এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > পদ হারালেন হেভিওয়েট তৃণমূল নেতা! নতুন দায়িত্ব প্রশান্তকে! জঙ্গলমহলের রাজনীতিতে নতুন সমীকরণ?

পদ হারালেন হেভিওয়েট তৃণমূল নেতা! নতুন দায়িত্ব প্রশান্তকে! জঙ্গলমহলের রাজনীতিতে নতুন সমীকরণ?



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – ঝাড়গ্রাম জেলায় ঝাড়গ্রাম পৌরসভাতে নতুন করে প্রশাসনিক বোর্ড গঠিত হলো। ঝাড়গাম পৌরসভার প্রশাসক করা হলো ঝাড়গ্রাম শহর তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি প্রশান্ত রায়কে। ঝাড়গ্রাম শহর তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি প্রশান্ত রায় ঝাড়গ্রাম পৌরসভার ১৫ নম্বর ওয়ার্ডের প্রাক্তন কাউন্সিলর। ইতিপূর্বে, এই পৌরসভার পৌর প্রশাসক ছিলেন সুবর্ণ রায়। তাঁকে অপসারিত করে নতুন প্রশাসনিক বোর্ডের চেয়ারম্যান করা হলো প্রশান্ত রায়কে। যে ঘটনায় যথেষ্ট খুশি ঝারগ্রাম শহরের বাসিন্দারা। কারণ, তৃণমূল দলের মধ্যে স্বচ্ছতার ভাবমূর্তি রয়েছে পেশায় আইনজীবী প্রশান্ত রায়ের।

ঝাড়গ্রাম পৌরসভায় ইতিপূর্বে প্রশাসক ছিলেন সুবর্ণ রায়। তাঁর স্থলে নতুন প্রশাসনিক বোর্ডের চেয়ারম্যান করা হলো প্রাক্তন কাউন্সিলর ও পেশায় আইনজীবী প্রশান্ত রায়কে। প্রাক্তন কাউন্সিলার কল্লোল তপাদারকে এই প্রশাসনিক বোর্ডের সদস্য করা হলো। তৃণমূল নেতা কল্লোল তপাদার এই পৌরসভার দু নম্বর ওয়ার্ডের প্রাক্তন কাউন্সিলর। অন্যদিকে প্রশান্ত রায় হলেন ১৫ নম্বর ওয়ার্ডের প্রাক্তন কাউন্সিলর। এতদিন তিনি বিদায়ী প্রশাসক বোর্ডের সদস্য ছিলেন।

প্রসঙ্গত গত ২০১৮ সালে ডিসেম্বর মাসে মেয়াদ শেষ হয় তৃণমূল পরিচালিত ঝাড়গাম পৌরসভার। তবে এখনো পর্যন্ত ভোট না হবার কারণে প্রশাসক বোর্ড গঠন করা হয়েছে। সেই বোর্ডের সদস্য ছিলেন প্রশান্ত রায় ও প্রাক্তন পৌর প্রধান দুর্গেশ মল্লদেব। এবার নতুন করে প্রশাসনিক গঠিত হলে সেখান থেকে অপসারিত করা হলো প্রাক্তন পৌর প্রধান দুর্গেশ মল্লদেবকে। প্রশান্ত বাবুকে প্রশাসকের দায়িত্ব দেবার কারণে যথেষ্ট আনন্দিত ঝাড়গ্রাম শহরের বাসিন্দারা।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

কারণ, একজন স্বচ্ছ ভাবমূর্তির অধিকারি হিসেবে তার যথেষ্ট জনপ্রিয়তা রয়েছে। নিজের এই দায়িত্বলাভ প্রসঙ্গে প্রশান্ত রায় জানালেন যে, রাজ্য সরকার তাঁর উপর যে বিশেষ দায়িত্ব দিয়েছেন, সেই দায়িত্ব তিনি সঠিকভাবে পালন করবেন। এর সঙ্গে সঙ্গেই তিনি ঝাড়গাম পৌরসভার উন্নয়নের দিকেও বিশেষ লক্ষ রাখবেন।

তিনি আরও জানান যে, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জঙ্গলমহলের প্রচুর উন্নয়ন করেছেন। ঝাড়গাম শহরের উন্নয়নের জন্যও তিনি অনেক কাজ করেছেন। মুখ্যমন্ত্রীর উন্নয়নের পর বাকি যে কাজগুলি রয়ে গেছে, সেগুলি দ্রুত রুপায়ন করার উদ্যোগ নেবেন তিনি। তিনি আরও জানালেন যে, ঝাড়গ্রাম পুর এলাকার সমস্ত নাগরিকের উন্নয়ন করাই হলো তাঁর প্রধান লক্ষ। প্রসঙ্গত রাজ্যের বহু পুরসভার মেয়াদ শেষ হয়েছে। সেগুলোতে প্রশাসনিক বোর্ড গঠন করে পরিষেবার কাজ চলছে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!