এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > লক্ষ্য পুর নির্বাচন ফের নয়া পদক্ষেপনিল প্রশান্ত কিশোরের টীম জেনে নিন!

লক্ষ্য পুর নির্বাচন ফের নয়া পদক্ষেপনিল প্রশান্ত কিশোরের টীম জেনে নিন!



লোকসভায় তৃণমূল কংগ্রেসের খারাপ ফলাফল হওয়ার পরেই দলের রননীতিকারের দায়িত্ব দেওয়া হয় ভোট কৌশলী প্রশান্ত কিশোরের ওপর। যেখানে দায়িত্ব নিয়েই “দিদিকে বলো” কর্মসূচি চালু করে সাধারণের সঙ্গে তৃণমূলের জনপ্রতিনিধি থেকে শুরু করে নেতাকর্মীদের জনসংযোগ করান সেই প্রশান্ত কিশোর। শুধু তাই নয়, গত লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের নিচুতলার জনপ্রতিনিধিদের দুর্ব্যবহার এবং দুর্নীতির কারণে সাধারণ মানুষ যে তৃণমূলের থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে, তা উপলব্ধি করেন ভোটগুরু। আর তারপরেই পৌরসভা নির্বাচনে ভালো ফল করানোর জন্য বিভিন্ন তৃণমূল কংগ্রেস কাউন্সিলারের ওয়ার্ডে গিয়ে মানুষের মতামত নিতে শুরু করে তার টিম।

ইতিমধ্যেই অনেক পৌরসভায় প্রশান্ত কিশোরের টিম ছড়িয়ে-ছিটিয়ে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে কোন ওয়ার্ডে কাকে কাউন্সিলার করলে ভালো হয়, তার মতামত নিতে শুরু করেছেন। এবার পৌরসভা নির্বাচনের দিন ঘোষণার আগে শনিবার পুরুলিয়ার ঝালদা শহরের বেশ কিছু ওয়ার্ডে সমীক্ষা চালালো এই টিম। সূত্রের খবর, এদিন প্রশান্ত কিশোরের টিমের চারজন সদস্য ঝালদা পৌরসভার 12 টি ওয়ার্ডের মধ্যে ছটি ওয়ার্ডে ঘুরে সাধারণ মানুষের সঙ্গে কথা বলেন। পরে তারা তৃণমূল কাউন্সিলরদের সঙ্গেও বেশ কিছু এলাকায় কথা বলে বাস্তব পরিস্থিতি জানতে চান।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

মূলত জনতা জনার্দনের কাছ থেকে কোন ওয়ার্ডে কেমন কাজ হচ্ছে, কাউন্সিলার কেমন, এই সমস্ত কথা জানতে চেয়েছে প্রশান্ত কিশোরের টিম বলে খবর‌। আর সাধারণ মানুষের কাছ থেকে সমস্ত কথা শোনার পরে, ঝালদা পৌরসভার চেয়ারম্যান এবং বেশকিছু তৃণমূল কাউন্সিলরের কাছে গিয়ে তাদের ওয়ার্ডের খুঁটিনাটি তথ্য সংগ্রহ করে এই টিম। যেখানে সেই সমস্ত তৃণমূল কাউন্সিলরের ওয়ার্ডের বিশিষ্ট ব্যক্তিদের নাম, ফোন নম্বর এবং গত পৌরসভা নির্বাচনের ফলাফল কেমন হয়েছে, তার একটি তালিকা সংগ্রহ করা হয় এই টিমের তরফে।

প্রসঙ্গত, 12 আসন বিশিষ্ট এই ঝালদা পৌরসভায় নির্বাচনের মাধ্যমে তৃণমূল ক্ষমতায় আসেনি। এখানে প্রথমে কংগ্রেস ক্ষমতা দখল করেছিল। পরবর্তীতে দলবদলে প্রক্রিয়ায় অনেক কাউন্সিলর তৃণমূলের নাম লেখানোয় বর্তমানে তৃণমূল এই পৌরসভা দখল করেছে। যেখানে তাদের সদস্য সংখ্যা 8, বিজেপির 2 এবং কংগ্রেসের 1। আর এবার পৌরসভা নির্বাচনে তৃণমূল যাতে নির্বাচনের মাধ্যমেই এই পৌরসভা দখল করে, তার জন্য পিকের টিমের তরফে এই সমীক্ষা চালানো হল বলেই মনে করছে একাংশ।

যেখানে বাস্তব ঘটনা বুঝে এই টিম মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কাছে রিপোর্ট দিয়ে কি করলে এই পৌরসভা দখল করা যাবে, তার স্ট্যাটেজি তৈরি করবে বলেই দাবি একাংশের। সব মিলিয়ে এবার পৌরসভা নির্বাচনের দামামা না বাজলেও, নিজেদের মত করে তৃণমূলকে সাফল্য পাইয়ে দিতে প্রস্তুতি ও সমীক্ষা শুরু করে দিয়েছে প্রশান্ত কিশোরের টিম।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!