এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > পুরুলিয়া-ঝাড়গ্রাম-বাঁকুড়া > ভুল বুঝিয়ে পঞ্চায়েতে জিতেছে, টাকা ছড়িয়ে জিততে চায় লোকসভায় – পুরুলিয়াতে বিজেপির বিরুদ্ধে প্রচার তৃণমূলের

ভুল বুঝিয়ে পঞ্চায়েতে জিতেছে, টাকা ছড়িয়ে জিততে চায় লোকসভায় – পুরুলিয়াতে বিজেপির বিরুদ্ধে প্রচার তৃণমূলের



গত পঞ্চায়েত নির্বাচনে সারা রাজ্যে তৃণমূল ভালো ফল করলেও জঙ্গলমহলের জেলাগুলিতে তৃণমূলের ঘাড়ের উপরে নিঃশ্বাস ফেলেছে বিজেপি। গ্রাম পঞ্চায়েত, পঞ্চায়েত সমিতি এবং জেলা পরিষদের বেশকিছু আসন নিজেদের দখলে নিয়ে শাসকদলের উদ্দেশ্যে কার্যত চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিতে দেখা গেছে গেরুয়া শিবিরকে। আর বিগত পঞ্চায়েত নির্বাচনের সেই তিক্ত অভিজ্ঞতার মুহূর্তকে স্মরণ করে এই লোকসভা নির্বাচনে ফের যাতে সেই পুরুলিয়া বিরোধীদের বিজেপির দখলে না যায় তার জন্য সেখানে জোর প্রচারে পর্ব চালাচ্ছেন তৃণমূলের নেতাকর্মীরা।

ইতিমধ্যেই নির্বাচনী প্রচারে বিজেপির বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ তুলে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাদের সুখে দুঃখে পাশে থাকবেন বলে এবারের নির্বাচনে তৃণমূলকে ভোট দেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছে ঘাসফুল শিবিরের নেতারা। সূত্রের খবর, বুধবার পুরুলিয়ার বাঘমুন্ডির মাঠায় তৃণমূল প্রার্থীর সমর্থনে একটি নির্বাচনী জনসভায় উপস্থিত হন তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদ শান্তনু সেন।

যেখানে উপস্থিত ছিলেন পুরুলিয়া জেলা পরিষদের সহ-সভাধিপতি প্রতিমা সোরেন, জেলা পরিষদের মেন্টর অঘোর হেমব্রম, পুরুলিয়া জেলা তৃণমূলের সম্পাদক দিব্যজ্যোতি প্রসাদ সিংহদেও, পুরুলিয়া জেলা তৃণমূলের যুব সভাপতি সুশান্ত মাহাতো সহ অন্যান্যরা। আর সেখানেই বক্তব্য রাখতে গিয়ে পুরুলিয়া জেলা তৃণমূলের সম্পাদক দিব্যজ্যোতি প্রসাদ সিংদেও বলেন, “গত 2011 সালের আগে জঙ্গলমহলের এলাকার সাধারণ মানুষের যা অবস্থা ছিল, তার থেকে এখন যে উন্নতি হয়েছে তা এবার ভাববার সময় এসেছে। আপনারা বিজেপির অপপ্রচার শুনে বিজেপির সঙ্গে থাকবেন, নাকি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নের সঙ্গে থাকবেন তা আপনাদেরকেই ঠিক করতে হবে।”


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

অন্যদিকে এদিনের সভায় সাঁওতালি ভাষায় বক্তব্য রেখে আদিবাসীদের উন্নয়নের রাজ্য সরকার যেভাবে কাজ করেছে তার কথা সাধারণ মানুষের কাছে তুলে ধরেন পুরুলিয়া জেলা পরিষদের সহ-সভাপতি প্রতিমা সোরেন। আর এরপরই বক্তব্য রাখতে উঠে বিজেপি এই কেন্দ্রে জয়ী হবার জন্য বিভিন্ন এলাকায় টাকা ছড়াচ্ছে বলে অভিযোগ করেন তৃনমূলের রাজ্যসভার সাংসদ শান্তনু সেন।

তিনি বলেন, “গত পঞ্চায়েতে এই এলাকা সহ গোটা পুরুলিয়া জেলায় বিজেপি সাধারণ মানুষকে ভুল বুঝিয়ে কিছু এলাকায় ভালো ফলাফল করেছিল। তবে সাধারণ মানুষ নিজেদের ভুল বুঝতে পেরে তৃণমূলে ফিরে আসছেন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও বিজেপির অনেক নেতা হেলিকপ্টারে করে টাকা ভর্তি ট্রাঙ্ক নিয়ে এসে ওই টাকা দিয়ে দিয়ে ভোটে জিততে চাইছে। আপনারা ওই টাকা নিয়ে নিন, কিন্তু ভুলেও বিজেপিকে ভোট দেবেন না। কারণ একদিনের টাকায় সারা বছর বিভিন্ন বিপদে-আপদে ভালো থাকা সম্ভব নয়। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সাধারণ মানুষের নিত্যদিনের সমস্যা দূর করছেন। তাই আপনারা এবার তৃনমূলকেই সমর্থন করুন।”

অন্যদিকে এবারের নির্বাচনে বিজেপি, বাভ এবং কংগ্রেস এক হয়ে লড়ছে বলেও জানিয়ে দেন তৃনমূলের এই রাজ্যসভার সাংসদ। এদিকে এদিনের এই সভায় বাঘমুন্ডি পঞ্চায়েত সমিতির প্রাক্তন সদস্য পার্বতী সিং সর্দার কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেন। এছাড়াও বিভিন্ন দল থেকে মোট 350 জন ব্যক্তি তৃণমূলের পতাকা তুলে নেন। আর তাদের দলে স্বাগত জানান শান্তনু সেন।

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, পুরুলিয়ায় গত পঞ্চায়েত নির্বাচনে বিজেপির উত্থান অনেকটাই ভাবিয়ে তুলেছে শাসক দলকে। আর তাইতো সেই পুরুলিয়ায় এসে বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের নিজেদের দলে যোগদান করিয়ে বিজেপি বিভিন্ন এলাকায় টাকা ছড়িয়ে ভোট কিনতে চাইছে বলে অভিযোগ তুলে সারা বছর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়ন সকলের কাছে পৌঁছে যাবে বলে নিজেদের ভোটব্যাংকে শক্ত করার মরিয়া চেষ্টা করলেন তৃণমূল সাংসদ শান্তনু সেন বলে মত বিশেষজ্ঞ মহলের। তবে শান্তনুবাবুর এই আহ্বানে আদৌ পুরুলিয়ার মানুষ সাড়া দেয় কিনা তা দেখা যাবে আগামী 23 মে ভোটবাক্স খোলার পরই।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!