এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > শান্তিপূর্ণ ভোট করাতে নির্বাচন কমিশনের কঠোর পদক্ষেপ, উত্তেজনার পারদ চড়ছে

শান্তিপূর্ণ ভোট করাতে নির্বাচন কমিশনের কঠোর পদক্ষেপ, উত্তেজনার পারদ চড়ছে



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – বিধানসভা নির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষণা করেছে আজ নির্বাচন কমিশন। পাশাপাশি এবারের বিধানসভা নির্বাচন শান্তিপূর্ণভাবে করানোর দিকে বিশেষ নজর দিয়েছে কমিশন। ভোটের জল্পনার সুর যখন চড়ছে, তখনই রাজ্যে নির্বাচন কমিশনের ফুল বেঞ্চ আসে এবং সরেজমিনে রাজ্যের পরিস্থিতি খতিয়ে দেখে রাজনৈতিক হিংসা বন্ধ করার আবেদন জানানো হয় প্রশাসনের কাছে। অন্যদিকে রাজ্যের বিরোধী দলগুলি নির্বাচন কমিশনের কাছে শান্তিপূর্ণভাবে ভোট করানোর আর্জি জানায় বারবার। মনে করা হচ্ছে, এবার সেদিকে নজর দিয়ে বিধানসভা নির্বাচনে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করল নির্বাচন কমিশন। তাই এবার নজিরবিহীনভাবে বাংলায় দুজন আইপিএস পুলিশ অবজার্ভার আসতে চলেছেন।

পাশাপাশি একজন স্পেশাল অবজার্ভার এবং একজন এক্সপেন্ডিচার অবজার্ভারও থাকছেন বলে জানা গিয়েছে। অবশ্য এবারের নির্বাচনে যে কঠোর ব্যবুস্থা গ্রহণ করা হবে, তার ইঙ্গিত আগেই পাওয়া গিয়েছিল। এ মাসের গোড়ায় যখন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী হলদিয়ায় ভোট প্রচারে এসেছিলেন, তখনই দেখা যায় তাঁর কাছে এক বিজেপি নেতা গিয়ে বাংলার মানুষ যাতে ভোট দিতে পারে তার আবেদন জানিয়েছেন। অন্যদিকে রাজ্যে প্রচারে এসে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ জানিয়ে দিয়েছিলেন, এবারের বিধানসভা নির্বাচনে নির্ভয়ে প্রত্যেকে ভোট দিতে পারবেন। একই সাথে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূলকে আক্রমণ করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী জানান, নির্বাচনে তৃণমূলের কোনো দুষ্কৃতী রাস্তায় থাকবে না।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

শুক্রবার মুখ্য নির্বাচন কমিশনার সুনীল অরোরা বাংলার ভোটের নির্ঘন্টের পাশাপাশি জানিয়ে দিলেন, শুধুমাত্র পশ্চিমবঙ্গের জন্য এবার দুজন পুলিশ অবজার্ভার আসতে চলেছেন। একজন হলেন বিবেক দুবে, যিনি অন্ধপ্রদেশ ক্যাডারের 1981 ব্যাচের আইপিএস অফিসার। একইসাথে তিনি গত লোকসভা নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গের পুলিশ অবজার্ভার ছিলেন বলে জানা গিয়েছে। পাশাপাশি তাঁর সঙ্গে থাকছেন মৃণাল কান্তি দাস। গত লোকসভা নির্বাচনে যিনি ত্রিপুরার পুলিশ অবজার্ভার ছিলেন। অন্যদিকে পশ্চিমবঙ্গের স্পেশাল অবজার্ভার হয়ে আসছেন অজয় নায়েক যার ভূয়সী প্রশংসা করেছেন এদিন মুখ্য নির্বাচন কমিশনার। পাশাপাশি বাংলার এক্সপেন্ডিচার অবজার্ভার হিসেবে নিয়োজিত হয়েছেন বি মুরলীকুমার।

মুখ্য নির্বাচন কমিশনার এদিন স্পষ্ট ভাষায় জানিয়ে দিয়েছেন, শুধুমাত্র পশ্চিমবঙ্গে শান্তিপূর্ণ ভোট করার জন্য দুজন পুলিশ অবজার্ভার নিয়োগ করা হচ্ছে। বাকি তিনটি রাজ্য এবং একটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের ভোটে একজন করেই পুলিশ অবজার্ভার থাকবেন। বিশেষজ্ঞদের মতে, এবারের বিধানসভা নির্বাচন অত্যন্ত স্পর্শকাতর বলে বিবেচিত হচ্ছে। রাজ্যে ভোটের ঘন্টা বেজে গিয়েছে। শেষ মুহুর্তের প্রতুতি রাজ্যজুড়ে। কিন্তু তার মধ্যেই চিন্তা বাড়াচ্ছে রাজনৈতিক হিংসা। আর এবার সেই হিংসা যাতে কোনভাবেই বাংলার নির্বাচনকে ছুঁতে না পারে, তারই বন্দোবস্ত করলেন মুখ্য নির্বাচন কমিশনার সুনীল অরোরা। আপাতত দেখার এত কিছু ব্যবস্থা করেও বাংলার নির্বাচন শান্তিপূর্ণভাবে হয় কিনা!

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!