এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > বিধানসভায় কেমন হবে বিজেপির ফলাফল? সমীক্ষায় উঠে এল বড়সড় আভাস!

বিধানসভায় কেমন হবে বিজেপির ফলাফল? সমীক্ষায় উঠে এল বড়সড় আভাস!



গোটা দেশের শাসন ক্ষমতার কেন্দ্রস্থল দিল্লি। জনতা জনার্দনের রায় নিয়ে দ্বিতীয়বারের জন্য কেন্দ্রের ক্ষমতা দখল করেছে ভারতীয় জনতা পার্টি। কিন্তু প্রথমবার ক্ষমতায় আসার পর দিল্লি বিধানসভার নির্বাচনে সেখানকার মসনদ দখল করতে পারেনি তারা। তাই এবার আম আদমি পার্টিকে হারিয়ে সেই দিল্লির মসনদ দখল করতে উদগ্রীব হয়ে রয়েছে গেরুয়া শিবির। কিন্তু তা কতটা সম্ভব হবে ভারতীয় জনতা পার্টির পক্ষে! এখন এই প্রশ্নই উঠতে শুরু করেছে সর্বত্র।

কেননা বর্তমানে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন ইস্যুতে বিরোধীদের প্রতিবাদে রীতিমতো কোণঠাসা বিজেপি। তাই এই পরিস্থিতিতে বিজেপির পক্ষে এবারও দিল্লি দখল করা আদৌ সম্ভব হবে কি না, তা নিয়ে নানা মহলে গুঞ্জন তৈরি হয়েছিল। আর এই পরিস্থিতিতে এবার সামনে এল টাইমস নাওয়ের সমীক্ষা। কিন্তু কি বলছে এই সমীক্ষা! সূত্রের খবর, সমীক্ষায় দেখানো হয়েছে, আসন্ন দিল্লি বিধানসভার নির্বাচনে 70 টি আসনের মধ্যে বিজেপি 10 থেকে 14 টি আসন পেতে পারে। ফলে সেদিক থেকে বিজেপির জন্য এই সমীক্ষার আভাস খুব একটা সুখকর নয় বলেই মনে করছে একাংশ।

তবে এখন যদি লোকসভা নির্বাচন হত, তাহলে বিজেপি ব্যাপক সাফল্য পেত বলেই মত প্রকাশ করছে সমীক্ষা। টাইমস নাও ইপসোসের সমীক্ষায় বলা হয়েছে, বর্তমান সময় যদি লোকসভা ভোট হত, তাহলে বিজেপি 46 শতাংশ এবং আম আদমি পার্টি পেত 38 শতাংশ ভোট। কিন্তু নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন নিয়ে বিরোধীদের প্রচারে যেভাবে কোনঠাসা হয়ে গিয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টি, তাতে এবারের দিল্লি বিধানসভা নির্বাচনে কি এই আইন বিজেপিকে আরও ব্যাকফুটে ফেলে দেবে! সূত্রের খবর, সমীক্ষায় জানানো হয়েছে, বর্তমান সময়ে নাগরিকত্ব আইন নিয়ে সরকার যে পদক্ষেপ নিয়েছে, তাকে সঠিক বলে মনে করছেন দেশের 71 শতাংশ মানুষ।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

অন্যদিকে শাহীনবাগে যা চলছে, তা মোটেই ঠিক নয় বলে জানিয়েছে 52 শতাংশ মানুষ এবং সেখানে যা চলছে, তা একদম সঠিক নয় বলে মত প্রকাশ করেছে 25 শতাংশ মানুষ বলে দাবি এই সমীক্ষক সংস্থার। তবে বিধানসভা নির্বাচনের ক্ষেত্রে টাইমস নাও বিজেপির জন্য খুব একটা সুখকর সুখবর শোনাতে না পারলেও, লোকসভার নিরিখে বিজেপি যে অনেকটাই স্বস্তিজনক জায়গা দখল করে আছে, তা এই সমীক্ষায় উঠে এসেছে। ফলে সেদিক থেকে নির্বাচনে শেষ কথা বলা জনতা জনার্দন, এখন ভোটবাক্সে কোনদিকে সমর্থন দেন, তার দিকেই নজর থাকবে সকলের।

কেননা বর্তমান সময়ে নির্বাচনের আগে সমীক্ষক সংস্থার সমীক্ষা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু সব সময় সব সমীক্ষা মেলে না। তাই জনতার জনার্দনের আঙ্গুল কোন দিকে যায়, তা ভোটবাক্স খোলার পরেই প্রমাণিত হয়ে যাবে বলে মত ওয়াকিবহাল মহলের। এখন এই সমীক্ষার সাথে বাস্তবের মিল খুঁজতে আমাদের অপেক্ষা করতেই হবে আরও বেশ কিছু দিন।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!