এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > শাসকদলের অন্দরে শুরু ‘শুদ্ধিকরণ’, অভিষেকের বৈঠকে ডাক পেলেন না প্রাক্তন সভাধিপতি

শাসকদলের অন্দরে শুরু ‘শুদ্ধিকরণ’, অভিষেকের বৈঠকে ডাক পেলেন না প্রাক্তন সভাধিপতি



পঞ্চায়েত নির্বাচনে রাজ্যজুড়ে ঘাসফুলের দাপটের মাঝেই কয়েকটি জেলায় দুশ্চিন্তা বাড়াচ্ছে বিজেপি। তারমধ্যে অন্যতম বর্তমানে শাসকদলের অঘোষিত দুনম্বর নেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাংগঠনিক দায়িত্ত্বে থাকা পুরুলিয়া জেলা। নির্বাচনের ফল বেরোনোর পর জেলাতে গিয়ে জেলা সভাপতি ও অন্যান্য দলীয় নেতাদের সঙ্গে একান্তে বৈঠক করেন তৃণমূল যুব কংগ্রেস সভাপতি। কিন্তু সেই বৈঠকে ডাক পাননি প্রাক্তন জেলা সভাধিপতি সৃষ্টিধর মাহাতো। শুধু তাই নয়, সৃষ্টিধরবাবুর পুত্র ও বলরামপুর ব্লক সভাপতি সুদীপ মাহাতোকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে স্থানীয় সূত্রের খবর।

এমনিতেই, শাসকদলের অঘোষিত নিয়ম – ভালো কাজের পুরস্কার, কিন্তু ফল ভালো না হলে তিরস্কার। সৃষ্টিধরবাবু নিজে হেরে গেছেন এবারের নির্বাচনে, স্থানীয় মহলে কান পাতলে শোনা যায় – তাঁর হারের পিছনে যতটা না গেরুয়া-হাওয়া কাজ করেছে, তার থেকেও বেশি কাজ করেছে তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা ‘দুর্নীতি’ ও স্বজন-পোষনের অভিযোগ, আর অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের গুরুত্ত্বপূর্ন দলীয় বৈঠকে তিনি ডাক না পাওয়ায় সেই গুঞ্জন অন্য মাত্রা পেয়েছে। খোদ সভাধিপতির বিরুদ্ধে জনমানসে এরকম মনোভাব থাকায় তা সার্বিকভাবে পঞ্চায়েত নির্বাচনে শাসকদলের বিরুদ্ধে গেছে বলেও দাবি নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক স্থানীয় তৃণমূল নেতার। স্থানীয় সূত্রের খবর, দলীয় বৈঠকে বেশ কড়া মেজাজেই ছিলেন ডায়মন্ড-হারবারের সাংসদ। কেন জেলায় আশানুরুপ ফল হল না – সরাসরি জানতে চান জেলার শীর্ষনেতাদের কাছে। সঙ্গে, আগামীদিনে দুর্নীতিগ্রস্থ নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও স্পষ্ট ভাষায় জানিয়েছেন তিনি বলে জানা যাচ্ছে। আর তাই দলের অঘোষিত দুনম্বর নেতার এই বৈঠকের পরে শাস্তির কোপে আপাতত অনেক হেভিওয়েট তৃণমূল নেতাই বলে মনে করছেন স্থানীয় রাজনৈতিক মহল।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!