এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > পুরুলিয়া-ঝাড়গ্রাম-বাঁকুড়া > পুরুলিয়ায় কি থেমে গেল গেরুয়া-ঝড়? বিরোধী-শূন্য করায় অনেকাংশেই সফল শাসকদল

পুরুলিয়ায় কি থেমে গেল গেরুয়া-ঝড়? বিরোধী-শূন্য করায় অনেকাংশেই সফল শাসকদল



এবারের পঞ্চায়েত ভোটে সারা রাজ্যে তৃনমূল নিজেদের দাপট অব্যাহত রাখলেও ব্যাতিক্রম ছিল পুরুলিয়া। সেখানে 20 টি পঞ্চায়েত সমিতির মধ্যে 2 টি দখল করে নেয় বিজেপি। কিন্তু দখল করেও যেন শেষরক্ষা হল না গেরুয়া শিবিরের। এবার সেই বিজেপির হাতছাড়া হয়ে গেল পুরুলিয়ার 2 পঞ্চায়েত সমিতি রঘুনাথপুর 2 এবং এবং বাঘমুন্ডি পঞ্চায়েত সমিতি চলে গেল তৃনমূলের দখলে।

সূত্রের খবর, জেলার মোট 20 টির মধ্যে 15 টিতেই এদিন বোর্ড গঠন ছিল। সেখানে 2টি বিজেপির দখলে গেলেও এদিন সবগুলোতেই তৃনমূল বোর্ড গঠন করে।জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছেপুরুলিয়া জেলার মানবাজার-১, মানবাজার-২, পুঞ্চা, বান্দোয়ান, হুড়া, পুরুলিয়া-১, নিতুড়িয়া, রঘুনাথপুর-১, পুরুলিয়া-২, ঝালদা-১, ঝালদা-২, আড়ষা এবং পাড়ায় ক্ষমতা দখল করে তৃণমূল। অন্যদিকে, রঘুনাথপুর-২ পঞ্চায়েত সমিতি বিজেপি একক ভাবে এবং ফরওয়ার্ড ব্লক, কংগ্রেস ও বিজেপি জোট করে বাঘমুণ্ডি পঞ্চায়েত সমিতি দখল করে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

এব্যাপারে পুরুলিয়ার বিজেপি সভাপতি বিদ্যাসাগর চক্রবর্তী বলেন, “অধিকাংশ জায়গাতেই জোর করে প্রশাসনের সাহায্য নিয়ে বোর্ড গঠন করছে তৃনমূল। কিন্তু সাধারন মানুষ বিজেপির সাথেই আছে।” কিন্তু হঠাৎ এই বোর্ড গঠন স্থগিত কেন? এই প্রসঙ্গে জেলা তৃনমূলের সভাপতি তথা মন্ত্রী শান্তিরাম মাহাতো বলেন, “তৃনমূল কোথাও কোনো জোর করেনি। কিন্তু বিজেপিই ঝাড়খন্ড থেকে লোক এনে পরিস্থিতিকে অশান্তির চেষ্টা করছে।”

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!