এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > সরকারী কর্মচারীদের ডিএ নিয়ে শুনানি শেষ, এবার পালা রায়ের,আশায় বুক বাঁধছেন সরকারী কর্মচারীরা

সরকারী কর্মচারীদের ডিএ নিয়ে শুনানি শেষ, এবার পালা রায়ের,আশায় বুক বাঁধছেন সরকারী কর্মচারীরা



2021 এর বিধানসভা নির্বাচনের দিকে তাকিয়ে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারি কর্মীদের মন জয় করার চেষ্টায় তাদের ষষ্ঠ বেতন কমিশনের নির্দেশ অনুযায়ী বর্ধিত বেতন দিচ্ছেন জানুয়ারি মাস থেকেই। তবে ষষ্ঠ বেতন কমিশনের নির্দেশ অনুযায়ী বেতন বাড়ানো হলেও সরকারি কর্মচারীদের ডিএ বা মহার্ঘ্যভাতা বাড়ানো হয়নি। সে ক্ষেত্রে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের পক্ষ থেকে হাইকোর্টে একটি মামলা করা হয়। যেখানে ষষ্ঠ বেতন কমিশনের নির্দেশ অনুযায়ী বর্ধিত হারে ডিএ বা মহার্ঘ্যভাতার দাবি করেন রাজ্য সরকারি কর্মীরা।

গতকাল হাইকোর্টে সেই মামলার শুনানি অবশেষে শেষ হয়েছে। এবার পালা রায়দানের। যদিও মামলার শুনানি শেষ হলেও এই মুহূর্তে স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইবুনাল তাঁদের রায়দান স্থগিত রেখেছে বলে জানা গেছে। সূত্রের খবর, গত বছর জুলাইতে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের ষষ্ঠ বেতন কমিশনের নির্দেশ অনুযায়ী ভাতা বাড়ানোর ব্যাপারে স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইবুনাল রায় দান করেন। দীর্ঘদিন মহার্ঘভাতা বাকি পড়ে থাকার ফলে সরকারি কর্মীরাও যথেষ্ট বিক্ষুব্ধ হয়ে রয়েছেন বলে জানা গেছে। অন্যদিকে, রাজ্য সরকারের অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইব্যুনালের রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে একটি রিভিউ পিটিশন দাখিল করে।

এই রিভিউ পিটিশন মামলাটি নিয়েই এতদিন শুনানি চলছিল। অন্যদিকে জানা গেছে ষষ্ঠ বেতন কমিশনের নির্দেশ অনুযায়ী সরকারি কর্মচারীদের মহার্ঘভাতা না দেওয়ার কারণ হিসেবে রাজ্যের আর্থিক কোষাগারের বেহালদশাকেই বর্ণনা করেছেন রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে অ্যাডভোকেট জেনারেল। উপরন্তু এই রিভিউ পিটিশনের শুনানিতে বারংবার যে বিষয়টির ওপর জোর দেওয়া হয়, সেটি হলো ষষ্ঠ বেতন কমিশনের নির্দেশ অনুযায়ী রাজ্য সরকার তাঁদের কর্মচারীদের বেতন সম্পূর্ণ রূপে বাড়িয়ে দিয়েছে।

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

এই রিভিউ পিটিশনের মামলাটি শেষ হয়েছে গতকাল। কিন্তু এখনো পর্যন্ত এই মামলার রায় দান সম্পন্ন করেনি স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইবুনাল। মহার্ঘ ভাতা নিয়ে মামলার মূল আবেদনকারী তথা কনফেডারেশন অফ স্টেট গভমেন্ট এমপ্লয়ীজের সাধারণ সম্পাদক মলয় মুখোপাধ্যায় জানিয়েছেন, ‘জয় পাওয়াটা আমাদের এখন সময়ের অপেক্ষা মাত্র । রাজ্যের বিরুদ্ধে যাবে রায় । সার্থক হবে আমাদের লড়াই । হাসি ফুটবে সরকারি কর্মচারীদের মুখে।’ অন্যদিকে, রিভিউ পিটিশনের রায় কি হবে সেদিকে উৎসুক নজর রেখেছে রাজ্য সরকারের সাথে সাথেই রাজ্য সরকারি কর্মচারীরাও।

গত বছর ৩১ অগাস্ট ‘সরকারি কর্মীদের মহার্ঘভাতা আইনসিদ্ধ অধিকার’ এই দাবিতে সিলমোহর দেয় কলকাতা হাইকোর্ট৷ ভোটের মুখে বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ এ রাজ্যে এসে সরকারি কর্মচারীদের বকেয়া ডিএ নিয়ে আশার বাণী শুনিয়েছেন। কিন্তু রাজ্যের সরকারি কর্মচারীদের ডিএ পাওয়ার আদৌ কি হক রয়েছে? তারা ডিএ পাওয়ার আইনি অধিকারী কি না তা এবার স্যাট এর রায়ের ওপরই নির্ভর করছে। যদিও মুখ্যমন্ত্রী বরাবরই দাবি করে আসছেন সরকারি কোষাগার একেবারেই শূন্য। তাই এই মুহূর্তে স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইব্যুনালের রায়ের ওপরেই সরকারি কর্মচারীদের মহার্ঘ ভাতার বিষয়টি সম্পূর্ণ দাঁড়িয়ে রয়েছে। পরিস্থিতির ওপর নজর রাখছে ওয়াকিবহাল মহল।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!