এখন পড়ছেন
হোম > অন্যান্য > অবশেষে খুঁজে পাওয়া গেল করোনার উৎস? কিন্তু কোথায়?

অবশেষে খুঁজে পাওয়া গেল করোনার উৎস? কিন্তু কোথায়?



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – কিছুদিন আগেই উহানে গিয়ে করোনা ভাইরাসের উৎস সন্ধানে বেজিং সম্মতি দিয়েছিল বলে জানা গিয়েছিল। আর সেই নিয়েই চমকে দেওয়া তথ্য সামনে এসেছে তদন্তকারী কর্মকর্তাদের। সেখানে চিনের উহান শহরের ল্যাবরেটরি থেকেই যে করোনাভাইরাস সংক্রমণ হয়েছিল, সেই অভিযোগই এনেছে আমেরিকা। সেখানে যদিও উহানের কাঁচা বাজার থেকে করোনা ছড়িয়েছে কিনা সেই বিষয়ে তথ্য জানতে পারেনি তদন্তকারী সংস্থা। তবে এরই মধ্যে আমেরিকা দাবি করেছে যে বাজার থেকে কোভিড ছড়ানোর তত্ত্বটি আসলে ভুয়ো।

সেক্ষেত্রে যদিও এরআগেও ট্রাম্প বা আমেরিকার স্বরাষ্ট্র সচিবের তরফে এমনটা দাবি করা হয়েছিল, সেখানে WHO-এর আধিকারিকদের তদন্তের পর উহানের কাঁচা বাজারই ভাইরাসের উৎস বা গবেষণাগার থেকে সংক্রমণ ছড়িয়েছে, এই বিষয়ে কোনও তথ্য পাওয়া যায়নি বলেই জানা গেছে। যদিও এর মধ্যে আমেরিকা দাবি করেছিল যে বেজিং উদ্দেশ্যপূর্ণভাবে সমস্ত বিষয়টিকে আড়াল করার চেষ্টা করছে।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

সেইসঙ্গে মার্কিন স্বরাষ্ট্র দফতরের তরফে প্রকাশিত বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, অতীতেও বহুবার চিন ও অন্যত্র গবেষণাগার থেকে ভাইরাস সংক্রমনের ঘটনা ঘটেছে। সেকশনে এর আগে বেজিংয়ের এক ল্যাবরেটরি থেকে সার্স ভাইরাস ছড়িয়ে পড়া ঘটনার উল্লেখ করে ৯ জনের অসুস্থ হয়ে পড়ার কথাও জানান হয়েছে। আর যেহেতু উহানের গবেষণাগারে বাদুড়বাহিত ভাইরাস RaTG13 নিয়ে কাজ চলছিল, যার সঙ্গে কোভিড সৃষ্টিকারী ভাইরাসের ৯৬.২% মিল রয়েছে, তাই এক্ষেত্রে আমেরিকার এহেন দাবি করার যথেষ্ট কারণ রয়েছে বলেও বিবৃতিতে জানান হয়েছে।

বস্তুত, গতবছর থেকেই করোনা ভাইরাসের মারণ কামড়ে গোটা বিশ্ব কার্যত স্তব্ধ হয়েছে। বিশ্বের তাবড় তাবড় দেশের রাতের ঘুম উড়িয়েছে কভিড-১৯ ভাইরাস। তবে শুরুর দিন থেকেই এই ভাইরাসের উৎপত্তি নিয়ে বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছে চিন। চীনের উহান প্রদেশের, বন্য পশু কেনাবেচার একটি মার্কেট থেকেই নাকি এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ে মানুষের মধ্যে বলে অনুমান করেন বিজ্ঞানীরা। কিন্তু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশ বরংবার দাবি করেছে, এই ভাইরাস চিনের সৃষ্টি এবং তারা এই ব্যাপারে তদন্তও দাবি করে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!