এখন পড়ছেন
হোম > অন্যান্য > পোলট্রি বিক্রি নিয়ে নতুন বিবৃতি কেন্দ্রের। জানুন বিস্তারিত

পোলট্রি বিক্রি নিয়ে নতুন বিবৃতি কেন্দ্রের। জানুন বিস্তারিত



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – করোনা আবহে প্রায় এক বছর থাকার পর ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের খবর শুনলেই বুকটা দুরু দুরু করে ওঠে। কিন্তু বিধি বাম, নতুন বছরের শুরুতেই মাথাচাড়া দিয়েছে বার্ড ফ্লু ভাইরাসের আক্রমণ। দেশের নানান প্রান্তে মরছে হাজারে হাজারে পাখী। কেরালা, রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশ, হিমাচল প্রদেশের পর এবার গুজরাট এবং হারিয়ানা তেও খোঁজ মিলেছে বার্ড ফ্লু এর।

বছরের শুরুতেই রাজস্থানের বিভিন্ন জেলায় বহুল সংখ্যক কাক মরতে দেখা যায়। পরীক্ষায় পাঠানো হলে বার্ড ফ্লু ভাইরাস পাওয়া যায় মৃত পাখীর শরীরে। ইতিমধ্যে মধ্যপ্রদেশে হানা দিয়েছে ভাইরাস। কেরালার কট্ট্যাম, আলপুঝা জেলার বেশ কিছু অঞ্চলে বার্ড ফ্লু প্রাদুর্ভাব রাজ্য ভিত্তিক সতর্কতা জারি করা হয়েছে। কেরালা সরকার ইতিমধ্যেই বার্ড ফ্লু প্রাদুর্ভাবে, রাজ্য ভিত্তিক বিপর্যয় ঘোষণা করেছে।

হিমাচল প্রদেশে পরিযায়ী পাখি মরে পড়ে থাকতে দেখা যায় পং দাম লেক অভয়ারণ্যে। নমুনা পরীক্ষার পর তাদের শরীরেও বার্ড ফ্লু সৃষ্টিকারী ভাইরাস পাওয়া জেছে। এই ঘটনার পর হিমাচল প্রদেশের বেশ কিছু অঞ্চলে হাঁস, মুরগীর কেনা, বেচা, রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। এছাড়াও, গুজরাটের যুনগড় জেলায় পরিযায়ী পাখির শরীরে বার্ড ফ্লু ভাইরাসের হদিশ মিলেছে বলে জানানো হয়েছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রকের তরফে। হরিয়ানার পাঞ্চকুলা জেলায় দুটি পোলট্রি তে বার্ড ফ্লু এর সন্ধান মিলেছে।

ইতিমধ্যেই, উত্তর প্রদেশেও পৌঁছে গেছে বার্ড ফ্লু।বার্ড ফ্লু নিশ্চিত হওয়ার পরে নিশ্চিত হওয়ার পরে কানপুরের চিড়িয়াখানা বন্ধ করে দেওয়া হয়। এমনকি বার্ড ফ্লু এর খোঁজ মিলেছে মহারাষ্ট্রে এবং দিল্লিতেও। মহারাষ্ট্র অষ্টম রাজ্য দেশে যেখানে বার্ড ফ্লুয়ের জীবাণু মিলেছে। নবম রাজ্য হিসেবে দিল্লিতেও বার্ড ফ্লু এর হদিস পাওয়া গেছে। ছত্তিশগড় এবং উত্তরাখণ্ড রাজ্যেও বার্ড ফ্লু এর প্রাদুর্ভাব ঘটেছে এবং সেখানেও পাখী মারার কাজ শুরু হয়েছে।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

ইতিমধ্যেই বহু রাজ্যে বার্ড ফ্লু আতঙ্কে পোলট্রি এবং পোলট্রি জাত দ্রব্য কেনা বন্ধ করে দিয়েছে বিভিন্ন রাজ্যের সরকার। এমনকি সাধারণ মানুষও মুরগী হাঁস এমনকি ডিম বাজারে কেনা কমিয়ে দিয়েছে। এই ব্যাপারে, কেন্দ্রীয় মন্ত্রকের মৎস্য, পশুপালন ও দুগ্ধ বিভাগের তরফে প্রকাশিত বিবৃতিতে গতকাল, রাজ্য গুলিকে বার্ড ফ্লু প্রাদুর্ভাব মুক্ত অঞ্চল থেকে পোলট্রি এবং পোলট্রি জাত দ্রব্য বিক্রির ওপর যে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে সেই সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করে দেখতে বলা হয়েছে।

আরও বলা হয়েছে, ভালো ভাবে রান্না করে মুরগী কিংবা ডিম খেলে, তা মানুষের জন্য নিরাপদ। ক্রেতারা যেন এই ব্যাপারে, ভিত্তিহীন, অবৈজ্ঞানিক গুজবে কান না দায়ে সেটাও বলা হয়েছে এই বিবৃতিতে। গুজবে কান দিলে ক্রেতাদের মধ্যে অযথা বিভ্রান্তি সৃষ্টি হবে। কোভিদ ১৯ এর লোকডাউন এ বিপর্যস্ত হাঁস, মুরগী পালকরাই এর ফলে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, হু (WHO) এর তরফে জানানো হয়েছে ভারতে পাখিদের মধ্যে একটি অতি সংক্রমক ফ্লু এর প্রাদুর্ভাব ঘটেছে। হু এর তরফে আরও জানানো হয়েছে, ডিম কিংবা হাঁস মুরগির মাংস খাওয়া নিরাপদ। তবে তা ভালোভাবে রান্না করে খেতে হবে। ভালোভাবে রান্না করা হলে ভাইরাস বেঁচে থাকতে পারে না। ভাইরাস তাপমাত্রা বৃদ্ধিতে সংবেদশীল, ৭০ ডিগ্রী সেলসিয়াস তাপমাত্রায় ভালোভাবে রান্না করলে ভাইরাস নষ্ট হয়ে যায়। অসুস্থ বা মৃত পাখীর থেকেই সর্বাধিক মানুষের মধ্যে ভাইরাস সংক্রমণ ঘটেছে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!