এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > প্রধানমন্ত্রীর ভূয়শী প্রশংসা শিবসেনা মুখপাত্রের, মোড় ঘোরার তীব্র জল্পনা রাজনীতি মহলে

প্রধানমন্ত্রীর ভূয়শী প্রশংসা শিবসেনা মুখপাত্রের, মোড় ঘোরার তীব্র জল্পনা রাজনীতি মহলে



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – কথায় বলে, রাজনীতিতে ফুলস্টপ বলে কিছু হয়না, সমস্তটাই কমা বা সেমিকোলন। আবার, রাজনীতিতে স্থায়ী মিত্র বা স্থায়ী শত্রু বলেও কিছু হয়। না যখন-তখন অবস্থান বদল হতে পারে, বাঁক বদল হতে পারে রাজনীতির। একসময় বিজেপির ঘনিষ্ঠ সঙ্গী ছিল শিবসেনা। কিন্তু মহারাষ্ট্রের গত বিধানসভা নির্বাচনের পর থেকে শিবসেনার সঙ্গে বিজেপির সম্পর্ক আদায়-কাঁচকলায় পরিণত হয়েছে। বারবার বিজেপিকে কটাক্ষ করেছেন শিবসেনা মুখপাত্র সঞ্জয় রাউত। একাধিক বিষয় নিয়ে বারবার বিজেপির তীব্র সমালোচনা করেছেন তিনি। কিন্তু এবার হঠাৎ করেই তিনি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে দেশের শীর্ষ নেতা ও বিজেপির সর্বোচ্চ নেতা বলে সম্মানিত করলেন।

শিবসেনার মুখপাত্র সঞ্জয় রাউতের এই হঠাৎ ভোলবদল বিস্মিত করে দিয়েছে রাজনীতি মহলকে। আবার সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী বৈঠক করেছেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ভব ঠাকরের সঙ্গে। বৈঠকের পর উদ্ভব ঠাকরে জানিয়েছেন যে, এর মধ্যে রাজনীতি না খুঁজতে। রাজনৈতিকভাবে তাঁরা হয়তো এক জায়গায় নেই, কিন্তু তাঁদের সম্পর্ক ভাঙ্গে নি। সম্প্রতি, রাজ্যের কোটা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেছিলেন তিনি। এই বৈঠককে ঘিরে নানা প্রশ্ন, নানা জল্পনা শুরু হয়েছে।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

এরপর শিবসেনা মুখপাত্র সঞ্জয় রাউত জানালেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি হলেন দেশের শীর্ষ নেতা ও বিজেপির সর্বোচ্চ নেতা। কিন্তু ইতিপূর্বে তাঁকেই বারবার বিজেপির বিরুদ্ধে নানা বক্তব্য রাখতে দেখা গেছে। রাম মন্দির, দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি, করোনা ভ্যাকসিন নিয়ে বারবার সরব হতে দেখা গেছে তাঁকে। তাঁর ও শিবসেনা দলের এই আচমকা ভোল বদল নানা জল্পনার সৃষ্টি করেছে।

প্রসঙ্গত, দীর্ঘদিন জোট শরিক ছিল বিজেপি ও শিবসেনা। মহারাষ্ট্রে গত বিধানসভা নির্বাচনের পর নানা মতান্তর দেখা দেয় এই দুই শরিকের মধ্যে। জোট ছেড়ে বেরিয়ে আসে শিবসেনা, এরপর কংগ্রেস এনসিপির সঙ্গে জোট বেঁধে মহারাষ্ট্রতে সরকার গঠন করে শিবসেনা। সেই দলের নেতার এই আচমকা ভোলবদল দেখে অনেকেই মনে করছেন যে, শিবসেনা ও বিজেপির পুরনো সম্পর্ক আবার জোড়া লাগতে পারে। আর তাই যদি হয়, তবে মহারাষ্ট্রের রাজনীতিতে বড়োসড়ো পরিবর্তন আসবে, যার ঢেউ পৌঁছে যাবে জাতীয় রাজনীতিতেও।

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!