এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > জেলে যেতে পারেন শাসকদলের ডাক্তার-বিধায়ক

জেলে যেতে পারেন শাসকদলের ডাক্তার-বিধায়ক



কলকাতার এক নামী ওয়েব পোর্টালের খবর অনুযায়ী জানা যাচ্ছে এবার বড়সড় অস্বস্তিতে পড়তে চলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত বিধায়ক ও ডাক্তার-নেতা নির্মল মাজি। এসএসকেএম হাসপাতালে পোষ্য কুকুরের ডায়ালিসিস কাণ্ডের অভিযোগের জেরে সম্মানহানিকর বক্তব্য করেছিলেন প্রকাশ্যে তিনি আর তার জেরেই তাঁর দুই বছর পর্যন্ত জেল হতে পারে বলে ওই খবর থেকে জানা যাচ্ছে। ওই ওয়েব পোর্টালের খবরে প্রকাশ, ২০১৫ সালে এসএসকেএম হাসপাতালের নেফ্রলজি বিভাগে পোষ্য কুকুরের ডায়ালিসিসের জন্য পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছিল, যার পিছনে ছিলে ডাঃ নির্মল মাজি বলেই অভিযোগ। কিন্তু বিষয়টি প্রকাশ্যে জানাজানি হতেই তা আর বাস্তবে রূপায়িত হয় নি। কিন্তু ওই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে ডাঃ নির্মল মাজি সহ আরো দুইজনের বিরুদ্ধে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে মেডিক্যাল কাউন্সিল অফ ইন্ডিয়ার এথিক্স কমিটি।
ওই ওয়েব পোর্টালের আরো দাবি, অভিযুক্ত তিন জনের মেডিক্যাল রেজিস্ট্রেশন নম্বর বাতিলের জন্য আইন অনুযায়ী প্রথমে ওয়েস্ট বেঙ্গল মেডিক্যাল কাউন্সিল এবং পরে মেডিক্যাল কাউন্সিল অফ ইন্ডিয়ায় আর্জি জানিয়েছিল পিপল ফর বেটার ট্রিটমেন্ট (পিবিটি)। কিন্তু ওই তদন্তের বিষয়ে সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত ডাঃ নির্মল মাজির বক্তব্যে পিবিটির প্রেসিডেন্ট ডাঃ কুণাল সাহার সম্মানহানি হয়েছে বলে দাবি। এমনকি কুণালবাবুর মেডিক্যাল রেজিস্ট্রেশন নম্বর বাতিল করে দেবেন বলেও ডাঃ মাজি হুমকি দিয়েছেন বলে অভিযোগ। ফলে ডাঃ নির্মল মাজিকে আইনি নোটিশ পাঠিয়ে ডাঃ কুণাল সাহা নিঃশর্ত ক্ষমা চাইতে বলেছেন এবং তাঁর বিরুদ্ধে ব্যাংকশাল কোর্টে মামলা করেছেন ও সেই মামলা গৃহীতও হয়েছে। ওই ওয়েব পোর্টালে ডাঃ সাহা দাবি করেছেন, যে ধারায় মামলা করা হয়েছে তাতে ডাঃ মাজির শাস্তি হিসাবে দুই বছরের জেল হতে পারে। যদিও এই খবরের সত্যতা বা সূত্র সম্পর্কে ওই ওয়েব পোর্টালে কিছু লেখা নেই, প্রিয়বন্ধু বাংলার তরফেও এই খবরের সত্যতা যাচাই করে দেখা সম্ভব হয় নি। এই প্রবন্ধ সম্পূর্ণরূপে ওই পোর্টালে প্রকাশিত খবরের পরিপ্রেক্ষিতে করা, কোনোভাবেই রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত নয় বা কোনো ব্যক্তি বা দলের সম্মানহানির উদ্দেশ্যে রচিত নয়।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!