এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > পঞ্চায়েতের অভিজ্ঞতা থেকে রয়েছে প্রানভয়, কেন্দ্রীয় বাহিনী না থাকলে এজেন্ট হতে রাজি নন বিরোধী কর্মীরা

পঞ্চায়েতের অভিজ্ঞতা থেকে রয়েছে প্রানভয়, কেন্দ্রীয় বাহিনী না থাকলে এজেন্ট হতে রাজি নন বিরোধী কর্মীরা



বিগত পঞ্চায়েত নির্বাচনের ভয় এখনও তাড়া করে বেড়াচ্ছে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বিরোধী দলগুলোর নেতা কর্মীদের মধ্যে। আগামী ২৩ শে এপ্রিল বালুরঘাট লোকসভা কেন্দ্রের নির্বাচন। আর সেই নির্বাচনে প্রতি বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী না থাকলে শাসকের সন্ত্রাসের আঁচ পেতে শুরু করেছে বিরোধী দলগুলো। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, বিগত পঞ্চায়েত নির্বাচনে এই দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার সিংহভাগ বুথে শাসকদলের দুস্কৃতীরা বুথ দখল করে বিরোধীদের এজেন্ট বসতে দেয়নি বলে অভিযোগ ওঠে।

যেখানে বিরোধীদের তরফে নানা অভিযোগ তোলা হলে শেষ পর্যন্ত এখানকার বেশ কিছু বুথে পুনর্নির্বাচন হয় ঠিকই, কিন্তু সেইভাবে কোনো লাভ হয়নি। তাই এবার লোকসভা নির্বাচনে সেই শাসকের সন্ত্রাস যাতে আর না হয় এবং সমস্ত বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী দেওয়া যায় তার দাবি জানাতে শুরু করেছে বিরোধীরা। অনেকে বলছেন, অতীতের পঞ্চায়েত নির্বাচনের মত যদি পরিস্থিতি হয়, তাহলে বিরোধীরা এখানে এজেন্ট দিতে পারবে না। এদিন এই প্রসঙ্গে বালুরঘাট লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী সুকান্ত মজুমদার বলেন, “গত পঞ্চায়েতে আমাদের এজেন্টদের অধিকাংশ বুথে বসতেই দেওয়া হয়নি।”

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

তিনি আরও বলেন, “অনেক জায়গাতেই আমাদের কর্মীদের মেরে বের করে দেওয়া হয়েছে। যদি এবার সব বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকে তাহলে সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে।” অন্যদিকে এই প্রসঙ্গে বালুরঘাট লোকসভা কেন্দ্রের বাম প্রার্থী রণেন বর্মণ বলেন, “বিজেপি ও তৃনমূলের আঁতাত রয়েছে। এজেন্ট দিয়ে কিছুই হবে না। পঞ্চায়েতের মত ওরা এবারও ছাপ্পা দেবে।” তবে বিরোধীদের এই অভিযোগকে সম্পূর্ণ রূপে অস্বীকার করেছে তৃনমূল।

এদিন এই প্রসঙ্গে বালুরঘাট লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী অর্পিতা ঘোষ বলেন, “বিরোধীদের আর কোনো সংগঠন নেই। আসলে লোকবল না থাকার জন্যই ওরা এসব মিথ্যে অভিযোগ করছে। আমরা সকলকেই নির্ভয়ে ভোট দিতে যেতে বলছি।” বিরোধীদের স্পষ্ট অভিযোগ, গত পঞ্চায়েত নির্বাচনে বিরোধী দলের এজেন্ট সহ নেতা-কর্মীদের বাড়িতে ‘সাদা থান’ পাঠিয়ে মৃত্যুভয় পর্যন্ত দেখানো হয়েছিল – ফলে, কেন্দ্রীয় বাহিনী ১০০% বুথে না থাকলে, কিছুতেই সুষ্ঠু নির্বাচন করা সম্ভব নয়।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!