এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > পঞ্চায়েত মিটতেই দলীয় কর্মসূচিতে গরহাজির জনপ্রতিনিধিরা, ক্ষোভ উগরে দিলেন হেভিওয়েট মন্ত্রী

পঞ্চায়েত মিটতেই দলীয় কর্মসূচিতে গরহাজির জনপ্রতিনিধিরা, ক্ষোভ উগরে দিলেন হেভিওয়েট মন্ত্রী



কথায় আছে, “কাজের সময় কাজি আর কাজ ফুরালেই পাজি।” এবার সেই প্রবাদপ্রবচনের সাথে বিস্তর মিল পাওয়া গেল রবিবার বর্ধমান শহরের সংস্কৃতি লোকমঞ্চে আয়োজিত জেলা তৃনমূল মহিলা কংগ্রেসের প্রশিক্ষন শিবিরের অনুষ্টানে। সূত্রের খবর, এদিনের এই অনুষ্টানে জেলা তৃনমূল সভাপতি তথা মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ, দুর্গাপুর-বর্ধমান লোকসভার সাংসদ মমতাজ সংঘমিত্রা, বিধায়ক অলোক মাঝি, নার্গিস বেগম, জেলা তৃনমূল মহিলা কংগ্রেসে সভানেত্রী তৃষ্না সরকার সহ অন্যান্যরা উপস্থিত থাকলেও সেখানে দেখাই যায়নি সদ্য পঞ্চায়েত নির্বাচনে জয়ী দলের সদস্যদের।

আর সেটা নজড়ে আসলেন এদিন তা নিয়ে মুখ খোলেন স্বপন দেবনাথ। সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি বলেন, “পঞ্চায়েতের মহিলা প্রধান, উপপ্রধান অনেকেই হাজের হননি। এভাবে চলবে না। নির্বাচন আসলে টিকিট নেওয়ার জন্য ভিড় করব আর দলের কর্মসূচীতে আসব না! এরকম কর্মীদের তৃনমূলে কোনোও জায়গা নেই।” পাশাপাশি এদিন জয়ী সদস্যদের হালকা খোঁচা দিয়ে তৃনমূল জেলা সভাপতি তথা মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ বলেন, “নির্বাচনের ফলাফল বেরোনোর পর অনেকে নেতার পেছনে ঘুরছেন।মনে রাখবেন, আপনারা দলের নির্দেশে প্রার্থী হয়েছেন। তাই দলীয় নির্দেশ আপনাদেরকে মানতেই হবে।”

এদিকে জেলা তৃনমূলের সভাপতি যখন দলের সদস্যদের অনুপস্থিতি নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করছেন তখন এই সভায় তীব্র হল বিজেপি বিরোধীতার সুরও। সারা দেশে পেট্রোল ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধি নিয়ে কেন্দ্রের সমালোচনা করার পাশাপাশি আগামী 26 তারিখ ইসলামপুরের ঘটনায় বিজেপি যে বনধ ডেকেছে তা রুখে দিতে প্রদেশ তৃনমূল মহিলা কংগ্রেসের কার্যকরী সভানেত্রী মালা রায় বলেন, “ধর্ম নিয়ে রাজনীতি করে দাঙ্গা লাগিয়ে এখন বনধ করছে বিজেপি। আপনারা এই বনধ রুখে দিন।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

পাশাপাশি দেশে আচ্ছে দিনের স্বপ্নে মানুষকে ভাওতা দেওয়ায় এদিন প্রধানমন্ত্রীকেও তীব্র কটাক্ষ করেন তিনি। সূত্রের খবর, এদিনের এই সভায় বর্ধমান জেলা বিজেপির সাধারন সম্পাদিকা মৌসুমী দে তৃনমূলে যোগদান করেন। তাঁর হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন মালা রায় এবং জেলা তৃনমূল সভাপতি স্বপন দেবনাথ। তবে মৌসুমী দে বিজেপির কেউ নয় বলে এদিন পাল্টা দাবি করেছে জেলা বিজেপির যুব সভাপতি শ্যামল রায়।

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!