এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > নভেম্বরের পরেই আরও শক্তিশালী হয়ে উঠতে চলেছে বিজেপি? কোন অঙ্কে? কিভাবে? জেনে নিন বিস্তারে

নভেম্বরের পরেই আরও শক্তিশালী হয়ে উঠতে চলেছে বিজেপি? কোন অঙ্কে? কিভাবে? জেনে নিন বিস্তারে



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – লোকসভায় ভারতের বুকে জয়যাত্রা অটুট রেখেছে গেরুয়া শিবির। এর সাথেই দেশের একাধিক বিধানসভাও বর্তমানে বিজেপির দখলে। আর এবার লক্ষ্য রাজ্যসভা। আগামী 11 ই সেপ্টেম্বর রাজ্যসভার উপ নির্বাচন হতে পারে। আর সেই কথা মাথায় রেখেই এবার বিজেপি চেষ্টা চালাচ্ছে রাজ্যসভাতেও নিজেদের সদস্য সংখ্যা আরও বাড়িয়ে নেওয়ার বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল। আর সেক্ষেত্রে বিজেপির চাণক্য অমিত শাহ এবং সভাপতি জে পি নাড্ডা যে বিশেষ ভূমিকা গ্রহণ করবেন, সে কথা বলাই বাহুল্য।

উত্তরপ্রদেশের রাজ্যসভার সাংসদ অমর সিং সদ্য প্রয়াত হয়েছেন। এই অবস্থায় তাঁর সিটটি হয়ে গেছে ফাঁকা। যথারীতি এই সিটেই হতে চলেছে আগামী দিনে রাজ্যসভার ভোট। আর সেই ভোটের মাধ্যমেই বিজেপি সহজ জয় তুলে নিতে চাইছে বলে মনে করা হচ্ছে। বর্তমানে রাজ্যসভায় বিজেপির সাংসদ 86 জন এবং শরিকদলগুলো মিলিয়ে টোটাল রাজ্যসভার সংসদ 113 জন। যার মধ্যে উত্তরপ্রদেশের 31 জন সাংসদ রয়েছেন। দেশের অন্যান্য রাজ্যের সাংসদদের থেকে যা অনেকটাই বেশি বলে জানা যায়।

বিশেষজ্ঞদের মতে, উত্তরপ্রদেশের বিধানসভার একসঙ্গে রাজ্যসভার ভোটের একটা নিবিড় যোগ আছে। সেদিক থেকে মনে করা হচ্ছে, রাজ্যসভার 10 টি আসনের মধ্যে 8 টি আসনে খুব সহজেই বিজেপি জিতে যাবে এবং নবম আসনটি শরিকদের বদান্যতায় বিজেপির হাতে চলে আসবে। উত্তরপ্রদেশের 403 টি আসনের মধ্যে 395 টি আসন পরিপূর্ণ। আর এই 395 টি আসন থেকে বেশির ভাগটাই বিজেপি নিজের দিকে টানার চেষ্টা চালাবে বলে মনে করা হচ্ছে, এই মুহূর্তে উত্তরপ্রদেশে 305 টি আসন নিয়ে বিজেপি সবথেকে এগিয়ে বিধানসভায়।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

48 টি আসন রয়েছে সমাজবাদী পার্টির কাছে, 18 টি আসন রয়েছে বিএসপির হাতে এবং আপনা দল ও কংগ্রেসের হাতে রয়েছে যথাক্রমে 9 টি আসন এবং 7 টি আসন। আপাতত উত্তর প্রদেশের বিধানসভার 8 টি আসন এই মুহূর্তে খালি। নভেম্বরের আগে যদি সেখানে উপনির্বাচন হয়, তাহলে অবশ্যই ভোটের অংক পাল্টে যাবে বলে দাবি করা হচ্ছে। আর যদি উপনির্বাচন না হয়, তাহলে রাজ্যসভায় আনুপাতিক ভোটের নিরিখে প্রত্যেক প্রার্থীকে 37 টি ভোটের কোটা পার হতে হবে।

আর সেক্ষেত্রে বিজেপি রাজ্যসভার যে অবস্থানে রয়েছে তাতে খুব সহজে জয় আসবে বলে মনে করা হচ্ছে। আপাতত বিজেপি লোকসভা এবং দেশের বেশিরভাগ বিধানসভার পর এবার রাজ্যসভাতেও নিজেদের প্রভাব বিস্তার করতে উঠে পড়ে লেগেছে বলে মত রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের। আর সেক্ষেত্রে রাজ্যসভাতে বিজেপি যদি সংখ্যাগরিষ্ঠ হয়,তাহলে যেকোন বিল পাশ হতে আর কোনো সমস্যাই হবেনা বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহলের একাংশ। আর সেখানেই সবথেকে বেশী ভয়ের কারণ দেখছে বিরোধীরা।

আপনার মতামত জানান -

ট্যাগড
Top
error: Content is protected !!