এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > প্রার্থী তালিকা প্রকাশের পরেই তৃণমূল শিবিরে ব্যাপক ভাঙন, তৃণমূল নেত্রী কি এবার বড়োসড়ো চাপের মুখে

প্রার্থী তালিকা প্রকাশের পরেই তৃণমূল শিবিরে ব্যাপক ভাঙন, তৃণমূল নেত্রী কি এবার বড়োসড়ো চাপের মুখে



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – বিশেষজ্ঞরা আগেই আশঙ্কা করেছিলেন এবং আশঙ্কা অনুযায়ী তৃণমূল কংগ্রেসে ভাঙন ত্বরান্বিত হয়েছে গতকাল থেকেই। গতকাল প্রার্থী তালিকা প্রকাশের পর থেকে তৃণমূল কংগ্রেসের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব ব্যাপক আকারে সামনে আসে। টিকিট না পেয়ে কেউ কেঁদে ভাসাচ্ছেন, কেউ নিজের পার্টি অফিস ভাঙচুর করতে শুরু করেন। স্বাভাবিকভাবেই দলবদলের ইংগিত স্পষ্ট।

 ইতিমধ্যেই হাওড়া শিবপুরের বর্ষীয়ান বিধায়ক জটু লাহিড়ী রাতারাতি বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন তৃণমূলের টিকিট না পেয়ে। প্রসঙ্গত জটু লাহিড়ী সম্প্রতি নিজেই নিজেকে প্রার্থী বলে ঘোষণা করে দিয়েছিলেন। কিন্তু প্রার্থী তালিকা প্রকাশ হতেই দেখা গেল বর্ষীয়ান নেতা জটু লাহিড়ীকে টিকিট দেওয়া হয়নি।

মনে করা হচ্ছে, বয়সজনিত কারণে এবার বহু বিধায়ক যেমন বাদ পড়েছেন, ঠিক সেভাবেই শিবপুরের দীর্ঘদিনের বিধায়ককে বাদ দেওয়া হয়েছে। জানা যাচ্ছে, জটু লাহিড়ীর পাশাপাশি এবার সাঁকরাইলের তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়ক শীতল সর্দার বিজেপিতে যোগ দিতে চলেছেন। শুক্রবার রাতেই তিনি বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের সঙ্গে দেখা করেন বলে জানা গেছে। 

সূত্রের খবর, আজ বিকেলে না হলে রবিবার বিকেলে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ব্রিগেড সমাবেশ থেকে শীতল সর্দার বিজেপিতে যোগ দেবেন। এখনো নির্দিষ্ট করা হয়নি সেটি। তবে পরিস্থিতি যেদিকে এগোচ্ছে, তাতে বিশেষজ্ঞদের মতে, রবিবার ব্রিগেডে বিজেপির সভা থেকে এক ঝাঁক নেতা-নেত্রী যারা তৃণমূল ছেড়ে দিচ্ছেন তাঁরাই বিজেপিতে যোগ দেবেন।

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

অন্যদিকে জানা গেছে সাঁকরাইল তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়ক শীতল সর্দারের বেশ কিছু অনুগামীও বিজেপিতে যাচ্ছেন। জটু লাহিড়ীর সিদ্ধান্ত থেকেই যে শীতল সর্দার অনুপ্রাণিত হয়েছে বিজেপিতে যাবার ব্যাপারে তা তিনি জানিয়েছেন। তৃণমুল কংগ্রেস বিধায়ক জটু লাহিড়ী ইতিমধ্যে বিজেপিতে যোগদান করে নিয়েছেন।

 জানা গিয়েছে, তিনি কাউকে কিছু না জানিয়ে একাই বিজেপিতে যোগদান করেছেন। পাশাপাশি তিনি অভিযোগ করেছেন, দলে থেকে তিনি বঞ্চিত। সে কারণেই তিনি বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। প্রসঙ্গত, তৃণমূলের প্রার্থী তালিকায় একাধিক হেভিওয়েট বিধায়কের নাম বাদ গিয়েছে এবার। আর তাতেই ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ।

পাশাপাশি বিভিন্ন জায়গায় তারকাদের প্রার্থী করা নিয়ে নিজেদের ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী, সমর্থকরা। অনেকেই মনে করছেন তারকারা যেহেতু সাধারণ মানুষের থেকে যথেষ্ট দূরে থাকেন, তাই তাঁরা এলাকার মানুষের ভালো-মন্দ কিছুই বুঝবেন না। অবশ্য তৃণমূলের পক্ষ থেকে তারকা পদে দাঁড়িয়ে জয়লাভ করেননি এরকম সংখ্যা খুবই কম।মিমি চক্রবর্তী থেকে দীপক অধিকারী, মুনমুন সেন থেকে দেবশ্রী রায় প্রকৃত উদাহরণ। 

প্রার্থী তালিকা প্রকাশের পর যেভাবে দলে ভাঙন শুরু হয়েছে, তাতে একুশের বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূল বিপর্যয়ের মুখোমুখি হবে না তো? প্রশ্ন তুলছে রাজনৈতিক মহলের অনেকেই। পরিস্থিতি সামাল দিতে এবার তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নতুন কি চমক দেন সেটাই এখন দেখার!

 

আপনার মতামত জানান -

ট্যাগড
Top
error: Content is protected !!