু এলাকা আলাদা হলেও একে অপরের বিরুদ্ধে এই জমা জল নিয়ে সুর চরাতে পিছপা হননি কেউই। শিলিগুড়ির বাম পুরবোর্ড তথা মেয়রকে কটাক্ষ করে এসজেডিএর চেয়ারম্যান সৌরভ চক্রবর্তী বলেন,'” শিলিগুড়ির মত শহরে এমন জলমগ্ন পরিস্থিতি দেখেই বোঝা যাচ্ছে এব্যাপারে পুরসভার যথেষ্ট পরিকল্পনার অভাব রয়েছে। সমস্যা সমাধিনে পুরসভার মেয়র সরকারের কাছ থেকে কোনোও পরামর্শ না নিলেও এসজেডিএ নিকাশি ব্যাবস্থা নিয়ে নতুন করে পরিকল্পনার ভিত্তিতে এই সমস্যার সমাধান করা হবে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

” পাল্টা উত্তর দিতে পিছিয়ে নেই মেয়র অশোক ভট্টাচার্যও।  তিনি বলেন, ” সৌরভবাবু নিজের জেলা জলপাইগুড়ি, আলিপুরদুয়ারেই জল জমে রয়েছে। কোলকাতার কিছু জায়গায় নৌকো চলছে।হৃসপাতালের সামনে 60 বছরের পুরোনো কালভাটের কারনে সামান্য জল জমেছিল। পুরকর্মী ও কাউন্সিলররা রাস্তায় নেমে তা পরিস্কার করে দিয়েছে।” সেচদপ্তরের খবর অনুযায়ী, দার্জিলিং, কার্শিয়াং, মিরিক, শিলিগুড়ি সহ সব জায়গাতেই প্রবল বৃষ্টির জেরে মহানন্দা, বালৃসন সহ অনেক নদীরই জল বাড়তে শুরো করেছে। আবহাওয়া দপ্তর ও উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক রঞ্জন রায় মনে করেন, বর্ষা ঢুকে যাওয়ার করনেই এই বৃষ্টি। যার প্রভাব আগামী দুদিন থাকবে। জানা গেছে, শিলিগুড়ির মৃল শহর ও মহকুমা অঞ্চল মিলিয়ে 98 মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে এদিন। আর তার জেরেই মাটিগাড়া,বাগডোগড়া, নকশালবাড়ি, বাতাসী, ফাসিদেওয়া, খড়িবাড়ি সহ একাধিক জায়গায় জল জমতে শুরু করে। সূত্রের খবর, ফুলবাড়িতে জল জমে যাওয়ায় উত্তরকন্যার সামনে স্থানীয় বৃসিন্দারা বিক্ষোভ দেখালে এনজেপি থানার পুলিশ এসে সেই বিক্ষোভকারীদের হঠিয়ে দেয়। আর এর ফাকেই তৃনমূল নেতা সৌরভ চক্রবর্তী ও বাম নেতা অশোক ভট্টাচার্য বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শনে গিয়ে একে অপরের প্রতি দোষারোপ করতে শুরু করেন। সব মিলিয়ে বর্ষার বৃষ্টিতে জমা জল নিয়ে রাজনৈতিক বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে এই দুই নেতা সামনের পৌরসভার নির্বাচনে কতটা নিজেদের ভোটবাক্সে জোয়ার আনতে পারেন, সেই অপেক্ষায় রয়েছে রাজনৈতিক মহল।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!