এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > রাজ্যে শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে বড়সড় ঘোষণা মমতার, জেনে নিন

রাজ্যে শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে বড়সড় ঘোষণা মমতার, জেনে নিন



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – দীর্ঘদিন ধরেই প্রাথমিক ও উচ্চ প্রাথমিক চাকুরী প্রার্থীদের সঙ্গে রাজ্য সরকারের একটা মত বিরোধ চলছিল। টেট পরীক্ষার সমস্ত কার্যবিধি সমাপ্ত হওয়া সত্ত্বেও গত 7 বছর ধরে প্রাথমিক বা উচ্চ প্রাথমিকে কোন নিয়োগ হয়নি। আর এই নিয়ে চূড়ান্ত জলঘোলা হয়েছে। ইতিমধ্যে পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে গেছে, যেখানে মামলা উঠেছে কোর্টে। এই মুহূর্তে রাজ্য জুড়ে চলছে করোনা পরিস্থিতি। আর তার মধ্যেই টেট পাস চাকরি প্রার্থীদের জন্য ঘিরে রেখেছে চাকুরী ক্ষেত্রে বঞ্চিত হওয়ার আতঙ্ক। আর এবার রাজ্যে প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে বড়োসড়ো ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিন তিনি জানিয়েছেন, প্রাথমিকে প্রায় কুড়ি হাজার পরীক্ষার্থী ইতিমধ্যেই টেট পাস করেছেন। 16500 আসন এই মুহূর্তে খালি রয়েছে প্রাথমিক স্তরে। সেক্ষেত্রে করোনা পরিস্থিতির সামান্য ন্নতি হলেই সামনের দুই মাসের মধ্যে নিয়োগ পদ্ধতি শুরু হয়ে যাবে। ডিসেম্বর মাস থেকে নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হবে বলে জানানো হয়েছে মুখ্যমন্ত্রীর পক্ষ থেকে। এদিন মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর নবান্নের সাংবাদিক সম্মেলনে মুখ্যমন্ত্রী এই খবর জানিয়েছেন। যথারীতি মুখ্যমন্ত্রীর এই ঘোষণায় খুশি টেট পাস পরীক্ষার্থীদের মধ্যে। এদিন মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, দীর্ঘদিন ধরেই প্রাথমিকে নিয়োগ বন্ধ রয়েছে। এই মুহূর্তে কুড়ি হাজার পরীক্ষার্থী টেট পাস করে বসে রয়েছেন।

প্রাথমিক শিক্ষা দপ্তর থেকেও 16500 পোস্ট এই মুহূর্তে খালি রয়েছে বলে জানানো হয়েছে। তাই নিয়োগ পক্রিয়া শুরু হবে বলে মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন। আপাতত 16500 জন নিয়োগের পর যে সাড়ে তিন হাজার টেট পাস প্রার্থী বাকি থাকবেন, তাঁদেরও ধাপে ধাপে নিয়োগ করা হবে বলে জানা গেছে। এরপর যারা তৃতীয়বারের জন্য টেট দেওয়ার আবেদন করেছিলেন, তাঁদের পরীক্ষা নেওয়া হবে। প্রাথমিক শিক্ষা দপ্তর থেকে জানানো হয়েছে, পরোক্ষার্থীরা অফলাইনেও পরীক্ষা দিতে পারবেন। প্রাথমিক নিয়োগ প্রক্রিয়া শেষ হবার পর তৃতীয় ধাপের টেট পরীক্ষা শুরু হবে। এরপর নতুন শূন্যপদে সেখানে নিয়োগ করা হবে বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী।

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

দীর্ঘদিন ধরেই বাংলায় শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে ভুরিভুরি অভিযোগ বিরোধী শিবির থেকে শুরু করে রাজ্যের চাকরিপ্রার্থীদের। প্রাথমিক, উচ্চ মাধ্যমিক থেকে শুরু করে মাদ্রাসা পরীক্ষার্থীদের পর্যন্ত দেখা গেছে রাস্তায় নেমে আন্দোলন করতে রাজ্য তৃণমূল সরকারের বিরুদ্ধে। পরিস্থিতি এমন জায়গাতেও গিয়েছিল যেখানে মুখ্যমন্ত্রী এসে আশ্বাস দিলে তবেই আন্দোলন উঠেছে। পরীক্ষার্থীরা জানিয়েছেন, বারবার শিক্ষা দপ্তরের থেকে শুরু করে শিক্ষামন্ত্রী সহ সরকারের বিভিন্ন স্তরে আবেদন করেও কোন সুরাহা হয়নি। অন্যদিকে শিক্ষামন্ত্রী থেকে শুরু করে সরকারের তরফেও বারবার বলা হয়েছে, প্রাথমিকে দ্রুত নিয়োগ বারবার ব্যাহত হয়েছে আইনি জটিলতার কারণে।

পরীক্ষার্থীদের করা মামলাই নিয়োগ পিছিয়ে যাওয়ার প্রধান কারণ বলে বাখ্যা করা হয়েছে সরকারের তরফ থেকে। তবে মুখ্যমন্ত্রী প্রাথমিকে নিয়োগ নিয়ে যে ঘোষণা করেছেন তাতে এইমুহুর্তে খুশি টেট পাস চাকরীপ্রার্থীরা। তবে বিরোধীদের অভিযোগ, একুশের বিধানসভা নির্বাচনের আগে মুখ্যমন্ত্রী আরেকটি তুরুপের তাস খেললেন। পুরোটাই যে জনমোহিনী প্রক্রিয়ার নামান্তর সে ব্যাপারে সন্দেহ নেই কারোর। তবে মুখ্যমন্ত্রীর শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে বড়োসড়ো ঘোষণা একুশের বিধানসভা নির্বাচনে ভোট বাক্স কোন বড় প্রভাব ফেলে কিনা, সে দিকে কিন্তু নজর থাকবে সবার।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!