এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > হঠাৎ বন্ধ নিয়োগ প্রক্রিয়া, আতান্তরে রাজ্যের ২৫ লক্ষ আবেদনকারী

হঠাৎ বন্ধ নিয়োগ প্রক্রিয়া, আতান্তরে রাজ্যের ২৫ লক্ষ আবেদনকারী



মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রায়শই বিভিন্ন জনসভায় দাবি করেন তাঁর আমলে ইতিমধ্যেই রাজ্য সরকার ৮১ লক্ষ রাজ্যবাসীকে চাকরি দিয়েছেন এবংহ খুব শীঘ্রই আরো ১ কোটি মানুষের চাকরির ব্যবস্থা করে দেবেন। কিন্তু বিরোধীদের দাবি, মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য সত্য না, রাজ্যের চাকরির হাল তার থেকে অনেক খারাপ। আর বিরোধীদের দাবিকে মান্যতা দিয়ে তার কিছুটা নমুনা পাওয়া গেল গ্রামীণ ডাক সেবক নিয়োগ প্রক্রিয়ায়। ডাক কর্মীর অভাবে পরিষেবা বিঘ্নিত হওয়ার পাশাপাশি রাজ্যে শতাধিক ব্রাঞ্চ পোস্ট অফিস বন্ধ হয়ে গিয়েছে। শুধু তাই নয়, ডাক সেবকের অভাবে স্পিড পোস্ট বিলি কিংবা পোস্টাল অ্যাকাউন্ট খোলার কাজও বহু জায়গায় কার্যত স্তব্ধ। তাই ২০১৭ সালের এপ্রিল মাসে ডাক বিভাগ প্রায় ৫ হাজার গ্রামীণ ডাক সেবক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। আর সেখানেই আবেদন জমা পরে প্রায় ২৫ লক্ষ। এই পদে শিক্ষাগত যোগ্যতামান মাধ্যমিক পাশ হলেও সূত্রের খবর রাজ্যের লক্ষ লক্ষ উচ্চশিক্ষিত বেকার যুবক যুবতীও আবেদন করেছিলেন।

কিন্তু আবেদনকারী সেই ২৫ লক্ষ বেকার যুবক যুবতী এখন চরম আতান্তরে। কোনো কারণ না দর্শিয়েই পাঁচ হাজার গ্রামীণ ডাক সেবক নিয়োগ প্রক্রিয়া আচমকা বাতিল হয়ে গেল। সম্প্রতি কেন্দ্রীয় মন্ত্রকের ওয়েস্ট বেঙ্গল সার্কেলের রিক্রুটমেন্ট বিভাগ সম্প্রতি রাজ্যের প্রতিটি জেলার ডাক বিভাগে এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে চিঠি পাঠিয়েছে। পরে আরেকটি চিঠি পাঠিয়ে জানানো হয়েছে, সমস্ত আবেদনকারীকে এসএমএসের মাধ্যমে এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দেওয়া হবে। যাঁরা আবেদন করেছেন পরের নিয়োগ প্রক্রিয়ায় তাদেরও ফের আবেদন করতে হবে। কিন্তু সেক্ষেত্রে পুরনো আবেদনকারীদের নতুন করে কোনো ফি দিতে হবে না। তবে কবে ফের গ্রামীণ ডাক সেবক নিয়োগের নতুন বিজ্ঞপ্তি জারি করা হবে, তানিয়ে কিছুই বলা হয়নি। ফলে স্বভাবতই সাইবার কাফেতে ঘণ্টার পর ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে, ১০০ টাকার চালান কেটে আবেদন করা ২৫ লক্ষ বেকার যুবক-যুবতী তীব্রভাবে হতাশ।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!