এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > আজ গোয়াতে পূর্ন রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় মনোহর পরিক্করের শেষকৃত্য, থাকছেন প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

আজ গোয়াতে পূর্ন রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় মনোহর পরিক্করের শেষকৃত্য, থাকছেন প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী



ক্যান্সারের সঙ্গে দীর্ঘ যুদ্ধের পর অবশেষে চিকিৎসকদের সব চেষ্টা ব্যর্থ করে অনন্তলোকের পথে যাত্রা করেন দেশের প্রাক্তন প্রতিরক্ষামন্ত্রী ও গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী মনোহর পরিক্কর। আইআইটির এই প্রাক্তনীর হাত ধরেই গোয়াতে গেরুয়া সরকার তৈরী হয়েছিল – কিন্তু দেশের স্বার্থে তাঁকে গোয়ার পরিধির বাইরে বের করে এনে দেশের প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের মত গুরুদায়িত্ব দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। কিন্তু, শেষের দিকে ‘কর্কটরোগের’ মরণ ছোবলে যখন তাঁর শরীর আর দিচ্ছিল না, তখন তিনি নিজেই অব্যাহতি চান প্রতিরক্ষার মত গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রকের থেকে।

এদিকে, সেই সময়েই গোয়াতে নতুন রাজ্য সরকার গঠনের জন্য প্রয়োজনীয় সংখ্যক বিধায়ক না থাকায় বাইরে থেকে সমর্থনের দরকার হয় বিজেপির। কিন্তু, অন্যদলের সেই বিধায়কদের একটাই দাবি – মুখ্যমন্ত্রীর কুর্শিতে মনঃটা পরিক্করকে পেলেই – তবে সমর্থন মিলবে গেরুয়া শিবিরের। আর তাই, পরিস্থিতির দাবিকে সম্মতি দিয়ে নরেন্দ্র মোদী-অমিত শাহরা তাঁকে কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রীর পদ থেকে অব্যাহতি দিয়ে গোয়ার মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব দেন। নিপাত ভদ্র মানুষ ও অত্যন্ত সাধারণ জীবন যাপনে অভ্যস্ত মনোহর পরিক্কর ফেরত যান তাঁর নিজের রাজ্যে। কিন্তু, কর্কটরোগ তাঁর জীবনীশক্তি অনেকটাই ক্ষীণ করে দিয়েছে।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

মাঝে চিকিৎসার জন্য তাঁকে মার্কিন মুলুকে নিয়ে যাওয়া হলেও, চিকিৎসকদের আর বিশেষ কিছু করার ছিল না। আর যখন, চিকিৎসকদের কাছ থেকে নিজের মৃত্যু পরোয়ানা পেয়ে গেলেন মনোহর পরিক্কর, তখনই অদ্ভুত জীবনীশক্তির পরিচয় দিয়ে, নিজের জীবনের অন্তিম কটা দিন ‘কর্মযোগকেই’ বেছে নিলেন তিনি। নাকে পাইপ, চোখে মোটা চশমা ও মাথায় টুপি পরে – ওই অসুস্থ শরীরেই রাজ্যের উন্নয়নে নিয়োজিত করলেন নিজের জীবনের শেষ কটা দিন। কর্কট কামড়ের মারণ-যন্ত্রনা দাঁতে দাঁত চেপে সহ্য করে ছুটে চললেন রাজ্যের একপ্রান্ত থেকে আরেক প্রান্তে। যদিও তাঁর এই অসীম লড়াইকে কুর্নিশ করার বদলে – বিরোধীরা নেমেছিলেন কুৎসিত আক্রমণে।

কিন্তু, তিনি মনোহর পরিক্কর – বিরোধীদের ছোঁড়া কাদা নিজের গায়ে মাখার মানুষই নন। কিন্তু, তাঁর সেই অসমসাহসী যুদ্ধের যবনিকা পতন হল গতকাল সন্ধ্যেবেলায় – আজ সকালে তাঁর নশ্বরদেহ শেষবারের মত তাঁর বাসভবন থেকে বিজেপির রাজ্য সদরদপ্তরে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তাঁকে শেষ শ্রদ্ধা জানান কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নিতিন গড়করি – আর তারপর একে একে বিজেপি নেতা-কর্মী-সমর্থকরা। এরপর গোয়ার সাধারণ মানুষ যাতে তাঁদের প্রিয় মুখ্যমন্ত্রীকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে পারেন তাই তাঁর নশ্বরদেহ রাখা হয়েছে পানাজির কালা অ্যাকাডেমিতে।

সেখান থেকে প্রয়াত মুখ্যমন্ত্রীর শেষকৃত্য পূর্ন রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সমাপ্ত করার জন্য বিকেল ৪ টে নাগাদ শোকমিছিল বেরোবে মিরামারের উদ্দেশ্যে। প্রিয় সাথীকে অন্তিমবিদায় জানাতে ও তাঁর অন্তিমযাত্রায় অংশগ্রহণ করতে দুপুরের মধ্যেই গোয়া পৌঁছে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং। গোয়া পৌঁছাতে পারেন বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ও অন্যান্য হেভিওয়েট বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতারাও। অন্যদিকে, মনোহর পরিক্করের মৃত্যুতে আজ কেন্দ্রীয় শোক ঘোষণা করেছে কেন্দ্র সরকার, গোয়া সরকার গোটা রাজ্যের জন্য আগামী ৭ দিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা করেছে। আজ গোয়ার সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি, সরকারি দপ্তর ও আদালত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!