এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা >   বিদ্যালয়ে সরস্বতী পুজো বন্ধ করতে এবার স্কুল পরিদর্শককে চিঠি ! বিতর্ক তুঙ্গে

  বিদ্যালয়ে সরস্বতী পুজো বন্ধ করতে এবার স্কুল পরিদর্শককে চিঠি ! বিতর্ক তুঙ্গে



বিদ্যার অধিষ্ঠাত্রী দেবী হলেন সরস্বতী। স্কুল থেকে কলেজ, সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বাগদেবীর আরাধনায় মত্ত থাকেন না ছাত্রছাত্রীরা, এই নজির প্রায় নেই বললেই চলে। কিন্তু এবার কি সেই সরস্বতী পূজা থেকে বিরত থাকবে বিদ্যালয়গুলো! সূত্রের খবর, স্কুলে সরস্বতী পুজো করার সংবিধান বিরোধী বলে দাবি করল ভারতীয় বিজ্ঞান এবং যুক্তিবাদী সমিতি। শুধু তাই নয়, এই ব্যাপারে ইতিমধ্যেই এই সংগঠনের পুরুলিয়া শাখার তরফ থেকে জেলা স্কুল পরিদর্শককে একটি চিঠি দেওয়া হয়েছে। কিন্তু বিদ্যার দেবীর পুজো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে হবে, এটাই তো স্বাভাবিক।

সেক্ষেত্রে কেন এই নীতির বিরোধিতা করছে এই সংগঠন! এটা কি বেআইনি নয়! একাংশের মতে, এটা তো গোটা শিক্ষা সমাজের ভাবাবেগে আঘাত করা। তবে এই ব্যাপারে অবশ্য অন্য যুক্তি দিচ্ছে সেই বিজ্ঞান এবং যুক্তিবাদী সমিতি। তাদের দাবি, যেহেতু ভারত ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্র। তাই সরকারি এবং সরকারি সাহায্যপ্রাপ্ত কোনো বিদ্যালয়ে সরস্বতী পুজো করা অসাংবিধানিক। জানা গেছে, ইতিমধ্যেই এই ব্যাপারে পুরুলিয়া শাখার তরফ থেকে জেলাশাসককে চিঠি দিয়ে সেখানে জানানো হয়েছে, স্কুলে ব্রাহ্মন ডেকে সরস্বতী পুজো করানো সংবিধানের 17 নম্বর অনুচ্ছেদের বিরোধী।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

কারণ এই ঘটনা অন্য জাতিদের মনে বিরুপ ভাবনা সৃষ্টি করবে। এই প্রথায় অন্য জাতিকে ছোট করে দেখানো হয়। যা স্কুল পড়ুয়াদের মনে বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হতে পারে। তবে এই সংস্থা যে কথাই বলুন না কেন, তা যে কোনোভাবেই মানা সম্ভব নয়, তা জানেন প্রত্যেকেই।

ইতিমধ্যেই এই ব্যাপারে ছাত্রছাত্রীরা তাদের প্রতিক্রিয়া দিতে শুরু করেছে। এমনকি অভিভাবকেরাও বিজ্ঞান ও যুক্তিবাদী সমিতির এহেন দাবিতে রীতিমতো বিস্ময় প্রকাশ করেছেন। তবে এই সংগঠনের পক্ষ থেকে সরস্বতী পুজো স্কুলগুলিতে বন্ধ করা নিয়ে জেলা পরিদর্শকের কাছে চিঠি যে দেওয়া হয়েছে, তার পরিপ্রেক্ষিতে এখন জেলা পরিদর্শক কি উত্তর দেন! সেদিকেই নজর রয়েছে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!