এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > বিজেপি > পুজো মিটতেই বাংলায় গেরুয়া ঝড় প্রবল করতে একে একে আসতে চলেছেন নাড্ডা- শাহ থেকে একাধিক হেভিওয়েট?

পুজো মিটতেই বাংলায় গেরুয়া ঝড় প্রবল করতে একে একে আসতে চলেছেন নাড্ডা- শাহ থেকে একাধিক হেভিওয়েট?



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – পুজোর আগেই উত্তরবঙ্গ সফরে এসেছিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা। আর এবার দুর্গাপূজো মিটতে না মিটতেই আবার বাংলায় পা রাখতে চলেছেন তিনি। সূত্রের খবর, সমস্ত কিছু ঠিকঠাক থাকলে নভেম্বর মাসের শুরুর দিকেই বাংলায় আসতে চলেছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি। জানা গেছে, এক্ষেত্রে বিভিন্ন জেলা ধরে ধরে বৈঠক করার কথা রয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টির। যেখানে প্রথম বৈঠক হবে মেদিনীপুরে। অংশগ্রহণ করবেন দুই মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম, হুগলি এবং হাওড়ার জেলা নেতৃত্বরা। অন্যদিকে বর্ধমান শহরে হওয়া দ্বিতীয় বৈঠকে থাকবে পূর্ব বর্ধমান, আসানসোল, বীরভূম, পুরুলিয়া এবং বাঁকুড়া জেলা।

বিশেষজ্ঞদের একাংশ বলছেন, বঙ্গ বিজেপি নেতৃত্বের মধ্যে তেমন কোনো গ্রহণযোগ্য মুখ নেই, যারা বাংলায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে সেভাবে প্রতিবাদ করতে পারেন। আর সেটা উপলব্ধি করেই কেন্দ্রীয় বিজেপি নেতৃত্ব এবার নিজের হাতে বাংলার রাশ নিতে চাইছে। আর তাই শারদোৎসব মিটতে না মিটতেই আবার বাংলায় আসার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি। একাংশ বলছেন, যেনতেন প্রকারেণ এবার বিজেপির রাজ্য থেকে শুরু করে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব চাইছেন, বাংলায় পরিবর্তন আনতে। আর তাই তৃণমূল সরকারের ঘুম উড়িয়ে দিতে বিন্দুমাত্র সময় নষ্ট না করে এবার বাংলার দিকে প্রধানভাবে নজর দিতে শুরু করেছেন বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

ইতিমধ্যেই পুজো শেষ হতে না হতেই বুধবার রাজ্য বিজেপির সংগঠনে ব্যাপক রদবদল করা হয়েছে। যেখানে সাধারণ সম্পাদক পদ থেকে সুব্রত চট্টোপাধ্যায়কে সরিয়ে দিয়ে সঙ্গে ঘনিষ্ঠ অমিতাভ চক্রবর্তীকে সেই জায়গা দেওয়া হয়েছে। অনেকে বলছেন, এই সুব্রতবাবু বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের ঘনিষ্ঠ হলেও, তাকে নিয়ে দলের রাজ্য স্তরের অনেক শীর্ষ নেতা নেত্রীর আপত্তি ছিল। তাই বিধানসভা নির্বাচনের আগে যাতে সেই আপত্তিকে কেন্দ্র করে গোষ্ঠী কোন্দল তৈরি না হয়, তার জন্য বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব সেই জায়গায় সঙ্গে ঘনিষ্ঠ অমিতাভ চক্রবর্তীকে বসিয়ে দিল।

আর এবার সংগঠনের রদবদল ঘটানোর পর অমিত শাহ থেকে শুরু করে জেপি নাড্ডা সকলেই বাংলার দিকে বাড়তি নজর দিয়ে বঙ্গ সফরের প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছেন। কিন্তু কবে আসছেন এই কেন্দ্রীয় হেভিওয়েট নেতারা? এদিন এই প্রসঙ্গে বিজেপির রাজ্যের সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু বলেন, “নভেম্বর মাসে বাংলায় আসতে পারেন অমিত শাহ। তবে সেই সফরের দিনক্ষণ এখনও নির্দিষ্ট হয়নি।” সব মিলিয়ে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতাদের লাগাতার বাংলা সফর পরিষ্কার করে দিচ্ছে যে, আগামীদিনে বাংলা বিজেপির পাখির চোখ হতে চলেছে। সব মিলিয়ে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব বাংলায় এসে দলের সংগঠনকে শক্তিশালী করতে কি পদক্ষেপ গ্রহণ করেন এবং এর ফলে তৃণমূল কতটা চাপে পড়ে, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!