এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > স্কুল,কলেজ খোলা নিয়ে বড়সড় ঘোষণা শিক্ষামন্ত্রীর, জেনে নিন

স্কুল,কলেজ খোলা নিয়ে বড়সড় ঘোষণা শিক্ষামন্ত্রীর, জেনে নিন



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – দেশজুড়ে করোনা পরিস্থিতির প্রাক মুহূর্ত থেকে শুরু হয় লকডাউন। একই পরিস্থিতি বাংলাতেও হয়। অন্যদিকে করোনার শুরুর দিন থেকেই রাজ্যজুড়ে স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে সাথে মাদ্রাসাগুলিও বন্ধ হয়ে যায়। বর্তমানে পঞ্চম লকডাউনের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে দেশ। অন্যদিকে আনলক ওয়ানও চলছে। এই রাজ্যেও চলছে আনলক ওয়ান। যদিও করোনা পরিস্তিতির বিশেষ হেরফের হয়নি রাজ্যের বলে মনে করা হচ্ছে। আনলক ওয়ান হবার সাথে সাথে খুলে গেছে রাজ্যের অফিস কাছারি।

সাধারণ মানুষ রাস্তায় নামতে শুরু করেছেন। কিন্তু স্কুল-কলেজ খোলা নিয়ে এখনো পর্যন্ত কোনো সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেনি রাজ্য সরকার। এই অবস্থায় পড়ুয়াদের মনে চূড়ান্ত আশংকা চলছে বলে মনে করা হচ্ছে। সূত্রের খবর, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জুলাই মাসেও স্কুল কলেজ খোলা নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন নবান্নে। এদিন মুখ্যমন্ত্রীর সুরে সুর মিলিয়ে মঙ্গলবার শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় সাংবাদিক বৈঠক করে জানিয়ে দিলেন, আগামী 31 শে জুলাই পর্যন্ত রাজ্যজুড়ে স্কুল-কলেজ বন্ধ থাকবে।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

তবে করোনা আবহে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা চলছিল এবং তিনটি পরীক্ষা বাকি থাকতেই করোনার কারণে সব বন্ধ হয়ে যায়। এদিন শিক্ষা মন্ত্রী জানিয়েছেন, উচ্চমাধ্যমিকের বাকি থাকা তিনটি পরীক্ষা হবে জুলাই মাসের 2, 6 ও 8 তারিখে। এযাবৎকালে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় একের পর এক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন স্কুল-কলেজ খোলার ব্যাপারে। প্রথম দফায় শিক্ষামন্ত্রী জানিয়ে দিয়েছিলেন, প্রথম শ্রেণী থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত এবছর সবাইকে পাস করিয়ে দেওয়া হবে। শুধু তাই নয়, শিক্ষামন্ত্রী আরও জানান, একাদশ শ্রেণির সবাইকেও পাশ করিয়ে দেওয়া হবে।

অন্যদিকে মাধ্যমিকের রেজাল্ট বেরোনোর ব্যাপারটি সম্পর্কে জানা গিয়েছে, লকডাউন ওঠার পরেই মাধ্যমিকের রেজাল্ট বেরোবে। এ প্রসঙ্গে বিশেষজ্ঞদের মত, দীর্ঘদিন ধরে স্কুল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় মাদ্রাসাগুলি বন্ধ থাকার জন্য সবথেকে বড় সমস্যায় পড়ছে সাধারণ পড়ুয়ারা। যদিও অনেক জায়গাতেই অনলাইনে পড়াশোনা হচ্ছে, কিন্তু তা নিয়েও বিতর্ক থেকে যাচ্ছে। অন্যদিকে দীর্ঘদিন পর স্কুল খোলা হলে পরবর্তী পরিস্থিতি কি দাঁড়াবে, তা নিয়েও এখনো ধন্দ কাটেনি। আপাতত পরিস্থিতি যেভাবে এগোচ্ছে, তাতে সবথেকে বেশি উদ্বিগ্নে রয়েছে সাধারণ পড়ুয়ারা বলে জানা যাচ্ছে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!