এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > রাজ্যে এসেই বড়সড় পদক্ষেপ কেন্দ্রীয় বাহিনী, জনতার মনে মিলল স্বস্তি!

রাজ্যে এসেই বড়সড় পদক্ষেপ কেন্দ্রীয় বাহিনী, জনতার মনে মিলল স্বস্তি!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – নির্বাচন ঘোষণা হওয়ার অনেক আগে থেকেই বিরোধীদের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছিল, রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি ভালো নয়। কেন্দ্রীয় বাহিনীর নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তার মধ্যে দিয়েই যেন রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত করা হয়। সেই মত করেই নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে নির্ঘন্ট ঘোষণা হওয়ার পরেই এবার বাংলায় চলে এল কেন্দ্রীয় বাহিনী। ইতিমধ্যেই শান্তিপূর্ণভাবে ভোট করাতে বিপুলসংখ্যক কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

আর সেই মত বিভিন্ন জেলায় কেন্দ্রীয় বাহিনীর পক্ষ থেকে শুরু করা হয়েছে রুটমার্চ। আর বুধবার সকালে বহরমপুরে সেই রুটমার্চ করতে দেখা গেল কেন্দ্রীয় বাহিনীকে। মূলত সাধারণ মানুষের মনে ভোটের সময় সন্ত্রাস নিয়ে যাতে কোনো ভয়-ভীতি তৈরি না হয়, তার জন্যই কেন্দ্রীয় বাহিনীর পক্ষ থেকে এই ধরনের পদক্ষেপ নেওয়া হল বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

সূত্রের খবর, আজ বহরমপুরের চুয়াপুরেরর বিবেকানন্দ মোড় থেকে এই রুটমার্চ শুরু হয়। মুর্শিদাবাদের জেলাশাসক এবং জেলা পুলিশ সুপারের উপস্থিতিতে এই রুটমার্চ করতে দেখা যায় কেন্দ্রীয় বাহিনীকে। তবে শুধু রুটমার্চ করা নয়, সাধারণ মানুষের সঙ্গে কথা বলতেও দেখা যায় পুলিশ প্রশাসনের কর্তা ব্যক্তিদের। শহরের বিভিন্ন স্পর্শকাতর বুথ পরিদর্শন করে এই কেন্দ্রীয় বাহিনী।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

স্বাভাবিকভাবেই বহরমপুরে পা রাখার সাথে সাথে যেভাবে মানুষের মনে আস্থা ফেরাতে কেন্দ্রীয় বাহিনীর পক্ষ থেকে জনসংযোগ এবং ভোটারদের সঙ্গে কথা বলা হচ্ছে, তাতে নির্বাচন যে এবার অত্যন্ত কড়াকড়ি এবং শান্তিপূর্ণ হতে চলেছে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বাংলায় পঞ্চায়েত হোক বা পৌরসভা, লোকসভা হোক বা বিধানসভা, বিভিন্ন নির্বাচনে সন্ত্রাস হয় বলে অভিযোগ করে বিরোধীরা। এক্ষেত্রে বীরভূম থেকে শুরু করে মুর্শিদাবাদের বিভিন্ন এলাকাকে মাঝে মধ্যেই এই ভোটের সময় উত্তপ্ত হতে দেখা গেছে।

তাই নির্বাচনের আগে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি যাতে কোনোভাবেই বিনষ্ট না হয়, তার জন্য এখন থেকেই কমিশনের পক্ষ থেকে বাংলায় কেন্দ্রীয় বাহিনী পাঠিয়ে দেওয়া হচ্ছে। আর সেই কেন্দ্রীয় বাহিনী রুটমার্চ করার পাশাপাশি যেভাবে সাধারণ মানুষের মনে আস্থা যোগাতে পদক্ষেপ গ্রহণ করল, তা নিঃসন্দেহে নজিরবিহীন বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। সব মিলিয়ে নির্বাচনকে উৎসবে পরিণত করতে এবং মানুষকে নিরাপত্তা দিতে কেন্দ্রীয় বাহিনীর এই পদক্ষেপকে স্বাগত জানাচ্ছেন মুর্শিদাবাদের মানুষ।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!