এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > পুরুলিয়া-ঝাড়গ্রাম-বাঁকুড়া > শবর মহিলাকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার 2 বিজেপি নেতা-কর্মী! শাস্তির দাবি জানাচ্ছে বিজেপিই!

শবর মহিলাকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার 2 বিজেপি নেতা-কর্মী! শাস্তির দাবি জানাচ্ছে বিজেপিই!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – 2021 এ রাজ্যে পরিবর্তনের জন্য এখন মাঠে ময়দানে নেমে লড়াই শুরু করে দিয়েছে গেরুয়া শিবির। তবে বিভিন্ন ক্ষেত্রে তৃণমূলের বিরুদ্ধে যেমন অনিয়মের অভিযোগ উঠছে, ঠিক তেমনই বিজেপির বিরুদ্ধে বিভিন্ন জায়গায় উঠছে অপরাধমূলক কাজ কর্মের অভিযোগ। যার ফলে অনেক ক্ষেত্রেই অস্বস্তিতে পড়তে হচ্ছে ভারতীয় জনতা পার্টিকে।

সম্প্রতি লালগড় থানার কনসোল গ্রামে এক সফর মহিলাকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে বিজেপির দুই নেতার বিরুদ্ধে যে ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে গ্রেপ্তার হয়েছেন বিজেপির এক নেতাসহ দুইজন। জানা গেছে, ধৃতদের নাম রাজু ভূইয়া এবং পতিত ভূঁইয়া। যার মধ্যে রাজুবাবু বিজেপির সক্রিয় কর্মী হিসেবে পরিচিত এবং পতিতবাবু বিজেপি স্থানীয় বুথের সহ-সভাপতি। ইতিমধ্যেই এই দুই বিজেপি নেতাকে শনিবার ঝাড়গ্রাম আদালতে তোলা হলে বিচারক তাদের দুই দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন।

স্বাভাবিকভাবেই দলের দুই নেতা এই অপরাধমূলক ঘটনার সঙ্গে জড়িয়ে পড়ায় এখন কিছুটা হলেও চাপে পড়েছে ভারতীয় জনতা পার্টি। তবে বিজেপি যে এই অন্যায়কে প্রশ্রয় দেবে না, তা তাদের নেতাদের মুখ থেকে বাক্য প্রয়োগের মধ্যে দিয়েই কার্যত পরিষ্কার হয়ে যাচ্ছে। জানা গেছে, গত শুক্রবার শবর সম্প্রদায়ের এই মহিলা বাড়িতে একা ছিলেন। আর সেই সময় আচমকা রাজু ভূইয়া এবং পতিত ভূঁইয়া তার বাড়িতে চড়াও হয়ে মুখ চেপে তাকে পাশের ইউক্যালিপটাসের বাগানে নিয়ে যায়।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

আর এরপরই সেই মহিলাকে ওই দুই যুবক মিলে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ ওঠে। পরবর্তীতে সেই মহিলা লিখিতভাবে থানায় অভিযোগ দায়ের করার পরই দুই বিজেপি নেতাকে গ্রেপ্তার করা হয়। অনেকে মনে করেছিলেন, দলের দুই নেতাকে গ্রেপ্তার করার পর বিজেপির পক্ষ থেকে এই ঘটনাকে চক্রান্ত বলে জানিয়ে দেওয়া হবে। কিন্তু বিজেপি নেতারা এই ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে কার্যত বুঝিয়ে দিলেন যে, তাদের দলের কোনো নেতা যদি এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকে, তাহলে তা অন্যায় এবং সেটাকে তারা কোনোভাবেই প্রশ্রয় দেবেন না।

এদিন এই প্রসঙ্গে জেলা বিজেপির সভাপতি সুখময় সথপতি বলেন, “যারা একাজ করেছে, তাদের সঙ্গে বিজেপির কোনো সম্পর্ক নেই। কড়া শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।” এদিকে এই ব্যাপারে তৃনমূলের পক্ষ থেকেও গোটা ঘটনার কড়া নিন্দা করা হয়েছে। এদিন এই প্রসঙ্গে লালগড় ব্লক তৃণমূল সভাপতি শ্যামল মাহাতো বলেন, “বিজেপির নেতা কর্মীরা শবর মহিলার ওপর যে ঘটনা ঘটিয়েছে, তা খুবই ন্যাক্কারজনক। দোষীরা যেন দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি পায়।” সব মিলিয়ে এখন গোটা ঘটনা কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!