এখন পড়ছেন
হোম > অন্যান্য > বঙ্গোপসাগরে ঘনীভূত নিম্নচাপ! আগামী ৩ দিন প্রবল বর্ষণ-দুর্যোগে ভাসতে চলেছে বাংলা? জেনে নিন

বঙ্গোপসাগরে ঘনীভূত নিম্নচাপ! আগামী ৩ দিন প্রবল বর্ষণ-দুর্যোগে ভাসতে চলেছে বাংলা? জেনে নিন



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট- কয়েকদিন থেকেই ভ্যাপসা গরমে হাঁসফাঁস করছিল কলকাতা। কবে যে আকাশে মেঘের দেখা পাওয়া যাবে এবং সেইসঙ্গে আবহাওয়ায় আসবে একটু স্বস্তি সেই নিয়ে চিন্তা ছিল শহরবাসী। শনিবার সন্ধেয় কলকাতার তাপমাত্রা ছিল ৩৫.৩ ডিগ্রি। বাতাসের সর্বনিম্ন আর্দ্রতার পরিমান ৬১ ছিল শতাংশ ও সর্বোচ্চ ৯৪ শতাংশ। তবে আজ কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৯ ডিগ্রি রয়েছে। তবে আজ সকাল থেকেই ভ্যাপসা গরমকে বিদায় দিয়ে রাজ্যের আকাশ মেঘে ঢেকেছে। ভোর থেকেই উপকূলীয় জেলাগুলোতে শুরু হয়েছে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি।

আলিপুর আবহাওয়া দপ্তরের সূত্রে জানা গেছে, এর কারণ হিসেবে বলছে আগামী ৭২ ঘণ্টায় বাংলা দুর্যোগের কবলে পড়তে চলেছে। যার কারণ বঙ্গোপসাগরে তৈরি হওয়া একটি নিম্নচাপ। আলিপুর আবহাওয়া অফিস সূত্রে জানা যায়, বঙ্গোপসাগরের উপর একটি নিম্নচাপ তৈরি হয়েছে, যা পরবর্তীকালে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের সরে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। সেই সঙ্গে সেখানে যাওয়াকালে সে ক্রমশ শক্তি বৃদ্ধি করবে বলেও জানা যায়। যার জেরে রবিবার থেকে মঙ্গলবার এই তিনদিন কলকাতা সহ রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

তবে সাধারণত রাজ্যের কলকাতা, দুই ২৪ পরগনা, হাওড়া, হুগলি, পূর্ব মেদিনীপুর এবং বর্ধমানে বৃষ্টি হবে বলে জানা গেছে। সেই সঙ্গে উত্তরেও বৃষ্টির দেখা মিলতে পারে। প্রথমে মাঝারি বৃষ্টিপাত থাকলেও পরের দিকে তা আরও বাড়তে থাকবে বলেই জানা যায়। ইতিমধ্যেই বেশ কিছু এলাকায় হলুদ সতর্কতা জারি করা হয়েছে। সমুদ্রে এর প্রভাব পড়বে বলে আশঙ্কা করে কুড়ি থেকে বাইশ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সমুদ্রে যাওয়ার ক্ষেত্রে মৎস্যজীবীদের নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। সেই সঙ্গে ইতিমধ্যে যারা সমুদ্রের রয়েছেন, তাদেরকে কুড়ি তারিখের মধ্যে ফিরে আসার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এছাড়াও আলিপুর আবহাওয়া দপ্তরের তরফ থেকে জানা গেছে, সোমবার প্রবল বৃষ্টি হতে পারে বীরভূম, পূর্ব ও পশ্চিম বর্ধমান, পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, পশ্চিম মেদিনীপুর এবং ঝাড়গ্রামে। সকাল থেকেই হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি শুরু হবার পরেও সোমবার প্রবল বৃষ্টি হতে পারে এই জেলাগুলিতে। তবে শুধুমাত্র দক্ষিণবঙ্গে নয়, উত্তরবঙ্গের জলপাইগুড়ি কোচবিহার এবং কালিম্পং-এ অতি ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। ইতিমধ্যে বছরের প্রথমদিকে উত্তরবঙ্গে প্রবল বর্ষণে বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। সেই ঘটনা কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই দক্ষিণে আম্ফানের তান্ডব এবং তারপরে একটার পর একটা নিম্নচাপের কারণে বিধ্বস্ত হচ্ছে রাজ্য। আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর উত্তরবঙ্গের নদীগুলিতে জলের মাত্রা বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা করেছেন। এছাড়া টানা বৃষ্টির জেরে দার্জিলিং, কালিম্পং-এ ভূমিধসের আশঙ্কা করছেন আবহাওয়াবিদরা। সুতরাং সরকারি তরফ থেকে আগে থেকেই পর্যাপ্ত পরিমাণে সতর্কতা ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দপ্তরের তরফ থেকে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!