এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কেন এখনই ছাত্রভোট সম্ভব নয় জানালেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চ্যাটার্জী

কেন এখনই ছাত্রভোট সম্ভব নয় জানালেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চ্যাটার্জী

Priyo Bandhu Media


শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় রাজ্যের বিভিন্ন কলেজের ছাত্র নির্বাচনের সময় স্থির করলেও সেইসময় ছাত্রভোট সম্ভব কিনা,সেই প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে শিক্ষা মহলে।
রাজনৈতিক শিবিরের মতে ৩১শে জানুয়ারির মধ্যে না হলে চলতি শিক্ষাবর্ষে ছাত্র নির্বাচন সম্ভব নয়। এর প্রধান কারণ পঞ্চায়েত ভোট আর পরপর পরীক্ষা। জানুয়ারি তে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাণিজ্য শাখার স্নাতক স্তরের সেমেস্টার পরীক্ষা, মার্চ থেকে এপ্রিল পর্যন্ত চলবে মাধ্যমিক ও উচ্চ-মাধ্যমিক। তারপর শুরু হবে কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের পালার সাথে পঞ্চায়েত ভোট। এদিকে পার্থবাবু মঙ্গলবার জানান যে বিজ্ঞপ্তির মানে এই নয় যে ৩১শে জানুয়ারির মধ্যেই ভোট করাতে হবে যা অনিশ্চয়তার মেঘ আরো ঘনিয়ে দেয়।
এদিন বারাসাত তৃণমূল ছাত্র পরিষদের উত্তর ২৪ পরগনা জেলা সম্মেলনে পার্থবাবু জানান গতবার ৩১ জানুয়ারির মধ্যে ছাত্র ভোট শেষ হয়েছিল। এবার উচ্চ-মাধ্যমিক পরীক্ষার পরেই দিন ঘোষণা করা হবে।
রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ও শিক্ষামন্ত্রী দু’জনেই ছাত্রনেতাদের সতর্ক করে দিয়েছেন যে কলেজের ভিতর বহিরাগত দের বন্দুকবাজি চলবে না।
আবার রাজ্যের বিভিন্ন কলেজে অনলাইনে ভর্তি নিয়ে বিতর্ক এবং সংসদের সদস্যদের বিরুদ্ধে টাকা নেওয়ার অভিযোগ সম্পর্কে শিক্ষামন্ত্রী কলেজের সার্বিক উন্নয়নে জোর দেওয়ার কথা এবং মেধার ভিত্তিতেই ভর্তির আশ্বাস দেন। সংসদের কেউ হস্তক্ষেপ করলে তার রেজিস্ট্রেশন বাতিল করা হবে বলেও জানিয়ে রাখেন পার্থবাবু।
মাধ্যমিক ও উচ্চ-মাধ্যমিক পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁস সম্পর্কে তাঁর বক্তব্য, “শিক্ষক দের প্রতি সরকারের পূর্ণ আস্থা রয়েছে। সব পেশাতেই কিছু লোক আছেন যারা নিয়মের বাইরে গিয়ে কাজ করে পেশাটা কে কলুষিত করেন। এ ব্যাপারে আরো সাবধানতা অবলম্বন করতে পর্ষদ ও সংসদ কে জানিয়েছি।” কলেজের গোলমাল সম্পর্কে তিনি জানান, “কলেজের অধ্যক্ষেরা সম্মানীয় ব্যক্তি। তাঁদের ঘেরাও করে নয়, সম্মান দিয়ে রাজনীতি করতে হবে।”

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!