এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > রাজ্যের অস্বস্তি বাড়িয়ে পিএসসির দুর্নীতি নিয়ে স্বয়ং রাজ্যপালের কাছে বিচারবিভাগীয় তদন্তরে দাবি

রাজ্যের অস্বস্তি বাড়িয়ে পিএসসির দুর্নীতি নিয়ে স্বয়ং রাজ্যপালের কাছে বিচারবিভাগীয় তদন্তরে দাবি



রাজ্যে শিক্ষাঙ্গনে তোলাবাজির অভিযোগের পর এবার পাবলিক সার্ভিস কমিশন বা পিএসসির নিয়োগ পরীক্ষায় অস্বচ্ছতার অভিযোগ তুলে বিভিন্ন সংগঠন বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেছেন। অভিযোগ, প্রার্থীদের ইন্টারভিউয়ের এক সপ্তাহ আগেই কমিশনের কর্তাদের হাতে সেই সদস্যদের বিস্তারিত বিবরন তুলে দিতে হচ্ছে।

কিন্তু কেন এরুপ অনিয়ম চলছে সর্বত্র। এবার পিএসসি কমিশনের বিরুদ্ধে চাকরিপ্রার্থীদের সেই অভিযোগকে ঢাল করে পথে নেমে পড়ল বামফ্রন্ট। মঙ্গলবার রাজভবনে গিয়ে রাজ্যপালের কাছে ডব্লুবিসিএসের মত পিএসসি কমিশনেও বিচারবিভাগীয় তদন্তের দাবি জানান বিধানসভার বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তী।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

শুধু এখানেই শেষ নয় অভিযোগের স্বপক্ষে পিএসসি কমিশন এবং সরকারের বিরুদ্ধে রাজ্যপালের কাছে একটি নথিও পেশ করেন এই বাম নেতা। এদিন সুজন চক্রবর্তী বলেন, “তৃনমূলের আমলে টেটে সাদা খাতা জমা দিয়ে চাকরি, শূন্যপদ থাকা সত্তেও গত ছয় বছরে এসএসসির কোনো চাকরির পরীক্ষা না হওয়া এমনকী এবারে পিএসসির মত সাংবিধানিক সংস্থার গরিমাও জলাঞ্জলি দেওয়া হয়েছে।”

সাথে সাথে চেয়ারম্যান পদে অভিজ্ঞ আমলাদের না বসিয়ে অনভিজ্ঞ লোকদের বসানো নিয়েও রাজ্যের বিরুদ্ধে তোপ দাগেন বিধানসভার এই বাম পরিষদীয় দলনেতা। অনেকেরই অভিযোগ যে, শূন্য পাওয়া প্রার্থীকে 162 নম্বর পাইয়ে দেওয়া এবং 18 পাওয়া প্রার্থীকে 168 নম্বর পাইয়ে দেওয়া হয়েছে। এদিন রাজ্যপালের কাছে সেই অভিযোগও করেন সুজন চক্রবর্তী।

জানা গেছে, সমস্ত নথি দেখে রাজভবনের তরফ থেকে সরকারের কাছে এব্যাপারে জানতে চাওয়া হবে বলেও বিধানসভার বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তীকে আশ্বাস দিয়েছেন রাজ্যপাল কেশথীনাথ ত্রিপাঠী। সব মিলিয়ে রাজ্য সরকারকে চরম ভাবে বিপাকে ফেলে পিএসসি কমিশনের দুর্নিতী নিয়ে সুজন চক্রবর্তীর বিচারবিভাগীয় তদন্তের দাবিতে এখন রাজভবনের তরফ থেকে আরও কঠিন কোনো নির্দেশ পায় কি না রাজ্য! সেদিকেই তাকিয়ে চাকরিপ্রার্থীরাও।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!