এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > সরকারি কর্মচারীদের একগুচ্ছ দাবি নিয়ে ওয়াই চ্যানেলে ধর্নায় সরকারি কর্মচারী পরিষদ

সরকারি কর্মচারীদের একগুচ্ছ দাবি নিয়ে ওয়াই চ্যানেলে ধর্নায় সরকারি কর্মচারী পরিষদ



গতকাল আসন্ন পঞ্চায়েতে নির্বাচনী দায়িত্ত্ব পালনের সময় অপ্রীতিকর ঘটনার হাত থেকে রাজ্য সরকারি কর্মীদের সুরক্ষা দিতে বিজেপির রাজ্য সদর দপ্তর ৬, মুরলীধর সেন লেনে এক অভিনব সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। বিজেপি প্রভাবিত সরকারি কর্মচারী পরিষদের আহ্বায়ক দেবাশিস শীলের তত্ত্বাবধানে ওই সম্মেলনে স্পষ্ট জানানো হয়, বিগত পঞ্চায়েত গুলির দিকে তাকালে দেখা যাবে রাজনৈতিক হিংসার বলি শেষ পর্যন্ত হন নির্বাচনী দায়িত্ত্ব পালনকারী সাধারণ রাজ্য সরকারি কর্মচারীরাই। আর তাঁদের সুরক্ষা দেওয়ার মত প্রশিক্ষণ বর্তমানে রাজ্য পুলিশের নেই। তাই আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচনে এইসব সাধারণ রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের সুরক্ষার কথা ভেবে বা সোজা কথায় তাঁদের প্রাণ রক্ষার্থে, সমগ্র পঞ্চায়েত নির্বাচনের সুরক্ষার দায়িত্ত্ব কেন্দ্রীয় বাহিনীর হাতে তুলে দেওয়া হোক। শুধু তাই নয়, কোনো অপ্রীতিকর ঘটনায় যদি সরকারি কর্মীর প্রাণ যায়, তাঁর পরিবারের সেই অপূরণীয় ক্ষতির জন্য অন্তত ১০ লক্ষ টাকার জীবনবীমা তাঁদের জন্য করা হোক।

এই প্রসঙ্গে, সম্মেলনের মূল উদ্যোক্তা ও বিজেপি প্রভাবিত সরকারি কর্মচারী পরিষদের আহ্বায়ক দেবাশিস শীলের সঙ্গে প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার তরফে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, সম্মেলন অভূতপূর্ব ভাবে সফল। কারণ আমরা যে দাবী রাজ্য সরকারের কাছে জানাচ্ছি, তা ক্ষুদ্র রাজনীতির গন্ডি পেরিয়ে দলমত নির্বিশেষে সমস্ত রাজ্য সরকারি কর্মীদের জন্য। নির্বাচনী লড়াই হয় রাজনৈতিক দলগুলির মধ্যে, কিন্তু তার বলি হন সাধারণ রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা। তাই, বৃহত্তর স্বার্থে সমগ্র বাংলার নির্বাচনী দায়িত্ত্বপ্রাপ্ত মানুষের কথা ভেবেই আমরা এই সম্মেলনের আয়োজন করেছিলাম এবং দলীয় রঙ না দেখে সবার সুরক্ষার কথা এইভাবে প্রকাশ্যে আনার জন্য অভিনন্দন জানিয়ে বিভিন্ন বিরোধী দলের বহু মানুষের ফোন আমরা পেয়েছি। এই সম্মেলনে আরো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যে, আগামী ২৪ শে এপ্রিল, মঙ্গলবার এসপ্লানেড ওয়াই চ্যানেলে রাজ্য সরকারী কর্মচারী ও পরিবার সহ কেন্দ্রের সমতুল বর্ধিত বেতন কাঠামো, মহার্ঘভাতা, অস্থায়ী কর্মীদের নিয়মিত করার ইত্যাদি দাবীতে ধর্ণা কর্মসূচী নেওয়া হবে। সবথেকে বড় কথা, এই ধর্ণা কর্মসূচিতে শুধুমাত্র রাজ্য সরকারি কর্মচারীরাই নন, রাজ্য সরকারের দীর্ঘদিনের বঞ্চনার জন্য তাঁদের পরিবারকে যে পরিমান কষ্টের মধ্যে দিয়ে যেতে হয় তার পরিপ্রেক্ষিতে এতে অংশগ্রহণ করবেন রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের স্ত্রী-পুত্র-কন্যারাও। প্রসঙ্গত, সম্মেলনে জয়প্রকাশ মজুমদার, কনক দেবনাথ সহ বিজেপির অন্যান্য রাজ্য ও কোর কমিটির সদস্যরাও উপস্থিত ছিলেন। তাঁরা দলমত নির্বিশেষে সমস্ত সাধারণ রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের জন্য বিজেপি প্রভাবিত সরকারী কর্মচারী পরিষদের এই বৃহত্তর ভাবনাকে সাধুবাদ জানান।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!