এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > পাঁচ সাংসদের দলবদলের জল্পনা, মুখ্যমন্ত্রীর কৌশলে ব্যাপক চাপে বিরোধী নেতা!

পাঁচ সাংসদের দলবদলের জল্পনা, মুখ্যমন্ত্রীর কৌশলে ব্যাপক চাপে বিরোধী নেতা!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট –  একসময় বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারকে চাপে রাখতে কৌশলে শুরু করেছিলেন চিরাগ পাসওয়ান। কিন্তু তার সেই কৌশল দীর্ঘস্থায়ী হল না। লোক জনশক্তি পার্টি গঠন করে বিহারের শাসক দলকে ক্রমাগত চাপে ফেলতে শুরু করেছিলেন তিনি। কিন্তু এবার সেই লোক জনশক্তি পার্টির সাংসদদের দলবদলের জল্পনা ক্রমশ বাড়তে শুরু করল।

জানা গেছে, ইতিমধ্যেই চিরাগ পাসওয়ানের দলের পাঁচ সাংসদ যাতে লোক জনশক্তি পার্টির সাংসদ হিসেবে বিবেচনা করা না হয়, তার জন্য লোকসভার অধ্যক্ষের কাছে একটি আবেদন জানিয়েছেন। আর এর ফলেই যথেষ্ট চাপে পড়ে গিয়েছেন চিরাগ পাসওয়ান। রাজনৈতিক মহলে জল্পনা তৈরি হয়েছে, খুব দ্রুত এই পাঁচ সাংসদ জেডিইউ শিবিরে নাম লেখাতে পারেন। যার জেরে লোক জনশক্তি পার্টি আরও অপ্রাসঙ্গিক হয়ে পড়বে বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত বছরের নভেম্বর মাসে বিহার বিধানসভা নির্বাচনের সময় নীতীশ কুমারকে চেপে রেখেছিল লোক জনশক্তি পার্টি। যেখানে লোক জনশক্তি পার্টির সুপ্রিমো চিরাগ পাসওয়ান জানিয়ে দিয়েছিলেন, যে যে বিধানসভা কেন্দ্রে নীতীশ কুমারের দল প্রার্থী দেবে, সেখানে তারা জেডিইউ প্রার্থীদের বিরুদ্ধে লড়াই করবে। তবে বিজেপির বিরুদ্ধে সেভাবে কোনো ক্ষোভ ছিল না লোক জনশক্তি পার্টির। এদিকে লোক জনশক্তি পার্টির এই ধরনের প্রতিহিংসাপরায়ণ আচরণ নিয়ে খুব একটা খুশি ছিলেন না নীতীশ কুমার।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

আর এবার তার বদলা নেওয়ার কৌশল গ্রহণ করলেন তিনি। যেখানে চিরাগ পাসওয়ানের দলের পাঁচ সাংসদের দলবদলের জল্পনা শুরু হতেই তারা জেডিইউ শিবিরে যোগ দিতে পারেন বলে গুঞ্জন তৈরি হয়েছে। আর যদি এই গুঞ্জন সত্যি হয়, তাহলে নীতীশ কুমার চিরাগ পাসওয়ান এবং তার দল লোক জনশক্তি পার্টিকে যথেষ্ট চাপে রাখবেন বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

স্বাভাবিকভাবেই বর্তমানে লোক জনশক্তি পার্টির পাঁচ সাংসদ ইতিমধ্যেই লোকসভার অধ্যক্ষের কাছে আবেদন করে তাদের যাতে এই রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধি হিসেবে ধরা না হয়, তার জন্য আবেদন করেছেন। যার ফলে তারা খুব দ্রুত দলবদল করে নীতীশ কুমারের সাথে হাত মেলাতে পারেন বলে মনে করা হচ্ছে।

স্বভাবতই জল্পনা ক্রমশ বাড়তে শুরু করেছে। যদি এই দলবদল বাস্তব আকার নেয়, তাহলে বিহারের রাজনৈতিক সমীকরণ বদল হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হতে পারে। সব মিলিয়ে গোটা পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, সত্যি সত্যি চিরাগ পাসওয়ানের দল ভেঙে পাঁচ সাংসদ নীতীশ কুমারের হাত ধরেন কিনা, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!