এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > রাজনীতির সেই পথেই এবার হাঁটব যে পথে গেলে আমাকে আর হোঁচট খেতে হবে না, বড় ঘোষণা শুভেন্দুর

রাজনীতির সেই পথেই এবার হাঁটব যে পথে গেলে আমাকে আর হোঁচট খেতে হবে না, বড় ঘোষণা শুভেন্দুর



আপনাদের সুবিধার্থে খবরের শেষে বিধানসভা ২০২১ উপলক্ষে আমাদের করা সর্বশেষ সমীক্ষার প্রতিটির লিঙ্ক দেওয়া আছে।

আপনার মতামত জানান -

প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – মন্ত্রী পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার পর শুভেন্দু অধিকারী কী করবেন, এখন সেটাই সবথেকে বড় প্রশ্ন হয়ে দাঁড়িয়েছে রাজনৈতিক মহলের কাছে। দলত্যাগ করবেন, নাকি দলে থেকেই নতুন কোনো সিদ্ধান্ত নেবেন, তা নিয়ে জল্পনার শেষ নেই। বর্তমানে শুভেন্দু অধিকারী নানা অরাজনৈতিক সভা করলে সেই সভা থেকে তিনি তাঁর রাজনৈতিক মতামত এবং সিদ্ধান্ত পোষণ করবেন বলে মনে করা হয়েছিল।

কিন্তু সেরকম কিছুই করতে দেখা যায়নি তৃণমূল কংগ্রেসের শীর্ষ নেতাকে। এখনও পর্যন্ত নন্দীগ্রামের বিধায়ক তিনি। এছাড়াও তৃণমূল কংগ্রেসের নীতি-নির্ধারণ কমিটির সদস্য। আর এমত পরিস্থিতিতে যখন শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়ে জল্পনা ক্রমশ বাড়তে শুরু করেছে, ঠিক তখনই নিজের মতামত ব্যক্ত করলেন তৃণমূল কংগ্রেসের হেভিওয়েট নেতা।

সূত্রের খবর, সোমবার নন্দীগ্রামের মাটিতে দাঁড়িয়ে বেশকিছু বার্তা দিতে দেখা যায় শাসকদলের বিধায়ককে। যেখানে শুভেন্দু অধিকারী বলেন, “কাউকে নিরাশ করব না, সব কথা বলব। রাজনীতির সেই পথেই এবার হাঁটবো যে পথে গেলে আমাকে আর হোঁচট খেতে হবে না। কিন্তু আমি যেহেতু রাজনীতির মঞ্চে আসিনি, তাই আমি কিছু বলব না। নন্দীগ্রামের পবিত্র মঞ্চ রাজনীতির জায়গা নয়। এখান থেকে আমি কোনো রাজনৈতিক বার্তা দেব না।”

স্বভাবতই মন্ত্রী পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার পর শুভেন্দু অধিকারীর এই ধরনের বক্তব্যকে কেন্দ্র করে এবার রাজনৈতিক মহলে ব্যাপক চর্চা শুরু হয়েছে। অনেকে বলতে শুরু করেছেন, তাহলে কি শুভেন্দু অধিকারী এই মন্তব্যের মধ্যে দিয়ে বুঝিয়ে দিতে চাইলেন যে, তিনি বর্তমানে যে পথ দিয়ে চলছেন, সেই পথের রাস্তা তার জন্য খুব একটা সুখকর নয়। তাই এবার থেকে তিনি যে পথে হাঁটবেন, সেই পথে যাতে হোঁচট খেতে না হয়, তার জন্য আগাম বার্তা দিয়ে রাখলেন তৃনমূল কংগ্রেসের এই নেতা!

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

একাংশ কার্যত নিশ্চিত যে, শুভেন্দু অধিকারী এই মন্তব্যের মধ্যে দিয়ে বুঝিয়ে দিতে চাইলেন, তিনি আগামীদিনে শিবির পরিবর্তন করতে চলেছেন। কেননা যদি তিনি তৃণমূল কংগ্রেসে থেকে স্বাচ্ছন্দ বোধ করতেন, তাহলে মন্ত্রী পদ থেকে ইস্তফা দিতেন না। আর মন্ত্রী পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার পর যখন তার রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ নিয়ে জল্পনা তৈরি হয়েছে, তখন হোঁচট খাওয়ার কথা কেন তার মুখে শোনা গেল, তা নিয়ে জল্পনা ক্রমশ ঊর্ধ্বমুখী। যার জেরে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, শুভেন্দু অধিকারীর এখন তৃণমূল কংগ্রেস ত্যাগ করা শুধু সময়ের অপেক্ষা। যদিও বা এই ব্যাপারে শুভেন্দুবাবু বা তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

বিশ্লেষকেরা বলছেন, শুভেন্দু অধিকারী এখনও পর্যন্ত তৃণমূল কংগ্রেসেই রয়েছেন। তবে নন্দীগ্রামের মঞ্চ থেকে তিনি কোনো রাজনৈতিক কথা না বলে বরঞ্চ পরোক্ষে বুঝিয়ে দিতে চাইলেন, এবার তিনি বড় কোনো সিদ্ধান্ত নিতে চলেছেন। তাই কাউকে তিনি নিরাশ করবেন না বলে বার্তা দেওয়ার চেষ্টা করলেন তৃণমূল কংগ্রেসের এই শীর্ষ নেতা।

কিন্তু তার পরবর্তী ভবিষ্যৎ কী, কী সিদ্ধান্ত নেবেন তিনি, এখন তা নিয়েই জোর আলোচনা তৈরি হয়েছে বাংলার রাজনৈতিক মহলে। সবমিলিয়ে নন্দীগ্রামের মঞ্চ থেকে শুভেন্দু অধিকারী তাৎপর্যপূর্ণ মন্তব্য আগামী দিনে তার ভবিষ্যত পন্থার সঙ্গে মেলে কিনা, কি সিদ্ধান্ত নেন তৃণমূল কংগ্রেসের এই শীর্ষনেতা! সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

একনজরে দেখে নিন আমাদের সর্বশেষ বিধানসভা ২০২১ ওপিনিয়ন পোল –

# মুর্শিদাবাদ জেলার ওপিনিয়ন পোল – দ্বিতীয় পর্ব – 

# মুর্শিদাবাদ জেলার ওপিনিয়ন পোল – প্রথম পর্ব – 

# মালদহ জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# উত্তর দিনাজপুরে জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# জলপাইগুড়ি ও কালিম্পঙ জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# আলিপুরদুয়ার ও দার্জিলিং জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# কুচবিহার জেলার ওপিনিয়ন পোল –

আপনার মতামত জানান -
আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!