এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > পুরভোটের প্রাক্কালে ভোটারদের মন জয়ে আবারও একটি নতুন প্রকল্পের ঘোষণা

পুরভোটের প্রাক্কালে ভোটারদের মন জয়ে আবারও একটি নতুন প্রকল্পের ঘোষণা



পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় বিশ্বের দরবারে বিশেষভাবে পরিচিত তাঁর একাধিক জনপ্রিয় প্রকল্পের জন্য। খাদ্যসাথী, সবুজ সাথী, কন্যাশ্রীর মতো একাধিক প্রকল্পে তিনি যথেষ্ট জনপ্রিয়তা লাভ করার পর মঙ্গলবার কালিয়াগঞ্জে আরো একটি প্রকল্পের নাম উল্লেখ করলেন। বেকার ছেলে মেয়েদের জন্য এবার পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আনতে চলেছেন কর্মসাথী প্রকল্প। জানা গেছে, এই প্রকল্পের ফলে রাজ্যের বেকার ছেলে মেয়েরা নতুন ব্যবসা শুরু করার জন্য ঋণ নিতে পারবে রাজ্য সরকারের থেকে। এবং এর ফলে তাঁদের নিজেদের পায়ে দাঁড়ানোর পথ আরো সুগম হবে বলে আশাবাদী মুখ্যমন্ত্রী।

এবার বেকার যুবক যুবতীদের জন‍্য সুখবর। রাজ্য সরকারের এবারের বাজেটে রাজ্যের অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র কর্মসাথী প্রকল্পের ঘোষণা করেছিলেন আগেই। সেই সময় কর্মসাথী প্রকল্পের আওতায় রাজ্যের বেকার যুবক-যুবতীদের সমবায় ব্যাংকের মাধ্যমে ঋণ দান করার কথা বলেছিলেন অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র। আর এদিন উত্তর দিনাজপুরের কালিয়াগঞ্জের জনসভায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় ঘোষণা করলেন, এই প্রকল্পের আওতায় প্রায় এক লাখ ছেলেমেয়েকে ব্যবসায়িক উদ্যোগের জন্য ঋণ দেওয়া হবে প্রায় দু লাখ টাকা। তবে এদিন মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী জানা গেছে, কর্মসাথী প্রকল্পটির জন্য একটি বিশেষ অ্যাপ তৈরি করছে রাজ্য সরকার।

প্রথমত বিডিও অফিসে আবেদন করতে হবে বেকার যুবক-যুবতীদের, তারপর কর্মসাথী প্রকল্পে নাম নথিভুক্তকরণের পর রাজ্য সরকারের তৈরি ওই বিশেষ অ্যাপটির মাধ্যমে টাকা চলে আসবে কর্মসাথী প্রকল্পে আবেদনকারী যুবক-যুবতীদের অ্যাকাউন্টে। সূত্রের খবর, বাজেট অধিবেশনে অর্থমন্ত্রীর ঘোষণা করেছিলেন রাজ্যের বেকার যুবক যুবতীদের কর্মসাথী প্রকল্পের ঋণ সমবায় ব্যাংকের মাধ্যমে দেওয়া হবে। শুধু তাই নয়, এই প্রকল্পের মাধ্যমে প্রতিবছর প্রায় এক লাখ কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি হবে রাজ্যে বলে দাবি করেন অর্থমন্ত্রী। যে কারণে এই প্রকল্পের জন্য 500 কোটি টাকা বরাদ্দের কথা বাজেট অধিবেশনে ঘোষণা করেছিলেন অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র।

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

অন্যদিকে, মুখ্যমন্ত্রী এদিন কালিয়াগঞ্জ এর সভা থেকে রাজ্য সরকারের কর্মসাথী প্রকল্পের টাকা অ্যাপের মাধ্যমে দেওয়ার কারণ হিসেবে জানান, বেকার যুবক-যুবতীদের এই প্রকল্পের টাকা থেকে যাতে কেউ কাটমানি খেতে না পারে সে কারণেই এবার থেকে নতুন ব্যবস্থায় টাকা দেওয়া হবে। সরাসরি না বললেও মুখ্যমন্ত্রীর মন্তব্যের মধ্য দিয়ে এই কথারই আভাস পাওয়া গেছে বলে দাবি রাজনৈতিক মহলের। সূত্রের খবর, পুরভোটের প্রাক্কালে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এহেন কাটমানি রুখে দেওয়ার সাধু প্রচেষ্টার ফলে রাজনৈতিক মহল থেকে যথেষ্ট সাধুবাদ জানানো হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী এই প্রকল্পের মাধ্যমে বেকার যুবক যুবতীদের স্বাবলম্বী করে তোলার পেছনে যথেষ্ট দায়বদ্ধতা পালন করছে বলে দাবি শাসকদলের পক্ষ থেকে।

অন্যদিকে, উত্তর দিনাজপুরে যথেষ্ট শক্তিশালী সংগঠন তৈরি করেছে বিজেপি বলে খবর। ভোটের পরিসংখ্যানেই সেই কথা জানতে পারা যায়। পুরসভা ভোটের আগে তাই এই অঞ্চলের মন কারতে মুখ্যমন্ত্রী যে দরাজহস্ত হবেন তা আর বলার অপেক্ষা রাখেনা বলে দাবি রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের। কিছুদিন আগেই বিধানসভা উপনির্বাচনে এই কালিয়াগঞ্জ থেকে বিপুল ভাবে জয় পেয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। রাজনৈতিক মহলের দাবি, তারই পুরস্কারস্বরূপ কালিয়াগঞ্জ এসে এবার নতুন প্রকল্পের টাকা দেবার ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী তথা দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আপাতত বেকার যুবক-যুবতীদের এই প্রকল্পের ফলে কোন বিশেষ সুবিধা হচ্ছে কি না, সে দিকে নজর রাখবে ওয়াকিবহাল মহল।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!