এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > বিজেপি > সায়ন্তন বসুকে নোটিশ কমিশনের, 24 ঘণ্টার মধ্যে জবাব দেওয়ার নির্দেশ!

সায়ন্তন বসুকে নোটিশ কমিশনের, 24 ঘণ্টার মধ্যে জবাব দেওয়ার নির্দেশ!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – 24 ঘন্টা বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের প্রচারে নিষেধাজ্ঞা জারি করার পর এবার বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসুকে নোটিশ দিল নির্বাচন কমিশন। বস্তুত বেশ কিছুদিন ধরে একের পর এক বিতর্কিত মন্তব্য করেই চলেছেন এই বিজেপি নেতা। যেখানে শীতলকুচির ঘটনা নিয়ে তার একটি মন্তব্যকে কেন্দ্র করে রীতিমত প্রশ্ন তুলতে শুরু করে তৃণমূলের নেতা নেত্রীরা। তৃণমূলের পথসভা থেকে শুরু করে বড় বড় জনসভা থেকে প্রশ্ন তোলা হয়, কেন সায়ন্তন বসুর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করবে না নির্বাচন কমিশন?

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে প্ররোচনামূলক মন্তব্য করার কারণে 24 ঘন্টা প্রচার প্রক্রিয়া থেকে বাদ রাখা হয়েছিল। তাহলে কেন বিজেপি নেতাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে না, তা নিয়ে উঠতে শুরু করে প্রশ্ন। আর এই পরিস্থিতিতে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকে 24 ঘন্টা প্রচার প্রক্রিয়া থেকে বাদ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে কমিশনের পক্ষ থেকে। আর এবার সায়ন্তন বসুকে কড়া নোটিশ পাঠাল নির্বাচন কমিশন।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, সম্প্রতি শীতলকুচি নিয়ে একটি বিস্ফোরক মন্তব্য করেন এই বিজেপি নেতা‌। যেখানে তিনি বলেন, “আমাদের সঙ্গে বেশি খেলতে আসবে না। তাহলে আমরা শীতলকুচির মত খেলা খেলব।” আর তার এই মন্তব্যকে কেন্দ্র করে নির্বাচনের আচরণ ভঙ্গ হয়েছে বলে দাবি করে নির্বাচন কমিশন। আর তার পরিপ্রেক্ষিতেই এবার কমিশনের পক্ষ থেকে সায়ন্তন বসুকে একটি নোটিশ দেওয়া হয়েছে।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

যেখানে আগামী 24 ঘন্টার মধ্যেই বিজেপি নেতাকে জবাব দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তবে যদি তার জবাবে কমিশন সন্তুষ্ট না হয়, তাহলে তার বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা গ্রহণের কথাও জানিয়ে দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। স্বাভাবিক ভাবেই দিলীপ ঘোষের পর এবার সায়ন্তন বসুকে কমিশনের পক্ষ থেকে এই কড়া নোটিশ পাঠানোকে কেন্দ্র করে ভারতীয় জনতা পার্টি যে ব্যাপক চাপে পড়ে গেল, তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

পর্যবেক্ষকদের একাংশ বলছেন, কমিশন বিজেপি নেতাদের ক্ষেত্রে নমনীয় মনোভাব প্রকাশ করছে বলে তৃণমূলের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছিল। কিন্তু তৃণমূল দিলীপ ঘোষ থেকে শুরু করে সায়ন্তন বসুর বিভিন্ন মন্তব্য নিয়ে প্রশ্ন করার সাথে সাথেই এবার সেই সমস্ত বিজেপি নেতাদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ গ্রহণ করল নির্বাচন কমিশন। যেখানে দিলীপ ঘোষকে 24 ঘন্টা প্রচার থেকে বাদ রাখা এবং সায়ন্তন বসুকে নোটিশ পাঠিয়ে কড়া বার্তা দেওয়া হল। আর এই ঘটনাতেই কার্যত পরিষ্কার যে, নির্বাচন কমিশন সকলের ক্ষেত্রে সমান ভূমিকা পালন করছে। সব মিলিয়ে কোটা পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!