এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > এই আরএসপি প্রার্থীকে বামপ্রার্থী হিসাবে মানতে রাজি নন – সাংবাদিক বৈঠকে জানিয়ে দিলেন বিমান বসু

এই আরএসপি প্রার্থীকে বামপ্রার্থী হিসাবে মানতে রাজি নন – সাংবাদিক বৈঠকে জানিয়ে দিলেন বিমান বসু



প্রথমে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে কংগ্রেসের সঙ্গে জোট বেঁধে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল ও বিরোধী দল বিজেপিকে ঠেকাতে মরিয়া চেষ্টা চালিয়েছিল বামেরা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সেই কংগ্রেসের সঙ্গে জোট না হওয়ায় বামেরা সিদ্ধান্ত নিয়েছিল যে, কংগ্রেসের জেতা দুটি আসন বহরমপুর এবং দক্ষিণ মালদহে তারা কোনরূপ প্রার্থী দেবে না।

কিন্তু এবারে বামেদের পক্ষ থেকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হলেও সেই বামেদেরই অন্যতম শরিক দল আরএসপির পক্ষ থেকে বহরমপুরের ঈদ মহম্মদকে প্রার্থী করায় প্রবল অস্বস্তিতে পড়েছে আলিমুদ্দিন স্ট্রিট। আর এখানেই একাংশের মনে জল্পনা সৃষ্টি হয়েছিল, তাহলে কি কংগ্রেসের সঙ্গে বামেদের জোট ভেস্তে যাওয়ার পর প্রাথমিক সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বামেদের পক্ষ থেকে এই দক্ষিণ মালদহ এবং বহরমপুরে কোনো প্রার্থী দেওয়া হবে না

– এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হলেও বামেদেরই অন্যতম শরিক দল আরএসপি ফ্রন্টের সেই সিদ্ধান্তকেই অমান্য করলেন! আর রাজনৈতিক মহলের যখন এই ব্যাপারে তীব্র জল্পনা চলছে, ঠিক তখনই বুধবার এই ব্যাপারে সাংবাদিক বৈঠক করে মুখ খুললেন বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু। এদিন তিনি বলেন, “কংগ্রেসের সঙ্গে আসন সমঝোতার প্রক্রিয়া ভেস্তে গেলেও রাজ্য বামফ্রন্টের বৈঠকে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল যে, আমরা বহরমপুর এবং দক্ষিণ মালদহে কোনো প্রার্থী দেবো না। তাই এখনও পর্যন্ত ফ্রন্ট নিজেদের সিদ্ধান্তে অটল রয়েছে। কিন্তু এরপর আরএসপির পক্ষ থেকে সেখানে প্রার্থী দেওয়া হয়েছে। আর যার জেরে ফ্রন্টের সিদ্ধান্ত লংঘন হয়েছে। আমরা ওদের ওই প্রার্থী প্রত্যাহারের জন্য বলেছি। মূলত ওই দুই কেন্দ্রে বিজেপি এবং তৃণমূলের বিরুদ্ধে যে প্রধান ধর্মনিরপেক্ষ, গণতান্ত্রিক দল বা প্রার্থী রয়েছেন তাদের পক্ষেই বাম কর্মী সমর্থকরা প্রচার করবেন এবং ভোট দেবেন।”


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

আর ফ্রন্টের চেয়ারম্যান বিমান বসুর এই সুর শোনা গেছে সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিত্রের গলাতেও। কিন্তু বামেদের প্রধান শরিক সিপিএম যখন এহেন কথা বলছেন, ঠিক তখনই কেন আরএসপি সেই ফ্রন্টের সিদ্ধান্ত অমান্য করে এই বহরমপুরের ঈদ মহম্মদকে প্রার্থী করল?

তাহলে কি আবার ফ্রন্টের ভেতর শরিক দলগুলোর মধ্যেও ভাঙ্গন শুরু হয়ে গেল? এদিন এই প্রসঙ্গে আরএসপির সাধারণ সম্পাদক ক্ষিতি গোস্বামী বলেন, “জেলা পার্টির কর্মী- সমর্থকদের আবেগ ও চাপের কারণে আমাদের ওখানে প্রার্থী দিতে হয়েছে। পরিস্থিতি কিছুটা হলেও অস্বস্তির তবে আমরাও নিরুপায়। দেখা যাক শেষ পর্যন্ত কি হয়!”

কিন্তু দলের একাংশ অবশ্য মনে করছেন, এই ক্ষিতি গোস্বামী মদত এবং প্রশ্রয়েই বহরমপুরে আরএসপির পক্ষ থেকে ঈদ মহম্মদকে প্রার্থী করা হয়েছে। যা আদতে ফ্রন্টের ভেতর থেকে ফ্রন্টের নির্দেশকেই অমান্য করার শামিল। তবে শেষ পর্যন্ত বাম চেয়ারম্যান বিমান বসুর কথামত যদি এখানে বাম কর্মী সমর্থকরা কংগ্রেসের হয়ে প্রচার করেন তাহলে কি হবে আরএসপি প্রার্থী ঈদ মহম্মদের! তা নিয়েই এখন তীব্র জল্পনা শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!