এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > কংগ্রেস > অধীর-গড়ে তৃণমূল ভেঙে শক্তি ফিরছে কংগ্রেসে! ভোট কাটাকুটিতে ফুটতে পারে পদ্মফুল? জল্পনা চরমে

অধীর-গড়ে তৃণমূল ভেঙে শক্তি ফিরছে কংগ্রেসে! ভোট কাটাকুটিতে ফুটতে পারে পদ্মফুল? জল্পনা চরমে



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – রাজনৈতিক উত্থান-পতন অত্যন্ত স্বাভাবিক ব্যাপার। কিন্তু কোনো একটা জায়গায় রাজনৈতিক স্থিরতা ধরে রাখা খুব একটা সহজ ব্যাপার নয়। অতীতে যাই হয়ে যাক না কেন, মুর্শিদাবাদ জেলায় যেদিন থেকে অধীর রঞ্জন চৌধুরীর দাপট শুরু হয়েছে, সেদিন থেকে শক্ত হাতে কংগ্রেসের সংগঠনকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে গিয়েছেন তিনি। আর যত তার প্রভাব বেড়েছে, ততই মুর্শিদাবাদ জেলায় কংগ্রেসের শক্তি বৃদ্ধি করেছেন সেই অধীরবাবু।

বহুবার চেষ্টা হয়েছে তার রাজনৈতিক ক্ষমতা খর্ব করার। কিন্তু তা সত্ত্বেও তিনি নিজের উত্থান ঘটিয়েছেন নিজের ক্যারিশমায়। বর্তমানে বিধানসভা নির্বাচনের আগে গোটা রাজ্যে মূল লড়াই তৃণমূল এবং বিজেপির মধ্যেই হতে চলেছে বলে দাবি করছে রাজনৈতিক মহল। কিন্তু মুর্শিদাবাদ জেলার চিত্রটা একটু অন্যরকম। তৃণমূল কংগ্রেস এই জেলায় কংগ্রেসের ক্ষমতা কেড়ে নিয়ে নিজেদের দিকে কংগ্রেসের ভোটব্যাঙ্ক আনার চেষ্টা করলেও, অধীর রঞ্জন চৌধুরী প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতি হওয়ার পর আবার নতুন করে এখানে কংগ্রেসের সংগঠনকে শক্তিশালী করে গড়ে তুলতে উদ্যোগী হয়েছেন। যার ফলে দিনকে দিন মুর্শিদাবাদ জেলায় কংগ্রেসের পালে আবার নতুন করে হাওয়া লাগতে শুরু করেছে বলে মনে করা হচ্ছে। যার ফলে মুর্শিদাবাদ জেলায় লড়াই যদি হয়, তাহলে কংগ্রেস এবং বিজেপির মধ্যেই সেই লড়াই হবে বলে দাবি করছে রাজনৈতিক মহল।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, বর্তমানে এই জেলায় তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে অনেকেই আবার কংগ্রেসের ফিরে আসতে শুরু করেছেন। সেদিক থেকে অধীর রঞ্জন চৌধুরীর শক্ত ঘাঁটিতে আবার নতুন করে শক্তি বৃদ্ধি হচ্ছে হাত শিবিরের। শুভেন্দু অধিকারী এই জেলায় তৃণমূল কংগ্রেসের দায়িত্বে থাকার সময় অধীর রঞ্জন চৌধুরীকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে একের পর এক পঞ্চায়েত থেকে শুরু করে পৌরসভা ভাঙিয়ে তা তৃণমূলের দখলে নিয়ে এসেছিলেন।

কিন্তু সেই শুভেন্দু অধিকারী মুর্শিদাবাদ জেলার দায়িত্ব থেকে সরে যাওয়ার পর তৃণমূলের সংগঠনে অনেকটাই ভাঙ্গন ধরতে শুরু করেছে বলে দাবি করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। সেদিক থেকে লোকসভার দলনেতা অধীর রঞ্জন চৌধুরীকে কংগ্রেস আবার প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির দায়িত্ব দেওয়ায় উজ্জীবিত হয়েছেন মুর্শিদাবাদ জেলার কংগ্রেসের নেতা কর্মীরা। তাই নতুন করে যে সমস্ত কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূলে চলে যাওয়া নেতারা কংগ্রেসের ওপর অভিমান করেছিলেন, তারা আবার অধীর বাবুর হাত ধরে কংগ্রেসে ফিরে আসতে শুরু করেছেন। ফলে এখানে তৃণমূল কংগ্রেস অনেকটাই ধরাশায়ী হবে আগামী বিধানসভা নির্বাচনে বলে মনে করছেন পর্যবেক্ষকরা।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

আর এই রাজনৈতিক সম্ভাবনার মাঝেই আর একটা বিষয় জোরালোভাবে ফুটে উঠতে শুরু করেছে। বিশেষজ্ঞদের মতে, কংগ্রেস এখানে তাদের শক্তি বাড়ালেও তৃণমূল কংগ্রেস এখন অনেকটাই অপ্রাসঙ্গিক। তাই তৃণমূল এই মুর্শিদাবাদ জেলায় আগামী বিধানসভা নির্বাচনে ভালো ফল করার চেষ্টায় মশগুল হয়ে কংগ্রেসের ভোটব্যাঙ্ক নিজেদের দখলে আনার চেষ্টা করতে পারে। সেদিক থেকে কংগ্রেস এবং তৃণমূলের ভোট কাটাকাটির জেরে ফায়দা তুলে নিতে পারে ভারতীয় জনতা পার্টি। সেদিক থেকে বিজেপি অধীর রঞ্জন চৌধুরীর শক্ত ঘাঁটি মুর্শিদাবাদে আগামী বিধানসভা নির্বাচনে ভালো লড়াই দেওয়ার জায়গায় পৌঁছে যাবে বলে মনে করছেন একাংশ।

তবে অনেকে আবার বলছেন, মুর্শিদাবাদ জেলায় বিজেপির অবস্থা খুব একটা ভালো নয়। কেননা কিছুদিন আগেই হুমায়ুন কবীরের মত বিজেপি নেতা গেরুয়া শিবির ছেড়ে যোগ দিয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেসে। শুধু তাই নয়, লোকসভার দলনেতা হওয়ার সুবাদে অধীর রঞ্জন চৌধুরী বারবার সংসদে এই বিজেপির বিরুদ্ধে সরব হচ্ছেন। সেদিক থেকে তার শক্ত ঘাঁটিতে বিজেপি কোনোমতেই দাগ ফোটাতে পারবে না বলে দাবি করছেন কংগ্রেসের নেতা কর্মীরা।

আর এত সব রাজনৈতিক সম্ভাবনার মাঝেও বিধানসভার ভোটবাক্সে কোন অংকের সঠিক প্রতিফলন হয়, তার দিকেই নজর থাকবে সকলের। তবে মুর্শিদাবাদ জেলার বর্তমান যে রাজনৈতিক চালচিত্র, তাতে কংগ্রেসের ব্যাপকমাত্রায় উত্থান, তার সঙ্গে তৃণমূলের চেষ্টা, আর কংগ্রেস- তৃণমূলের এই দ্বন্দ্বের ফলে বিজেপির ভোট কাটাকুটির অংকে লাভবান হওয়ার সমীকরণের প্রবল সম্ভাবনা দেখছে রাজনৈতিক মহল‌। তবে ভোটবাক্স খোলার পর এই সম্ভাবনার সঙ্গে বাস্তব কতটা মিল খায়, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!