এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > রাজ্যে এসে জোটের প্রচার সারলেন হেভিওয়েট কেন্দ্রীয় কংগ্রেস নেতা, তীব্র আক্রমণ বিজেপিকে

রাজ্যে এসে জোটের প্রচার সারলেন হেভিওয়েট কেন্দ্রীয় কংগ্রেস নেতা, তীব্র আক্রমণ বিজেপিকে



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – বেশ কিছুদিন যাবৎ জলঘোলা হচ্ছিল এ রাজ্যে সংযক্ত মোর্চার ভোটের প্রচারে কংগ্রেসের কোন হেভিওয়েট কেন্দ্রীয় নেতাদের দেখা না পাওয়া নিয়ে। মূলত অভিযোগের সুর তীব্র হয়েছিল যখন আসামের ভোটে বিজেপির বিরুদ্ধে কংগ্রেসের প্রচারে রাহুল গান্ধী এবং প্রিয়াংকা গান্ধীকে পালা করে দেখা গেল। সমস্ত অভিযোগকে একপাশে সরিয়ে রেখে রাহুল গান্ধী প্রচার সারলেন এই রাজ্যে এসে। 

এদিন কেন্দ্রীয় কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী গোয়ালপোখড়ের মাঠে ভাষণ দিলেন। দেখা গেছে তৃণমূল-বিজেপির লড়াই এর মাঝে সংযুক্ত মোর্চার সভাতেও ভালোই লোক জড়ো হয়েছে। তবে এই রাজ্যে এসেও রাহুল গান্ধী কিন্তু তাঁর আক্রমণের নিশানায় রাখলেন শুরু থেকেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে।

তবে তিনি রাজ্যের তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেও আক্রমণ করেছেন। কিন্তু সেক্ষেত্রে আক্রমণের ঝাঁজ ছিল অনেক হালকা। প্রথম থেকেই রাজ্যের সংযুক্ত মোর্চা অর্থাৎ বাম-কংগ্রেস ও সিদ্দিকীর জোট তৃণমূল এবং বিজেপিকে একাসনে বসিয়ে আক্রমণ চালিয়ে গেছে, দাবী করে চলেছে দিদি-মোদী আঁতাতের।

 কিন্তু রাহুল গান্ধী সেই রাস্তায় হাঁটলেন না। শুধুমাত্র বিজেপির সঙ্গে জোট প্রসঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে রাহুল গান্ধী সামান্য খোঁচা দিয়ে বললেন, তৃণমূলের সঙ্গে বিজেপির লড়াই শুধুমাত্র রাজনৈতিক। কিন্তু কংগ্রেসের সঙ্গে বিজেপির লড়াই একদিকে রাজনৈতিক, অন্যদিকে আদর্শগত।

এদিন সভামঞ্চ থেকে রাহুল গান্ধী বিজেপির বিরুদ্ধে কখনো নোটবন্দি, কখনো জিএসটি, কখনো করোনা, কখনো লকডাউন, কখনো বিভাজন আবার কখনো আগ্রাসনের অভিযোগ করে তুলোধোনা করলেন। তৃণমূল নেত্রীর মতোই রাহুল গান্ধীও এদিন অভিযোগ করলেন বিজেপি ভোটে জেতার জন্য দাংগা বাধায়।সোনার বাংলা গড়ার নামে বিজেপির পক্ষ থেকে বাংলার সংস্কৃতি, বাংলার ভাষার ওপর আক্রমণ চালানো হবে। বাংলার মানুষের কাছে রাহুল গান্ধী আবেদন করলেন বিজেপিকে আটকানোর। সেক্ষেত্রে তিনি জোট প্রার্থীকে ভোট দিয়ে বাংলা বাঁচানোর আবেদন করে গেলেন বাংলার মানুষের কাছে।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

অন্যদিকে কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী বিজেপিকে চরম আক্রমণ করলেও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কথা যখন ওঠে, তখন তিনি শুধুমাত্র মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে রাজ্যের উন্নয়ন নিয়ে কিছুটা খোঁচা দেন। পাশাপাশি তৃণমূল নেত্রীর বিরুদ্ধে রোজগার এবং শিক্ষা নিয়ে তীব্র কটাক্ষ করেন রাহুল গান্ধী। 

বিশেষজ্ঞদের একাংশের মতে, আগামী দিনের জন্য রাহুল গান্ধী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কিন্তু ইঙ্গিত দিয়ে গেলেন। কিছুদিন আগেই অবশ্য এ রাজ্যের প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরীও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ইঙ্গিত দিয়েছিলেন ভোটের পরে সমর্থন করার। যদিও পরে তিনি তা অস্বীকার করেন।

অন্যদিকে বামেরা প্রথম থেকেই তৃণমূল নেত্রীকে সমর্থন করার কথা নাকচ করে গেছেন। সুতরাং এই পরিস্থিতিতে রাহুল গান্ধীর রাজ্যে এসে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে যথেষ্ট নরম মনোভাব কিন্তু তাৎপর্যপূর্ণ। সম্প্রতি মমতা ব্যানার্জ্জী যখন সমস্ত অবিজেপি দলকে একজোট হওয়ার আবেদন জানিয়ে চিঠি দিয়েছেন। এবং সেই চিঠি সনিয়া গান্ধীও পেয়েছেন। এবং মমতা ব্যানার্জ্জীর সঙ্গে তিনি যে একমত সেটাও জানিয়েছেন। অতএব আগামীদিনে কোন নতুন মোড় আসবে রাজনীতির প্রেক্ষাপটে সেদিকেই নজর সবার।

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!