এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > আন্দোলনের পথ থেকে সরে আসতেই বড় ‘পুরস্কার’ পেতে চলেছেন পার্শ্বশিক্ষকরা

আন্দোলনের পথ থেকে সরে আসতেই বড় ‘পুরস্কার’ পেতে চলেছেন পার্শ্বশিক্ষকরা



সরকারের তীব্র উদাসীনতা, বঞ্চনা,বেতন বৃদ্ধি সহ একগুচ্ছ দাবী নিয়ে দফায় দফায় রাজ্যসরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ আন্দোলন করতে দেখা গেছে বঙ্গের পার্শ্ব শিক্ষকদের। এ রাজ্যে প্রায় ৪৬ হাজার পাশ্বশিক্ষক রয়েছে। বাম আমল থেকেই তাঁরা চাকরির নিরাপত্তা, বেতন কাঠামো পরিবর্তন সহ একাধিক দাবী নিয়ে আন্দোলনের পথে হেঁটেছিলেন। কিন্তু বারবার তাঁদের ভাগ্যে জুটেছে কেবল সরকারের ফাঁপা প্রতিশ্রুতি। রাজ্যে সরকার বদলে গেলেও তাঁদের অবস্থার কোনো মৌলিক পরিবর্তন হয়নি। বর্তমান তৃণমূল সরকারেও তাঁদের ইস্যু নিয়ে নীরব ভূমিকা পালন করাতে ধর্য্যের বাঁধ ভাঙ্গছিল তাঁদের। তার জেরে ক্রমশ বিরোধী বামেদের প্রভাব বাড়ছিল তাঁদের মধ্যে। তবে এ সম্ভাবনার মুখে ছাই ফেলে লোকসভা ভোটকে টার্গেট করেই পার্শ্ব শিক্ষকদের নতুন আশার আলো দেখালেন বঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

এদিন নজরুল মঞ্চে আয়োজিত একটি সরকারি অনুষ্ঠানে পার্শ্ব শিক্ষকদের সমস্ত দাবী দাওয়া মনোযোগ সহকারে শুনলেন তিনি এবং সহানুভূতিও প্রকাশ করলেন। তাঁদের আন্দোলনের পথ থেকে সরে এসে কাজে মন দেওয়ার পরামর্শও দিলেন এদিন। এবং তাঁদের ইস্যুগুলো নিয়ে সংশ্লিষ্টমহলকে বিবেচনা করতে নির্দেশও দিয়ে দেন। মুখ্যমন্ত্রীর এই আশ্বাস পেয়েই রাতারাতি ভোল পাল্টে ফেলেন আন্দোলনরত পার্শ্ব শিক্ষকরা। তৃণমূল দলে ভীড়ে গেলেন তাঁরা। তৈরি হল তৃণমূল পার্শ্বশিক্ষক সমিতি।

এই সংগঠনের প্রথম সম্মেলন হওয়ার কথা আজ নেতাজী ইন্ডোর স্টেডিয়ামে। মুখ্যমন্ত্রীর তরফ থেকে সেখানেই পার্শ্ব শিক্ষকদের বেতন বৃদ্ধি সংক্রান্ত একাধিক ঘোষণা হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল রয়েছে। তবে খোদ মুখ্যমন্ত্রী অন্যত্র ব্যস্ততার জন্য উপস্থিত হতে পারবেনা বলেই জানা যাচ্ছে দলীয় সূত্রের খবর থেকে। তাঁর পরিবর্তে তৃণমূলের মহাসচিব তথা রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় সম্মেলনের উদ্বোধণ কর্মসূচিটি মেটাবেন। এছাড়া উপস্থিত থাকবেন মন্ত্রিসভার সদস্য সুব্রত মুখোপাধ্যায়, শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়, ফিরহাদ হাকিম ও তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সির মতো তৃণমূলের বিশিষ্ট ব্যক্তিত্বরা। শিক্ষামন্ত্রী তথা তৃণমূল মহাসচিবও মুখ্যমন্ত্রীর পার্শ্ব শিক্ষকদের নিয়ে পরামর্শতে আস্থা রাখেন এটাই জানালেন এদিন। পার্থবাবু জানান যে, পার্শ্বশিক্ষকদের সিংহভাগই মুখ্যমন্ত্রীর আদর্শে অনুপ্রাণিত, সরকারের উপর তাঁরা আস্থা রেখেছেন। আন্দোলনের পথে তাঁরা কার্যত যাননি। তাঁদের এই আচরণেই রাজ্য প্রশাসন সন্তুষ্ট হয়েছে। ফলত সম্মেলন মঞ্চে তাঁদের দাবি সংক্রান্ত বিষয়ে ইতিবাচক কিছু ঘোষণা হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল রয়েছে আজ,এমনটাই আন্দাজ করছেম সংশ্লিষ্ট মহল। তাঁদের দাবী দাওয়ার গুলোর ভিত্তিতে শিক্ষামন্ত্রী সহ সরকারের এবং শাসকদলের শীর্ষ প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে সম্মেলনের মঞ্চ থেকে মুখ্যমন্ত্রীর তরফ থেকে কী বার্তা দেওয়া হয়, এখন সেটার দিকেই মুখিয়ে রয়েছেন পার্শ্বশিক্ষকরা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!