এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > ফের রবীন্দ্রনাথকে ‘অসম্মান’ বিজেপি শাসিত রাজ্যে, তীব্র হচ্ছে ক্ষোভ

ফের রবীন্দ্রনাথকে ‘অসম্মান’ বিজেপি শাসিত রাজ্যে, তীব্র হচ্ছে ক্ষোভ



আসামে বিজেপি ক্ষমতায় আসার পর গতবছর একপ্রস্থ বিতর্ক হয়েছিল রবীন্দ্র-জয়ন্তী পালন নিয়ে, এমনকি স্কুলগুলিতে রবীন্দ্র-জয়ন্তী পালন করা হলে ‘শাস্তির’ মুখে পড়তে হতে পারে এমন নির্দেশিকা নিয়েও তীব্র অসন্তোষ ছড়ায়। শেষমুহূর্তে নিজে রবীন্দ্র-জয়ন্তী পালন করে পরিস্থিতি সামাল দেন আসামের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়াল। এ বছর আবার নতুন করে রবীন্দ্র-জয়ন্তী পালন নিয়ে বিতর্ক শুরু হল সেখানে আর যা নিয়ে শুরু হয়েছে তীব্র বিতর্ক ও অসন্তোষ। সূত্রের খবর, আসামের অ্যাকাডেমিক ক্যালেন্ডারে এ বছরেও ঠাঁই হয়নি কবিগুরুর। বিশ্বকবির জন্মদিন উপলক্ষে আগামী ২৫ বৈশাখ ছুটি তো নয়ই এমনকি রবীন্দ্র-জয়ন্তী পালন নিয়েও কোনো নির্দেশিকা দেয় নি আসাম সরকার।

প্রসঙ্গত, আগে বরাকের জন্য পৃথক অ্যাকাডেমিক ক্যালেন্ডার তৈরি হতো, কিন্তু ক্ষমতায় আসার পর গত বছর থেকে এক রাজ্য, এক ক্যালেন্ডার তৈরি করা শুরু করে বিজেপি সরকার। কিন্তু গতবারের মত এবারেও সেখানে ঠাঁই পেলেন না রবি ঠাকুর। যা নিয়ে তীব্র ক্ষোভে ফেটে পড়ছেন বরাক উপত্যকার অধিবাসীরা। সংবাদমাধ্যমে দেওয়া নিজের বিবৃতিতে সারা আসাম উচ্চতর মাধ্যমিক শিক্ষক ও কর্মচারী সংস্থার কাছাড় জেলা কমিটির সম্পাদক কৃষ্ণেন্দু রায় জানিয়েছেন, মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়াল বরাক-ব্রহ্মপুত্র ঐক্যের কথা বলেন। কিন্তু বরাকবাসীর আবেগকে গুরুত্বই দেন না। অন্যদিকে বরাক উপত্যকা বঙ্গ সাহিত্য ও সংস্কৃতি সম্মেলনের বক্তব্য, রবীন্দ্রজয়ন্তী পালনের জন্য বাঙালি বা বরাকের মানুষকে কেনই বা দাবি জানাতে হবে? সব মিলিয়ে বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘অসম্মানে’ রীতিমত ক্ষুব্ধ আসামের বাঙালিরা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!