এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > পালাবদলের পালা ! ভোটের আগে পরিবর্তনের স্বপ্নে দলবদলুরা তৃণমূলে ফিরতে চেয়ে হত্যে দিচ্ছেন?

পালাবদলের পালা ! ভোটের আগে পরিবর্তনের স্বপ্নে দলবদলুরা তৃণমূলে ফিরতে চেয়ে হত্যে দিচ্ছেন?



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – বিধানসভা নির্বাচনের আগে বিজেপির পক্ষ থেকে লাগাতার প্রচার করা হয়েছিল, এবার তারা রাজ্যের ক্ষমতা দখল করবে। এমনকি দু’শোর বেশি আসন নিয়ে বিজেপি বাংলায় প্রতিষ্ঠিত হবে বলে দাবি করেছিলেন দলের রাজ্য থেকে শুরু করে কেন্দ্রীয় নেতারা। সেই মত করে তৃণমূলের অনেক হেভিওয়েট নেতা থেকে শুরু করে সাংসদ এমনকি বিধায়করা যোগ দিতে শুরু করেছিলেন ভারতীয় জনতা পার্টিতে।

আর তৃণমূল থেকে যোগ দেওয়া বিধায়কের হাত ধরে তার অনুগামী থেকে শুরু করে ঘাসফুল শিবিরের অনেক নেতা-কর্মী এমনকি নিচুতলার জনপ্রতিনিধিরাও বিজেপির ছাতার তলায় চলে এসেছিলেন। কিন্তু বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির লক্ষ্য পূরণ হয়নি। 200 আসন দখল করা তো দূরের কথা, 77 টির বেশি আসন দখল করতে পারে নি গেরুয়া শিবির আর তারপর থেকেই তৃনমূল ছেড়ে যারা বিধানসভা নির্বাচনের আগে ভারতীয় জনতা পার্টিতে এসেছিলেন, তারা অনেকটাই হতাশ হয়ে পড়েছেন।

ক্ষমতা দখল করবে বিজেপি, এই বিষয়টি নিশ্চিত হয়েই অনেকে যে গেরুয়া শিবিরে নাম লিখিয়েছিলেন, তা বর্তমানে পরিষ্কার হয়ে যাচ্ছে। তাই ভোটের আগে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে নাম লেখানো অনেক কর্মী সমর্থকরা আবার তৃণমূলে ফিরতে চাইছেন। বর্তমানে তৃণমূল বিধায়কের বাড়ির সামনে জমায়েত করতে শুরু করেছেন অনেকে।

যার ফলে একাংশ বলছেন, এবার অবশেষে খেলা ঘুরতে শুরু করেছে। তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যাওয়া নেতাকর্মীদের এখন ঘুম ভেঙেছে। তাই তৃনমূল জয়লাভ করার পর আবার বিজেপি ছাড়তে চেয়ে এখন তৃণমূল বিধায়কের শরণাপন্ন হতে শুরু করেছেন। যা ভারতীয় জনতা পার্টির কাছে খুব একটা সুখকর নয় বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

বলা বাহুল্য, পাণ্ডবেশ্বর বিধানসভা কেন্দ্র থেকে এবার বিজেপির প্রার্থী হয়েছিলেন ভোটের আগে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়া জিতেন্দ্র তিওয়ারি। কিন্তু তাকে পরাজিত করে জয়লাভ করেন তৃণমূল প্রার্থী নরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তী। কিন্তু এখন সেই নরেন্দ্রনাথবাবুর দ্বারস্থ হতে শুরু করেছেন বিজেপিতে যাওয়া তৃণমূলের প্রাক্তন অনেক নেতাকর্মী। অর্থাৎ এক সময় বিজেপির নেতৃত্বে রাজ্যে ক্ষমতা দখল হবে বলে মনস্থির করে তৃণমূলে থাকতে না পেরে এই সমস্ত নেতাকর্মীরা গেরুয়া শিবিরে যোগদান করেছিলেন।

তবে তাদের সেই স্বপ্ন বাস্তব না হওয়ার কারণে ভবিষ্যতের কথা মাথায় রেখে এখন আবার তৃণমূলে ফেরার জন্য রীতিমত উদগ্রীব হয়ে উঠেছেন তারা। একাংশের প্রশ্ন, যদি এভাবে আবার ঘর ওয়াপসি হতে শুরু করে, তাহলে বিজেপি কিভাবে তৃণমূলের বিরুদ্ধে লড়াই করবে! যদি বিভিন্ন জায়গায় এই এক প্রবণতা চলতে থাকে, তাহলে শাসকদলের বিরুদ্ধে লড়াই করতে গিয়ে তাদেরকে যে অনেকটাই হোঁচট খেতে হবে, সেই ব্যাপারে নিশ্চিত বিশেষজ্ঞরা।

তবে যে বিজেপি নিজেদের সাংগঠনিক এবং শৃঙ্খলা পরায়ন দল বলে দাবি করে, সেই বিজেপি যদি নিজেদের নেতাকর্মীদের নিজেদের দিকে আটকে রাখতে না পারে, তাহলে তারা তাদের ক্ষেত্রে বড় ব্যর্থতার কারণ বলেই দাবি করছেন একাংশ। এদিন এই প্রসঙ্গে পাণ্ডবেশ্বর বিধানসভা কেন্দ্রের দুর্গাপুর- ফরিদপুর ব্লক তৃণমূল সভাপতি সুজিত মুখোপাধ্যায় বলেন, “এই ব্লক থেকে কোনো পঞ্চায়েত সদস্য বা প্রধান সহ কোনো নেতা ভোটের আগে বিজেপিতে যোগদান করেননি। যে সব কর্মীরা গিয়েছিলেন, তারা ফোন করেছেন এবং অন্যের মাধ্যমে দলে ফিরতে যোগাযোগ করছেন।”

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

এদিকে এই ব্যাপারে পাণ্ডবেশ্বরের নবনির্বাচিত তৃণমূল বিধায়ক নরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তী বলেন, “প্রতিদিন আমার বাড়ির সামনে কয়েকশো মানুষ আসছেন। তারা আবেদন করছেন তৃণমূলে ফেরার জন্য। পাশাপাশি ফেসবুকে দলবদলু বিজেপি নেতা কর্মীরা ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট পাঠাচ্ছেন। আমি ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট একসেপ্ট করেছি। তবে তাদের দলে যোগদান করানোর বিষয়টি নিয়ে এই মুহূর্তে কোনো আলোচনা করা হয়নি। দলীয় নেতৃত্বের সঙ্গে বৈঠক করে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে।” আর এখানেই প্রশ্ন, তাহলে কি গোটা বিষয়টি সত্যি?

তৃণমূলের প্রাক্তন নেতাকর্মীরা যারা বিজেপিতে যোগদান করেছিলেন, তারা কি এখন আবার তৃণমূলে ফিরে যেতে চাইছেন! কিন্তু এর আসল কারণ কি? তাহলে কি বিজেপি তাদের সঠিকভাবে আশ্রয় দিতে পারছে না? এদিন এই প্রসঙ্গে পশ্চিম বর্ধমান জেলা বিজেপি সম্পাদক অভিজিৎ দত্ত বলেন, “এই বিধানসভায় আমাদের কর্মীদের উপর অত্যাচার করছে তৃণমূল কংগ্রেস। বহু কর্মী ঘরছাড়া হয়েছে। তৃণমূল সাপ হয়ে কামড়াচ্ছে, আর ওঝা হয়ে ঝাড়ছে। বলছে, তৃণমূলের ঝাণ্ডা ধরো আর ঘরে ফিরে যাও।”

স্বাভাবিক ভাবেই গোটা ঘটনাকে কেন্দ্র করে এখন রীতিমত চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে রাজ্য রাজনীতিতে। ভোটের আগের পরিবর্তনের স্বপ্ন দেখা নেতাকর্মীরা তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করলেও, তাদের সেই স্বপ্ন পূরণ হয়নি। তাই তারা এখন আবার তাদের প্রাক্তন দল তৃণমূল কংগ্রেসে ফিরে যেতে চাইছেন। আর যদি এই সম্ভাবনা বাস্তব হয়, তাহলে তা যে বিজেপির কাছে যথেষ্ট অস্বস্তির কারণ হয়ে দাঁড়াবে, সেই ব্যাপারে নিশ্চিত রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। সব মিলিয়ে গোটা পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!