এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > প্রধানমন্ত্রীর নামে স্টেডিয়াম নিয়ে তীব্র কটাক্ষ বাংলার মুখ্যমন্ত্রীর, দেশজুড়ে চলছে সমালোচনা

প্রধানমন্ত্রীর নামে স্টেডিয়াম নিয়ে তীব্র কটাক্ষ বাংলার মুখ্যমন্ত্রীর, দেশজুড়ে চলছে সমালোচনা



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – গতকাল থেকেই সোশ্যাল মিডিয়া সরগরম রয়েছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নামে বিশ্বের বৃহত্তম ক্রিকেট স্টেডিয়ামের নামকরণ হওয়ায়। এই নিয়ে দেশজুড়ে শুরু হয়েছে বিতর্ক। সাধারণ মানুষ থেকে বিরোধীরা প্রায় প্রত্যেকেই গেরুয়া শিবিরের এই সিদ্ধান্তের তীব্র সমালোচনা চালাচ্ছে। বুধবার বিশ্বের বৃহত্তম ক্রিকেট স্টেডিয়ামের নাম সর্দার বল্লভ ভাই প্যাটেল স্টেডিয়াম থেকে হয়েছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নামে। আর তা নিয়েই আজ তীব্র কটাক্ষ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিন পেট্রোল-ডিজেলের দাম বাড়ার বিরুদ্ধে অভিনব প্রতিবাদে সামিল হোন মুখ্যমন্ত্রী। ব্যাটারি চালিত স্কুটি করে বাড়ি থেকে নবান্ন পর্যন্ত পৌঁছান তিনি। নবান্নে পৌঁছেই কেন্দ্রীয় সরকারের একাধিক সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদিকে মুখ্যমন্ত্রী করেন কড়া আক্রমণ। আর সেই সূত্রেই মুখ্যমন্ত্রী তীব্র কটাক্ষ সহযোগে বলেন, যেভাবে সবকিছুর নাম বদল হচ্ছে তাতে এবার দেশের নামটাই বদলে ফেলতে দেখা যাবে। পাশাপাশি মোতেরা স্টেডিয়ামের নাম বদল ইস্যুতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তীব্র কটাক্ষ করে বলেন, সবকিছুই নিজের নামে হচ্ছে।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

মহাত্মা গান্ধী, নেতাজী, বাবাসাহেব আম্বেদকরের মতন মনীষীদের নাম বদলে যাচ্ছে। অন্যদিকে শুধুমাত্র মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নন, দেশের অন্যান্য বিরোধীরাও প্রধানমন্ত্রীর নামাঙ্কিত স্টেডিয়াম হওয়া নিয়ে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী গতকালই টুইট করে জানিয়েছেন, নরেন্দ্র মোদী স্টেডিয়ামের একদিকে আদানি এন্ড এবং অন্যদিকে রিলায়েন্স এন্ড এবং প্রধানমন্ত্রীর নামাঙ্কিত স্টেডিয়ামের দায়িত্বে রয়েছেন জয় শাহ। স্বভাবিকভাবেই রাহুল গান্ধী তাঁর ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়।

অন্যদিকে দেশের বিভিন্ন মহলে প্রধানমন্ত্রী বেঁচে থাকাকালীন এভাবে তাঁর নামে স্টেডিয়ামের নামকরণ নিয়ে শুরু হয়েছে তীব্র সমালোচনা। অনেকেই আবার সত্যজিৎ রায়ের ছবি হীরক রাজার দেশের তুলনা টেনে এনেছেন। সেখানেও দেখা গিয়েছিল হীরকের রাজা বেঁচে থাকাকালীন মূর্তি তৈরি করেছিলেন। ঠিক একইভাবে বেঁচে থাকাকালীন প্রধানমন্ত্রী নামে স্টেডিয়াম হওয়া নিয়ে বিভিন্ন মানুষের নানান মতামত সামনে আসছে।  তবে একুশের নির্বাচনের আগে মুখ্যমন্ত্রীর কটাক্ষ যে এই বিতর্ককে আরও ব্যাপকভাবে বাড়িয়ে দেবে আগামীদিনে সে কথা বলাই বাহুল্য।

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!