এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মেদিনীপুর > দিদির লঙ্কাকে জ্বালিয়ে ভস্ম না করা পর্যন্ত দম ফেলব না: শিবরাজ সিং চৌহান

দিদির লঙ্কাকে জ্বালিয়ে ভস্ম না করা পর্যন্ত দম ফেলব না: শিবরাজ সিং চৌহান



রাজ্য রাজনীতিতে এবার রেকর্ড সংখ্যক লোকসভা আসন নিজেদের দখলে রাখতে একদিকে যেমন জোর প্রচার চালাচ্ছে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস, ঠিক তেমনই পাল্টা এই রাজ্যকে টার্গেট করে মাঠে ময়দানে শাসকদলের বিরুদ্ধেই জোর প্রচারে অবতীর্ণ হচ্ছেন গেরুয়া শিবিরের নেতারা। আর বাংলার শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে যখন কেন্দ্রের বিজেপি নেতারা রাজ্যে এসে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও তাঁর প্রশাসনকে তীব্র কটাক্ষ করছেন, ঠিক তখনই এবার সেই বিজেপি নেতাদের মুখে শোনা গেল রাবনের লঙ্কা দহন পালার কথাও।

সূত্রের খবর, এদিন খড়্গপুরের সভায় বক্তব্য রাখার কথা ছিল মধ্যপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা বিজেপি নেতা শিবরাজ সিং চৌহানের। বিজেপির অভিযোগ, রাজ্য প্রশাসন হেভিওয়েট এই নেতার হেলিকপ্টার নামার জন্য কোনো রকম অনুমতি না দেওয়ায় সমস্যা তৈরি হয়েছে। আর তাই সড়কপথেই শিবরাজ সিং চৌহানকে সভাস্থলে আসতে হয়েছে। আর খড়্গপুরের এই সভায় উপস্থিত হয়েই রাজ্যের প্রশাসন ও শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা কর্মীদের উদ্দেশ্যে হুঁশিয়ারি দিতে দেখা যায় মধ্যপ্রদেশের বিজেপির এই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীকে। রাজ্যের শাসক দলকে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, “সোনার বাংলাকে শেষ করে দিয়েছেন মমতাদি ও তাঁর তৃণমূল সরকার”।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

তিনি আরও বলেন, “সারা ভারতে মোদিজীর জনপ্রিয়তা দেখে মমতাদি মহাজোট বন্ধন করছেন। কিন্তু এই জোটের সেনাপতি কে? বরযাত্রী রেডি, ব্যান্ড বাজনা চলছে, আর ঘোড়াও চলে এসেছে। কিন্তু ঘোড়াতে কে বসবে তা কারো জানা নেই। তাই এই ভিত্তিহীন মহাজোটকে পরাস্ত করে আগামী দিনে ফের কেন্দ্র ক্ষমতায় আসবে নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন বিজেপি সরকার”। অন্যদিকে সম্প্রতি কলকাতা পুলিশের কমিশনার রাজীব কুমারের বাড়িতে সিবিআই হানা নিয়ে মেট্রো চ্যানেলে তৃণমূল নেত্রী তথা বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ধর্ণা প্রসঙ্গেও এদিন মুখ খুলে রাজ্যের শাসকদলের বিরুদ্ধে বিষোদগার করতে দেখা যায় মধ্যপ্রদেশের বিজেপির প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহানকে।

এদিন তিনি বলেন, “দিদি কেন পুলিশ কমিশনারকে বাঁচাতে চাইছেন? পুলিশ কমিশনারের জন্য কেন ধর্ণা দিচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী! আপনারা কেউ কখনো শুনেছেন যে কোনো মুখ্যমন্ত্রী পুলিশ কমিশনারের জন্য ধর্ণা দেন! সত্যিই বাংলায় আজব ঘটনা ঘটছে”! আর এরপরই তৃনমূলের নেতাকর্মীদের সতর্ক করে দিয়ে শিবরাজ সিং চৌহান বলেন, “রাতটা তৃণমূলের হলেও সকালটা কিন্তু আমাদের। বাংলার মানুষ এবার তৃণমূলকে উপড়ে ফেলবে। দিদির লঙ্কাকে জ্বালিয়ে ভস্ম না করা পর্যন্ত দম ফেলব না”। সব মিলিয়ে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের আগে বাংলায় দলের হেভিওয়েট নেতা নেত্রীদের এনে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের ভোটব্যাঙ্ক নিজেদের দখলে আনতে শাসকের বিরুদ্ধে ক্রমশ সোচ্চার হচ্ছেন বিজেপির নেতা মন্ত্রীরা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!