এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > প্রতিবন্ধী যুবককে নিগ্রহের অভিযোগ প্রভাবশালী তৃণমূল নেত্রীর বিরুদ্ধে! অস্বস্তি বাড়ছে ঘাসফুলে

প্রতিবন্ধী যুবককে নিগ্রহের অভিযোগ প্রভাবশালী তৃণমূল নেত্রীর বিরুদ্ধে! অস্বস্তি বাড়ছে ঘাসফুলে



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – পশ্চিমবঙ্গে আগামী বছরের বিধানসভা নির্বাচনের পদধ্বনি যখন স্পষ্ট হতে শুরু করেছে, ঠিক সেই আবহেই মুখ্যমন্ত্রী তার দলের সমস্ত নেতাকর্মী তথা সদস্যদের বিশেষ ভাবে নির্দেশ দিয়েছেন, রাজ্যবাসীর প্রতি আরও মানবিক হতে, বিপদে-আপদে রাজ্যবাসীর পাশে দাঁড়াতে, সেইসঙ্গে নিজেদের শরীর থেকে দূর্নীতি-অনিয়ম ইত্যাদির কালিমা সম্পূর্ণভাবে ধুয়ে ফেলতে।

কিন্তু নিন্দুকেরা বলে দীর্ঘসময় ধরে ক্ষমতার অলিন্দে নিশ্চিন্ত জীবন যাপন করে, শাসক দলের বহু নেতাকর্মী হয়ে উঠেছেন লোভী, দুর্নীতিপরায়ণ, মানুষের সঙ্গে সম্পর্কহীন, সেইসঙ্গে প্রতিহিংসাপরায়ণ। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ হয়তো তাদের কানে পৌঁছায় না।

প্রসঙ্গত মালদহ জেলার তৃণমূল দলের একাধিক নেতা-কর্মীদের নামে বারবার অভিযোগ বিভিন্ন অভিযোগ উঠেছে। একমাস আগেই নিজের এলাকার এক যুবতীকে কান ধরে উঠবস করিয়েছেন এক তৃণমূল কাউন্সিলার, তাঁর বিরুদ্ধে নিষ্কর্মতার অভিযোগ আনার জন্য। অল্প কিছুদিন আগেই মালদা জেলার ইংলিশ বাজার পৌরসভার প্রাক্তন তৃণমূল কাউন্সিলরের স্বামীর বিরুদ্ধে জনৈক শিক্ষিকার বাড়ি দখলের অপচেষ্টার বিরাট অভিযোগ উঠেছিল।

এরপর তৃণমূলর বেশকিছু কাউন্সিলর ও তাদের আত্মীয়-পরিজনদের বিরুদ্ধে একাধিকবার মালদার বিভিন্ন স্থানে অবৈধ দখলদাড়ির অভিযোগ শোনা গেছিল। আর এবার অভিযোগ উঠল এক প্রতিবন্ধি যুবককে ব্যাপকভাবে নিগ্রহ করেছেন জনৈক প্রভাবশালী তৃণমূল নেত্রী।মালদহ জেলার ইংলিশ বাজার পুরসভার জনৈক প্রাক্তন তৃণমূল কংগ্রেস কাউন্সিলর কাকলি চৌধুরীর বিরুদ্ধে জনৈক প্রতিবন্ধী যুবক মৃত্যুঞ্জয় সরকারকে নিগ্রহের অভিযোগ উঠল।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

মালদহ জেলার ইংলিশবাজার পুরসভার অন্তর্গত ৮ নম্বর ওয়ার্ডের বালুচর এলাকার বাসিন্দা প্রতিবন্ধী যুবক মৃত্যুঞ্জয় সরকার প্রাক্তন কাউন্সিলর কাকলি চৌধুরী বিরুদ্ধে তাকে অত্যাচারের অভিযোগ জানিয়ে বলেছেন, ” আমি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ভক্ত। বিষয়টি সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ করার পর প্রাক্তন তৃণমূল কাউন্সিলার এবং তাঁর অনুগামীরা আমাকে নানাভাবে হেনস্থা করতে শুরু করেন। আমাকে বাড়ি থেকে বের করে তালা মেরে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়। পুলিসকে সব কথা জানিয়ে এখন আমি বাড়িতেই রয়েছি। হবিবপুরে আমার কিছু জমিজমা রয়েছে। তাও কাকলীদেবীর অনুগামীরা দখল করে নিতে চাইছে। আমি প্রধানমন্ত্রীর সমর্থক হলেও বিজেপি করি না। ফলে কেন যে ওই প্রাক্তন কাউন্সিলার আমার উপর চটেছেন তা বুঝতে পারছি না। ”

তবে তৃনমূলের প্রাক্তন কাউন্সিলর কাকলি দেবী অবশ্য নিজের বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। এ প্রসঙ্গে তাকে বলতে শোনা গেছে, ” রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে অভিযোগ করা হচ্ছে। আমি এই ধরনের ঘটনার সঙ্গে যুক্ত নই। এই ধরনের ঘটনাকে প্রশ্রয় দিই না।”

তবে শঙ্কিত মৃত্যুঞ্জয় সরকার মালদার পুলিশ সুপারের দ্বারস্থ হয়ে নিজের নিরাপত্তার আর্জি জানালে ও সেইসঙ্গে কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করলে পুলিশ তাঁকে উপযুক্ত সাহায্যের ও নিরাপত্তার আশ্বাস দিয়েছে। সেইসঙ্গে সম্পূর্ণ বিষয়টির উপযুক্ত তদন্ত করা হবে বলে কথা দিয়েছে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!