এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > “জোর” করে দখল করা একাধিক পঞ্চায়েতে এবার ফুটতে চলেছে পদ্ম? ক্রমশ বাড়ছে জল্পনা

“জোর” করে দখল করা একাধিক পঞ্চায়েতে এবার ফুটতে চলেছে পদ্ম? ক্রমশ বাড়ছে জল্পনা



লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যে তৃণমূলের ভরাডুবি এবং বিজেপির প্রবল উত্থানের পরই শাসক দল ভেঙে একের পর এক জনপ্রতিনিধি গেরুয়া শিবিরে নাম লেখাতে শুরু করেন। যাতে প্রবল অস্বস্তিতে তৃণমূল। আর তৃণমূলের সেই অস্বস্তি বাড়িয়ে আলিপুরদুয়ারে শাসকদলের দখলে থাকা 25 টি গ্রাম পঞ্চায়েত বিজেপি নিজেদের দখলে নেওয়ার জন্য ব্লু প্রিন্ট তৈরি করা শুরু করল।

বস্তুত, বিগত পঞ্চায়েত নির্বাচনে আলিপুরদুয়ারের বেশিরভাগ ত্রিশঙ্কু পঞ্চায়েত শাসক দল নিজেদের দখলে নিয়েছিল। কিন্তু এবার লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি ভালো ফল করায় সেই ত্রিশঙ্কু পঞ্চায়েতগুলো নিজেদের দখলে নেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছে। জানা গেছে, তৃণমূলের দখলে থাকায় 25 টি গ্রাম পঞ্চায়েতের মধ্যে কুমারগ্রাম ব্লকে সব থেকে বেশি এবং তারপর ফালাকাটা ও মাদারিহাটে বেশি পঞ্চায়েত রয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত পঞ্চায়েত নির্বাচনে আলিপুরদুয়ারের 66 টি পঞ্চায়েতের মধ্যে বিজেপি আটটি, বাম একটি, কংগ্রেস একটি এবং তৃণমূল 46 টি গ্রাম পঞ্চায়েত দখল করে। তবে বাকি 13 টি গ্রাম পঞ্চায়েত ত্রিশঙ্কু হয়ে যায়। কিন্তু নির্বাচন মিটতেই বিরোধী দলের সদস্যদের ভাঙিয়ে শাসক দল সেই 13 টি পঞ্চায়েতেই বোর্ড গঠন করে। আর লোকসভা ভোটে সারা রাজ্যের পাশাপাশি আলিপুরদুয়ার লোকসভা কেন্দ্র বিজেপি দখল করায় এবার সেই ত্রিশঙ্কু পঞ্চায়েতগুলো নিজেদের দখলে আনতে উদ্যোগী তারা।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

বিজেপি সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই তাদের তরফে একটি টিম তৈরি করে গোপনে গোপনে বিভিন্ন জায়গায় আলোচনা চালানো হচ্ছে। এমনকি অনেক পঞ্চায়েতে আশ্চর্যজনকভাবে এই লোকসভা ভোটের ফলাফল প্রকাশের পর শাসক দলের সদস্যদের সেইভাবে যেতেও দেখা যাচ্ছে না। তাহলে কি অবশেষে আলিপুরদুয়ারের সিংহভাগ পঞ্চায়েত এবার বিজেপির দখলে চলে যাবে!

এদিন এই প্রসঙ্গে আলিপুরদুয়ার জেলা বিজেপির সভাপতি গঙ্গাপ্রসাদ শর্মা বলেন, “শাসকদলের হাতে থাকা অনেক পঞ্চায়েত সদস্যরাই আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছে। কিন্তু আমরা তৃনমূলের হাতে থাকা শুধু 25 টি গ্রাম পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠনের লক্ষ্যে এগোচ্ছি। এক সপ্তাহের মধ্যেই এই পঞ্চায়েতের শাসকদলের সদস্যদের সঙ্গে আমাদের আলোচনা চূড়ান্ত হবে।”

অন্যদিকে এই প্রসঙ্গে জেলা তৃণমূল সভাপতি মোহন শর্মা বলেন, “বিজেপি টাকা ছড়িয়ে আমাদের হাতে থাকা পঞ্চায়েতগুলোর দখল নিতে চাইছে। কিন্তু পঞ্চায়েত আইন মারফত আড়াই বছর আগে কোনো পঞ্চায়েতেই অনাস্থা না যায় না। কিন্তু তা সত্ত্বেও বিজেপির এই উদ্যোগের আশঙ্কা উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না।”

সব মিলিয়ে এবার ভোটের ফলাফল প্রকাশ হতেই এবং আলিপুরদুয়ারে পদ্ম ফুটতেই বিগত পঞ্চায়েতে ত্রিশঙ্কু হয়ে যাওয়া পঞ্চায়েতগুলি তৃণমূল নিজেদের দখলে নিলে এবার সেই পঞ্চায়েত দখলের ব্লুপ্রিন্ট সাজিয়ে গেরুয়া শিবির তা নিজেদের বাগে আনতে পারে কিনা এখন সেদিকেই তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!