এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > রাজ্য প্রশাসনকে চাপে ফেলে বিস্ফোরক অভিযোগ রাজ্যপাল জগদীপ ধনকরের, জল্পনা তুঙ্গে

রাজ্য প্রশাসনকে চাপে ফেলে বিস্ফোরক অভিযোগ রাজ্যপাল জগদীপ ধনকরের, জল্পনা তুঙ্গে



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – বরাবরই রাজ্যপাল জগদীপ ধনকরের সঙ্গে রাজ্য প্রশাসনের সংঘাত দেখেছে রাজ্য। রাজ্যপাল জগদীপ ধনকর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিশানায় রেখে বরাবর রাজ্য প্রশাসনকে আক্রমণ করেছেন। আর আবারও নতুন করে রাজ্য প্রশাসনের কার্যকলাপে প্রশ্ন তুললেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকর। সম্প্রতি রাজ্যের ডিজি পদে ফিরে এসেছেন বীরেন্দ্র। আর তাই নিয়ে যাবতীয় আপত্তি রাজ্যপাল ধনকরের। তাঁর দাবী, রাজ্য পুলিশের ডিজি নিয়োগের পদ্ধতিতে যথেষ্ট ত্রুটি রয়েছে। আর সে কারণেই তিনি রিপোর্ট চেয়ে পাঠিয়েছেন রাজ্য সরকারের কাছে।

এদিন রাজ্যপাল একাধিক টুইট করেন, যেখানে ডিজির নিয়োগ পদ্ধতি নিয়ে যাবতীয় আইন রাজ্যপাল তুলে ধরেছেন সর্বসমক্ষে। স্বাভাবিকভাবেই রাজ্যপালের এই পদক্ষেপ আবারও রাজ্য প্রশাসনের সঙ্গে তাঁর সংঘাত প্রকাশ্যে এনেছে। রাজ্যপাল জগদীপ ধনকর দাবি করেছেন, 2006 সালে সুপ্রিম কোর্ট একটি পর্যবেক্ষণ নিয়ে আসে। যেখানে বলা হয়, রাজ্যের ডিজিপির অবসর গ্রহণের তিনমাস আগে কেন্দ্রকে জানাতে হবে। তারপর ইউপিএসসি প্যানেল থেকে নতুন কাউকে নিয়োগ করা হবে। কিন্তু রাজ্যপাল অভিযোগ করেছেন, ডিজি বীরেন্দ্রর নিয়োগ সেই নিয়ম মেনে হয়নি। আর সেই নিয়েই সরকারি রিপোর্ট তলব করলেন রাজ্যপাল।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

প্রসঙ্গত, বরাবরই রাজ্য পুলিশের ডিজি বীরেন্দ্র ছিলেন। কিন্তু ভোটের সময় নির্বাচন কমিশনের নির্দেশে তাঁকে অন্য দায়িত্বে পাঠানো হয়। ভোট মিটে যাওয়ার পর বর্তমান সরকার ক্ষমতায় এসে তাঁকে আবার ফিরিয়ে আনে পূর্বতন পদে। রাজ্যপালের দাবি, ডিজি পদে বীরেন্দ্রকে নিয়োগ করা হলেও সুপ্রিমকোর্টের নিয়ম অমান্য করা হয়েছে সেক্ষেত্রে। এর আগেও ডিজি বীরেন্দ্রকে নিয়ে একাধিক প্রশ্ন তুলেছিলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকর। সেসময় ডিজিকে রাজভবনেও ডেকে পাঠিয়েছিলেন রাজ্যপাল। যদিও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সেসময় সরব হন রাজ্যপালের বিরুদ্ধে। স্পষ্ট ভাষায় জানান, রাজ্যপাল রাজ্যের পুলিশ প্রশাসনকে অপমান করছেন।

আবারও রাজ্যপাল সেই ডিজি প্রসঙ্গ টেনে এনে কার্যত বর্তমান রাজ্য সরকারকে চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি ফেললেন বলে মনে করা হচ্ছে। পাশাপাশি এই ঘটনা যে রাজ্যপালের সঙ্গে রাজ্য সরকারের সংঘাত নতুন করে আবার তৈরি করবে, তা আর বলার অপেক্ষা রাখেনা। তবে রাজ্যপালের অভিযোগ নিয়ে এখনো পর্যন্ত কোনো প্রতিক্রিয়া দেয়নি রাজ্য সরকার। পাশাপাশি তৃণমূলের বিভিন্ন নেতারা রাজ্যপালকে একের পর এক আক্রমণ করে চলে প্রায়শই। স্বাভাবিকভাবেই রাজ্যপালের অভিযোগ এবং জবাব তলব আবার বিতর্কের সূত্রপাত করবে বলে নিশ্চিত বিশেষজ্ঞরা। আর এই কারণেই তৃণমূল নেতাদের আক্রমণ রাজ্যপালের প্রতি আরো বাড়বে বলে মনে করা হচ্ছে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!