এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > শেষ হইয়াও হইল না শেষ! শীতলকুচি গুলিকাণ্ডে এবার সামনে এল বড়সড় মোড়! জানুন বিস্তারিত

শেষ হইয়াও হইল না শেষ! শীতলকুচি গুলিকাণ্ডে এবার সামনে এল বড়সড় মোড়! জানুন বিস্তারিত



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – এবারের বিধানসভা নির্বাচনে যে বিষয়টি নিয়ে রাজ্য রাজনীতিতে তোলপাড় চলেছিল, তা হল শীতলকুচির গুলিকাণ্ড। এই ঘটনাকে মুখ্যমন্ত্রী গণহত্যা বলে মন্তব্য করেছেন। গত ১০ ই এপ্রিল চতুর্থ দফা নির্বাচনের দিনে কেন্দ্রীয় বাহিনীর সঙ্গে সংঘাতে চারজন তৃণমূল কর্মীর মৃত্যু হয়। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে কেন্দ্রীয় বাহিনীর ওপর তীব্র চাপ সৃষ্টির প্রচেষ্টা শুরু হয় রাজ্যের শাসক দল তৃণমূলের। ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তা ও ঘটনার প্রকৃত তদন্তের আশ্বাস ইতিপূর্বে দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। নির্বাচনে তৃণমূলের ফের ক্ষমতায় আসার পর এই ঘটনার তদন্ত শুরু হলো।

তৃতীয়বারের জন্য তৃণমূল সরকার গঠনের পর শীতলকুচির গুলি কাণ্ডের তদন্তের ভার সিআইডির হাতে দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। এই ঘটনা তদন্তের জন্য গঠন করা হয় সিট্। দ্রুত তদন্তকার্যে নেমে পড়েন তদন্তকারী অফিসারেরা। গত সপ্তাহে এই ঘটনার তদন্তে শীতলকুচি থানার আইসিকে ডেকে পাঠানো হয়েছিল। ভবানী ভবনে উপস্থিত হয়ে জিজ্ঞাসাবাদের সম্মুখীন হয়েছিলেন তিনি। গতকাল আবার তাঁকে ভবনী ভবনে ডেকে পাঠানো হয়।

তবে, তাৎপর্যপূর্ণ যে, এবার শীতলকুচি গুলি কাণ্ডে দুজন অফিসার সহ কেন্দ্রীয় বাহিনীর ৬ জনকে তলব করেছে সিআইডি। মাথাভাঙ্গার সাব-ইন্সপেক্টরকেও তলব করা হয়েছে। জানা গেছে, মাথাভাঙ্গা সাব-ইন্সপেক্টর সেদিন মোবাইল ভ্যানের দায়িত্বে ছিলেন। সেদিন ঘটনাস্থলে তিনি উপস্থিত ছিলেন বলে জানা গেছে। তাঁকে ভবানী ভবনে উপস্থিত হবার নির্দেশ দিয়েছে সিআইডি।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

গত ১০ ই এপ্রিল শীতলকুচির ১২৬ নম্বর বুথে এই ঘটনা ঘটেছিল। বুথে কর্মরত সিআইএসএফ এর দুজন অফিসার সহ মোট ছয় জনকে সিআইডি তলব করেছে। তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ করতে চায় সিআইডি। কেন্দ্রীয় বাহিনীর আধিকারিকদের সিআইডি দপ্তরে হাজিরা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এ বিষয়ে তাদের কাছে চিঠি পাঠানো হয়েছে। যে আধিকারিকদের সিআইডি তলব করেছে, তাঁদের মধ্যে আছেন সেক্টর অফিসার, এএসআই রফা বর্মন, কিউআরটি টিমের অফিসার সুব্রত মন্ডল। তাঁদের সকলকে চিঠি দিয়ে আজ ভবানী ভবনে উপস্থিত হবার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

করোনার কারণে তাঁরা ভার্চুয়াল ভাবে জিজ্ঞাসাবাদের আর্জি জানিয়েছিলেন। তবে, তাঁদের আর্জি সিআইডি বাতিল করে দিয়েছে। আজ ১১ টার সময়ে তাঁদের ভবনী ভবনে উপস্থিত হবার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। রাজনৈতিক বিশ্লেষকেরা মনে করছেন, রাজ্যের তদন্তকারী সংস্থা সিআইডির এই পদক্ষেপ তাৎপর্যপূর্ণ। এই পদক্ষেপের দ্বারা কেন্দ্রীয় বাহিনীর ওপর চাপ সৃষ্টি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সিআইডি। এই পদক্ষেপের মাধ্যমে রাজ্য ও কেন্দ্র বিরোধিতা আরো তীব্র হবার সম্ভাবনা রয়েছে বলেও, অভিমত রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের। এবার সিআইডির নির্দেশ কতটা পালন করেন কেন্দ্রীয় বাহিনীর অফিসারেরা? ঘটনা কোনদিকে মোড় নেয়? সেদিকে কৌতূহল থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!