এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > “শান্তি বজায় রাখুন, আইন ভাঙ্গলে কড়া পদক্ষেপ” দায়িত্ব নিয়েই বার্তা মমতার!

“শান্তি বজায় রাখুন, আইন ভাঙ্গলে কড়া পদক্ষেপ” দায়িত্ব নিয়েই বার্তা মমতার!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – ভোটের ফলাফল প্রকাশ হওয়ার পর থেকেই রাজ্যে হিংসার ঘটনা বাড়তে শুরু করেছে। ইতিমধ্যেই বিজেপির পক্ষ থেকে এই গোটা ঘটনার প্রতিবাদে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আজ শপথ নেওয়ার মুহূর্তে ধরনা কর্মসূচিতে বসা হয়েছে। পাশাপাশি গোটা দেশের কাছে বিজেপির পক্ষ থেকে তৃণমূল সরকারের আমলে রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা যে সম্পূর্ণরূপে ভেঙে পড়েছে, তা দেখানোর চেষ্টা করা হচ্ছে।

আর এই পরিস্থিতিতে কিছুটা হলেও সমস্যার মুখে পড়েছেন তৃতীয়বার বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ক্ষমতায় আসা তৃণমূল কংগ্রেসের সুপ্রিমো তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ইতিমধ্যেই বিজেপির পক্ষ থেকে এই ব্যাপারে রাজ্যপালের কাছে অভিযোগ জানানো হয়েছে। যার পরিপ্রেক্ষিতে টুইট করে সরব হয়েছেন রাজ্যের সাংবিধানিক প্রধান। তবে তৃতীয়বার মুখ্যমন্ত্রীর শপথ নিয়েই এবার শান্তি বজায় রাখার বার্তা দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যেখানে আইন ভাঙলে কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে জানিয়ে দিলেন।

সূত্রের খবর, আজ সকাল 10 টা 45 মিনিটে রাজভবনে মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যেখানে তাকে শপথবাক্য পাঠ করান রাজ্যপাল জাগদীপ ধনকার। আর তারপরেই সকলকে শান্তি বজায় রাখার বার্তা দেন তিনি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “শান্তি বজায় রাখুন। আইন ভাঙলে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে। প্রতিহিংসা পরায়ণ আচরণ করবেন না।”

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

অর্থাৎ বিরোধী দল থেকে শুরু করে রাজ্যের সাংবিধানিক প্রধান প্রত্যেকের গলায়-যখন ভোটের ফলাফল বেরোনোর পর হিংসার ঘটনা ঘটছে বলে অভিযোগ করা হচ্ছে, তখন মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব নিয়ে সেই অভিযোগ খন্ডন করার চেষ্টা করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এক্ষেত্রে যারা এই সমস্ত ঘটনার সঙ্গে জড়িত, তাদের উদ্দেশ্যে বার্তা দিয়ে কোনোভাবেই কাউকে রেয়াত করা হবে না বলে জানিয়ে দিলেন প্রশাসক মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

বিশ্লেষকরা বলছেন, বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ক্ষমতায় আসার পরেও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই বার্তা যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ। এক্ষেত্রে তৃণমূল নেত্রী এবং মুখ্যমন্ত্রীর পার্থক্য বুঝিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করলেন তিনি। রাজনৈতিক ক্ষেত্রে তিনি একটি দলের প্রধান। সেক্ষেত্রে বিরোধী দলের পক্ষ থেকে অভিযোগ উঠলে তিনি রাজনৈতিকভাবে সেই দলের মঞ্চ থেকে তা প্রতিহত করবেন।

তবে মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব নেওয়ার সাথে সাথেই সকলেই যে তার চোখে সমান, তা এই মন্তব্যের মধ্যে দিয়ে বুঝিয়ে দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একাংশ বলছেন, এটাই প্রশাসক মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃতীয়বার মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নেওয়ার পরেই রাজধর্ম পালন করার বার্তা দিয়ে শান্তি বজায় রাখার কথা শোনা গেল তার গলায়।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!