এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > গোটা উত্তরবঙ্গ গেরুয়া হাওয়ায় উত্তাল করতে বড় ভরসা প্রধানমন্ত্রীর ময়নাগুড়ির সভা, চূড়ান্ত প্রস্তুতি পদ্মশিবিরে

গোটা উত্তরবঙ্গ গেরুয়া হাওয়ায় উত্তাল করতে বড় ভরসা প্রধানমন্ত্রীর ময়নাগুড়ির সভা, চূড়ান্ত প্রস্তুতি পদ্মশিবিরে



আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি ময়নাগুড়ির চূড়াভান্ডারে সভা করতে আসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। চলতি সপ্তাহের এই সভার প্রস্তুতিকে ঘিরে কর্মতৎপরতা তুঙ্গে রয়েছে বিজেপি শিবিরে। গতকাল সকালেই প্রধানমন্ত্রীর সভার নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা বিশেষ বাহিনীর সদস্যরা সভার মাঠ ঘুরে দেখেছেন। ইতিমধ্যে শুরু করা হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর হেলিকপ্টার নামানোর জন্যে হেলিপ্যাড তৈরির কাজ। প্রধানমন্ত্রীর সভাস্থল থেকে প্রায় ১০০ মিটার দূরে তৈরি করা হচ্ছে তিনটি হেলিপ্যাড। এদিন সকালে সেই হেলিপ্যাড নির্মানের কাজটি কতদূর এগিয়েছে,সেটি খতিয়ে দেখে গেলেন বিজেপির রাজ্য সাধারণ সম্পাদক রাজু বন্দ্যোপাধ্যায় এবং জলপাইগুড়ি জেলার পর্যবেক্ষক দীপ্তিমান সেনগুপ্তরা।

পরিকল্পনামাফিক দ্রুত গতিতেই প্রধানমন্ত্রীর সভার প্রস্তুতির কাজ এগোচ্ছে বলেই জানালেন রাজুবাবু। রাস্তা তৈরির কাজ থেকে শুরু করে মাইক বাঁধার কাজ, স্পেশাল প্রোটেকশনের গ্রুপের কাজকর্ম সবই জোরকদমে চলছে বলে জানালেন তিনি। এদিন চূড়াভান্ডার সভাস্থলেই প্রধানমন্ত্রীর সভা নিয়ে বৈঠক করেন বিজেপির জেলা নেতৃত্বরা। সভায় কতজন লোক জমায়েত করা হবে, কোন রাস্তা দিয়ে কীভাবে মাঠে প্রবেশ করানো হবে এই সংক্রান্ত একগুচ্ছ আলোচনা হয় বৈঠকে। তবে সভার অনুমতি বা হেলিপ্যাড তৈরি নিয়ে কোনো তথ্য এখনো জানানো হয় জেলা প্রশাসনের তরফ থেকে। জেলাশাসক শিল্পা গৌরী সারিয়া জানান, ‘আমাদের কাছে কোনো কিছু জানানো হয়নি’।

প্রধানমন্ত্রীর সভা প্রসঙ্গে দীপ্তিমানবাবু সংবাদমাধ্যমকে বলেন, পশ্চিমবঙ্গের সাধারণ মানুষ তৃণমূল সরকার আর চায় না। আর সমস্ত ময়নাগুড়ির মানুষই প্রধানমন্ত্রীর সভার পক্ষে রয়েছে বলে জানালেন তিনি। তাই ময়নাগুড়িতে তৃণমূলের বিজেপির সভায় বাধা দেওয়ার প্রয়াস সফল হবে না বলেও জানিয়ে দিলেন তিনি। বিজেপি নেতা আরো জানালেন, রাজ্যে বিজেপির বাড়বাড়ন্ত দেখে আসলে তৃণমূল ভয় পেয়ে গিয়েছে, তাই বিজেপি সভা বানচাল করতে নানানরকম অসৎ পন্থা অবলম্বন করছে জোড়াফুল শিবির। কখনো সভার অনুমতি দিচ্ছে না, কখনো আবার বিজেপি নেতা-মন্ত্রীদের হেলিকপ্টার নামার অনুমতি দেওয়া হচ্ছে না।

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

দীপ্তিমানবাবুর আরও অভিযোগ, এমনকি দেশের প্রধানমন্ত্রীর মতো একজন ব্যক্তিত্বের হেলিকপ্টার নামানো নিয়ে টালবাহানা করছে প্রশাসন। তবে যাতে কোনো সমস্যা না হয় তার জন্যে সড়কপথেও প্রধানমন্ত্রী এবং অন্যান্য কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের বাগডোগরা বিমানবন্দর থেকে আনানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। অন্যদিকে রাজুবাবুর বক্তব্য, ‘আমাদের বিশ্বাস মানুষ যেভাবে বিজেপিকে চাইছে তাতে এরাজ্যে আগামীতে বিজেপি ভালো ফল করবে’। প্রসঙ্গত, এদিন প্রধানমন্ত্রীর সভা সফল করার জন্যে ময়নাগুড়ি হাইস্কুল লাগোয়া মাঠ থেকে বিরাট মিছিলের ডাক দেয় বিজেপি’র জলপাইগুড়ি জেলা ও ময়নাগুড়ি মণ্ডল কমিটি।

বিজেপি’র জলপাইগুড়ি জেলা সম্পাদক অনুপ পাল বলেন, শুক্রবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সভায় ব্যাপক হারে লোক জমায়েত হতে চলেছে। প্রধানমন্ত্রীর পদধূলি ময়নাগুড়ি গর্বিত হবে বলেই জানালেন তিনি। উল্লেখ্য, আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি প্রধানমন্ত্রীর পাশাপাশি একই মঞ্চে উপস্থিত থাকবেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়, সুরিন্দর সিং আলুওয়ালিয়া, দিলীপ ঘোষ, মুকুল রায় ও অন্যান্য নেতারা। বিজেপির অভ্যন্তরীণ রিপোর্ট বলছে, আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে, দার্জিলিং বাদে উত্তরবঙ্গের প্রতিটি আসন বেশ সম্ভবনাময়। আর তাই প্রধানমন্ত্রীর এই সভা থেকেই লোকসভা নির্বাচনের জন্য দামামা বাজিয়ে দিতে মরিয়া গেরুয়া শিবির।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!