এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > প্রনামে বড় ভয় রাজ্যের কৃষিমন্ত্রীর, পড়ল পোস্টার!

প্রনামে বড় ভয় রাজ্যের কৃষিমন্ত্রীর, পড়ল পোস্টার!



বিখ্যাত সিনেমার গানে ছিল, “চরন ধরিতে দিও গো আমারে, নিও না, নিও না সরায়ে।” কিন্তু এক্ষেত্রে নিজের চরণ কাউকে ছুঁতে দিতে চাইছেন না রাজ্যের কৃষিমন্ত্রী আশিস বন্দ্যোপাধ্যায়। পেশায় অধ্যাপক অত্যন্ত প্রবীণ এই মানুষটি রামপুরহাটের তৃণমূল বিধায়ক। কিন্তু এখন কেউ প্রণাম করতে এলে রীতিমতো আতঙ্কিত হয়ে পড়েন তিনি। যার জেরে এবার শহর তৃণমূলের কার্যালয়ে “অনুগ্রহ করে কেউ প্রণাম করবেন না” বলে পোস্টার সাঁটালেন কৃষিমন্ত্রী আশিস বন্দ্যোপাধ্যায়। যা নিয়ে রীতিমতো চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে গোটা শহর জুড়ে। কিন্তু কেন তিনি এমন কাজ করলেন!

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, কিছুদিন আগেই উর্দিধারী এক পুলিশকর্মীর মন্ত্রীকে প্রণাম করতে যাওয়ার ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়। আর তারপরই চরম বিতর্ক ছড়ায়। কেননা মন্ত্রী হলেও, একজন সরকারি কর্মী কেন তাকে প্রকাশ্যে মঞ্চে প্রণাম করবেন! তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করে বিরোধী দলগুলোর তরফে। যেখানে মন্ত্রীকে সম্মান জানিয়ে স্যালুট করা উচিত, সেখানে প্রণাম করা রীতিমতো নিন্দার চোখে দেখতে শুরু করে অনেকে। আর এই পরিস্থিতিতে এবার যাতে এই ঘটনা তার সাথে আর না ঘটে এবং যাতে তিনি বিতর্কে না পরেন, তার জন্যই পোস্টার সাটিয়ে কেউ তাকে প্রণাম করবেন না বলে জানিয়ে দিলেন রাজ্যের কৃষিমন্ত্রী বলে মত একাংশের।

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

 

অনেকে বলছেন, আশিস বন্দ্যোপাধ্যায় অধ্যাপক মানুষ। সেদিক থেকে তার অনেক ছাত্র আজকে সমাজে প্রতিষ্ঠিত। তাই যে কোনো অনুষ্ঠানে তার অনেক ছাত্রদের সঙ্গে দেখা হয়। আর মাস্টারমশাই হিসেবে যদি কেউ তাকে প্রণাম করেন, তাহলে তা নিয়েও বিতর্ক তৈরি হতে পারে। তাই সেই বিতর্কে না গিয়ে এই পোস্টার লাগাতে বাধ্য হলেন কৃষিমন্ত্রী।

এদিন এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “বেদনা থেকেই এঈ সিদ্ধান্ত। ওইদিন পুলিশের পোশাক পরা এক ছাত্র আমাকে দেখে প্রণাম করতে উদ্যত হয়েছিল। এরপর যেভাবে বিষয়টি প্রচার করা হয়েছিল তাতে আমাকে অস্বস্তিতে ফেলেছিল। তেমনই ওই পুলিশ অফিসারকেও অস্বস্তির মধ্যে পড়তে হয়েছিল। আমি চিরকালই ছাত্রদের অন্তর দিয়ে ভালোবাসি। ছাত্ররাও আমাকে ভালোবাসে। সেই ভালোবাসা থেকেই অনেকে আবেগে প্রণাম করতে চান। তবে এই ঘটনার পর বিধানসভা কক্ষে রাষ্ট্রপতি পুরস্কার প্রাপ্ত শিক্ষক ব্রজমোহন মজুমদার আমাকে জানিয়েছিলেন, আর প্রণাম নেবেন না‌। তাই প্রণাম করে নিয়ে যখন এত জলঘোলা হচ্ছে, তখন কেউ প্রণাম করবেন না বলে পোস্টার সাটাতে বাধ্য হলাম।” সব মিলিয়ে এখন বিতর্ক থেকে দূরে থাকতে “প্রণাম করবেন না” বলে পোস্টার সাঁটিয়ে দিলেন রাজ্যের কৃষিমন্ত্রী।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!